BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

সোশ্যাল মিডিয়ায় দলবিরোধী বক্তব্য নয়, বিজেপি রাজ্য নেতাদের কড়া নির্দেশ কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 12, 2020 1:53 pm|    Updated: September 12, 2020 2:01 pm

An Images

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: সোশ্যাল মিডিয়ায় (Social Media) দলবিরোধী কোনও কথা চলবে না। বুথস্তর থেকে শুরু করে রাজ্য সংগঠন পর্যন্ত দলের কোনও নেতা বা কর্মী এই কাজ করলে তাঁর বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে পার্টি। দলের শৃঙ্খলারক্ষায় বিজেপির (BJP) রাজ্য নেতাদের  উদ্দেশে এমনই কড়া নিদান দিল কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। দলীয় সূত্রে খবর, বৃহস্পতিবার কলকাতায় বিজেপির রাজ্য কর্মসমিতির বৈঠকে দলের রাজ্য কমিটির সদস্যদের এই কড়া অবস্থানের কথা জানিয়ে দিয়েছেন শীর্ষ নেতারা।

রাজ্যে দলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় নেতা শিবপ্রকাশের কড়া বার্তা, দলের কোনও নেতার বিরুদ্ধেই ফেসবুকে (Facebook) প্রকাশ্যে সমালোচনা বা কুৎসা থেকে বিরত থাকতে হবে। পার্টির নীতি-অবস্থান বা পার্টি লাইনের বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনও মন্তব্য করা যাবে না। বুথ থেকে রাজ্য পর্যন্ত মনিটরিং করা হবে। কেউ দলবিরোধী এই ধরনের কাজ করলে তাঁদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেবে পার্টি। বার্তার পরও বহু ক্ষেত্রে সোশ্যাল মিডিয়ায় দলবিরোধী কথাবার্তা প্রকাশ্যে আসছে দলের একাংশের। সেটা কেন্দ্রীয় নেতাদের নজরে এসেছে। আর তাই এই প্রবণতা আটকাতে দলবিরোধী কাজে রাশ টানতেই কর্মসমিতির বৈঠকে কড়া বার্তা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব।

[আরও পড়ুন: আসানসোল পুরনিগম নিয়ে ভুয়ো পোস্ট, ধৃত বিজেপি নেতা, প্রতিবাদ করে গ্রেপ্তার সাংসদ সৌমিত্র]

দলীয় সূত্রে আরও খবর, রাজ্য বিজেপির সহ-পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন বৈঠকে রাজ্য নেতৃত্বের উদ্দেশে বলেছেন, সোশ্যাল মিডিয়ায় সবচেয়ে বেশি আক্রমণও করা উচিত তৃণমূলের (TMC) বিরুদ্ধে। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে, কেউ কেউ নিজেদের মধ্যেই দোষারোপ করে চলেছে। ৭৮ হাজার বুথে দলের বুথ কমিটি গঠন না হলে ভোটের লড়াই কঠিন হবে, সেটা বৈঠকে স্পষ্ট করেছেন মুকুল রায় (Mukul Roy)। সূত্রের খবর, দলের জাতীয় কর্ম সমিতির সদস্য মুকুলবাবুর কথায়, বুথ কমিটি তৈরি না হলে ভোটে লড়াই কঠিন হবে। রাজ্যের এক শীর্ষ নেতার প্রশ্ন, যত সদস্য সংগ্রহ হয়েছে, তাতে প্রতি বুথে ১২৮ জন করে লোক দেওয়া যায়। কিন্তু মাত্র ৫৫ হাজার বুথে কমিটি হয়েছে। একুশের আগে সেই খামতি পূরণ করে নিতে মরিয়া বঙ্গ বিজেপি।

[আরও পড়ুন: হেমতাবাদের বিজেপি বিধায়ক মৃত্যু মামলায় চার্জশিট দাখিল CID’র]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement