BREAKING NEWS

১৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  শুক্রবার ২৯ মে ২০২০ 

Advertisement

নিমতায় দেবাঞ্জন হত্যাকাণ্ডে বজবজ থেকে গ্রেপ্তার মূল অভিযুক্ত প্রিন্স

Published by: Sulaya Singha |    Posted: October 19, 2019 7:33 pm|    Updated: October 19, 2019 8:00 pm

An Images

সুরজিৎ দেব, ডায়মন্ড হারবার: নিমতাকাণ্ডে গ্রেপ্তার মূল অভিযুক্ত প্রিন্স সিং। বজবজ ও নিমতা থানার যৌথ চেষ্টায় শনিবার বিকেলে বজবজের এক আত্মীয়ের বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হল প্রিন্সকে। আগামিকাল তাকে আদালতে তোলা হবে বলে সূত্রের খবর। জানা গিয়েছে, ধৃত বিশাল মারুর থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই এদিন গ্রেপ্তার করা হয়েছে মূল অভিযুক্ত প্রিন্সকে।

নিমতাকাণ্ডের তদন্তে নেমে শুক্রবার বিশাল মারু নামে এক যুবককে আটক করে পুলিশ। দফায় দফায় জিজ্ঞাসাবাদের পরই গ্রেপ্তার করা হল বিশালকে। শনিবার আদালতে তোলা হলে তাকে ১১ দিনে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেয় আদালত। ধৃত এই যুবকই মূল অভিযুক্ত প্রিন্সের ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তাকে জেরা করেই প্রিন্সের খোঁজ পাওয়া যেতে পারে বলেই অনুমান করেছিলেন তদন্তকারীরা। অনুমানই সত্যি হল। বিশালের থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই অবশেষে পুলিশের ফাঁদে ধরা পড়ল নিমতাকাণ্ডের মূল অভিযুক্ত প্রিন্স।

পুলিশ সূত্রে খবর, দেবাঞ্জন খুনের পরই তাঁর মোবাইল উদ্ধার করে পুলিশ। ওই মোবাইলের কললিস্ট পরীক্ষা করে পুলিশ বুঝতে পারে ত্রিকোণ প্রেমের জেরেই খুন হতে হয়েছে দেবাঞ্জনকে। মূল অভিযুক্ত হিসাবে উঠে আসে প্রিন্স নামে এক যুবকের নাম। কিন্তু ঘটনার পর থেকেই বেপাত্তা ছিল প্রিন্স। প্রথম থেকেই পুলিশের অনুমান ছিল যে, খুনের পরও প্রিন্সের সঙ্গে যোগাযোগ ছিল বিশালের। অনুমানের উপর ভিত্তি করেই মূল অভিযুক্ত প্রিন্সের খোঁজ শুরু করেছিল পুলিশ। বারাকপুর কমিশনারেটের গোয়েন্দা বিভাগ ও নিমতা থানার পুলিশ আটটি দলে ভাগ হয়ে তার খোঁজ চালাতে শুরু করে। শুক্রবার রাত থেকে দমদম, সল্টলেক, লেকটাউন-সহ শহরের বিভিন্ন প্রান্তে তার খোঁজে তল্লাশি চালানো হয়েছে। পুলিশ সূত্রে খবর, প্রিন্সের দাদা দীপক সিংকে নিয়ে আত্মীয়র বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। শনিবার তদন্তকারীরা জানতে পারেন যে বজবজে এক আত্মীয়ের বাড়ি গা ঢাকা দিয়েছে প্রিন্স। এরপরই যোগাযোগ করা হয় বজবজ থানায়। দুই থানার যৌথ উদ্যোগে শনিবার বিকেলে বজবজে এক দূর সম্পর্কের দাদার বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হল প্রিন্সকে। মূল অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করেই ঘটনায় জড়িত অন্যান্যদের হদিশ মিলবে বলে আশাবাদী তদন্তকারীরা।

[আরও পড়ুন: ভরতুকিহীন রেশন কার্ডের আবেদন শুরু ৫ নভেম্বর, জেনে নিন পদ্ধতি]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement