BREAKING NEWS

১০ কার্তিক  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

মাল্টিপ্লেক্সের দাপট, দর্শকের অভাবে বন্ধ হচ্ছে ঐতিহ্যবাহী মিত্রা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 2, 2019 9:32 am|    Updated: July 19, 2019 2:01 pm

Nostalgia: Kolkata's on of the oldest Mitra cinema hall has been closed

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তিলোত্তমার বুকে বন্ধ হয়ে গেল আরও এক ঐতিহ্যবাহী প্রেক্ষাগৃহ৷ রক্ষণাবেক্ষণে সমস্যা, খরচ নিয়ে হিমশিম দশার জেরে উত্তর কলকাতার সুপ্রাচীন সিনেমা হল মিত্রা বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল কর্তৃপক্ষ৷ দিকে দিকে গজিয়ে ওঠা মাল্টিপ্লেক্সের সঙ্গে আজকের প্রতিযোগিতায় পিছিয়ে পড়ছে সিঙ্গল স্ক্রিনের মিত্রা৷ ভাল ছবিও হল ভরাতে পারছে না৷ তার উপর ঐতিহ্যের এই প্রেক্ষাগৃহের রক্ষণাবেক্ষণের খরচ বিপুল৷ তা সামলাতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হচ্ছে হল মালিককে৷ এসব দেখেই মিত্রার বর্তমান মালিক দীপেন্দ্রকৃষ্ণ মিত্র হলটি বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন৷

                                            [ আরও পড়ুন : আসছে দাবদাহের দিন, বিদ্যুতের রেকর্ড চাহিদা মেটাতে প্রস্তুতি শুরু নিগমের]

শ্যামবাজার-হাতিবাগান এলাকার বহু প্রাচীন প্রেক্ষাগৃহ মিত্রা৷ স্বাধীনতারও আগে, ১৯৩১ সালে এই সিনেমার হল তৈরি হয়েছিল কলকাতা নগরীতে৷ প্রথমে প্রেক্ষাগৃহের নাম ছিল চিত্রা৷ স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে হলটি কিনে নেন উত্তর কলকাতার জমিদার বংশের সদস্য হেমন্তকৃষ্ণ মিত্র৷ তিনিই নাম পালটে রাখেন মিত্রা৷ সেই সময় অর্থাৎ, ষাটের দশক থেকেই মিত্রার পথচলা৷ প্রায় ৯০ বছরের কাছাকাছি সময় ধরে বহু পরিবর্তনের সাক্ষী এই সিনেমা হল৷ উত্তর কলকাতার জনজীবনের সঙ্গে একেবারে অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত মিত্রা৷ বাণিজ্যিক বাংলা ছবি হোক কিংবা মূল ধারার বাইরের সিনেমা, সব কিছুর জন্য নিজের দরজা খোলা রেখেছে মিত্রা৷

আজকের দিনে মাল্টিপ্লেক্সের বাড়বাড়ন্তের মধ্যেও বাংলায় সমান্তরাল ধারার বহু সিনেমার নির্মাতারা যখন ছবি মুক্তির পর প্রেক্ষাগৃহ খুঁজে বেড়ান, তখন তাঁদের সাদরে জায়গা করে দেয় মিত্রা সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ৷ সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিতে গিয়ে বেশ কয়েকবার সংস্কার হয়েছে প্রাচীন এই প্রেক্ষাগৃহের৷ বিলাসিতার হাজারও উপকরণ যোগ হয়েছে৷ কিন্তু ঐতিহ্য বজায় রেখেই সিঙ্গল স্ক্রিন হঠিয়ে মাল্টিপ্লেক্স করা হয়নি৷ আর সেটাই বোধহয় কাল হয়ে দাঁড়াল৷ মালিক দীপেন্দ্রকৃষ্ণ মিত্রের আক্ষেপ স্পষ্ট৷ তিনি জানাচ্ছেন, মাল্টিপ্লেক্সের যুগে যত ভাল ছবিই চলুক না কেন, হল ভরছে না দর্শকে৷ তাই লাভ তো হচ্ছেই না, এমনকী কখনও কখনও প্রেক্ষাগৃহ রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজনীয় খরচটুকুও উঠছে না৷ এই সমস্যা বেশ কয়েকদিনেরই৷ তা সত্ত্বেও ঐতিহ্যবাহী সিনেমা হলটি চালানোর চেষ্টা করে গিয়েছে মালিকপক্ষ৷ কিন্তু ব্যবসার খেলায় শেষপর্যন্ত হার মানতে হল৷ মালিক দীপেন্দ্রকৃষ্ণ মিত্র জানিয়েছেন, মিত্রা হল বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর সেখানে একটি শপিং মল তৈরি করার পরিকল্পনা রয়েছে৷

                                       [ আরও পড়ুন :  থেমে গেল গান, বন্দুকবাজের গুলিতে নিহত মার্কিন ব়্যাপার নিপসি হাসল]

এর আগে ধর্মতলার সুপ্রাচীন সিনেমা হল মেট্রোও একই কারণে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল৷ তা ভেঙে ফেলার পর দীর্ঘদিন কঙ্কালসার অবস্থাতেই পড়ে ছিল৷ সম্প্রতি মেট্রো সিনেমা হলের জায়গাটিতে তৈরি হয়েছে শপিং মল৷ মনে করা হয়েছিল, শপিং মলের সঙ্গে সিনেমা হলটিও ফিরবে৷ কিন্তু নস্টালজিক শহরবাসীর সেই আশা পূরণ হয়নি৷ শুধুমাত্র নামমাহাত্ম্যেই এখনও জায়গাটি চিহ্নিত হয়ে রয়েছে৷ মিত্রার ক্ষেত্রেও তেমনটাই হতে চলেছে৷ খবর শোনার পর থেকে মনমরা হয়ে পড়েছেন উত্তর কলকাতার সিনেপ্রেমী মানুষজন৷ অনেকেই বলছেন, বাড়ির কাছে এমন একটা ভাল সিনেমা হল বন্ধ হওয়ায়, তাঁরা অনেক কিছু থেকেই বঞ্চিত হবেন৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement