১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

এনআরসি-র জন্য জঙ্গিরা উসকানি পেয়েছে, তিনসুকিয়া গণহত্যায় বিস্ফোরক পার্থ

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: November 2, 2018 3:59 pm|    Updated: November 2, 2018 3:59 pm

Partha Chatterjee opens up on Assam’s Tinsukia massacre

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অসমের তিনসুকিয়ায় পাঁচ বাঙালি যুবককে গুলি করে খুনে ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানালেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ অসমজুড়ে বাঙালিদের উপর নেমে আসা একের পর বিপর্যয়ের প্রসঙ্গ তুলে শুক্রবার নাম না করে বিজেপিকে চূড়ান্ত কটাক্ষ করেন পার্থ৷ এই ঘটনার প্রতিবাদে রাজ্য ও দেশজুড়ে লাগাতার আন্দোলন গড়ে তোলারও ডাক দেন মহাসচিব৷ বাঙালি হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে পার্থবাবু বলেন, ‘‘রাজনৈতিক কারণে অসমে এনআরসি থেকে বাঙালিদের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে৷ সরকারের এই অভিসন্ধিতে মদত পেয়েছে জঙ্গিরা৷ আর, সেই কারণেই ঘটনা ঘটেছে৷ এই মুহূর্তে গোটা অসমজুড়ে বাঙালি নিধন চলছে৷’’

[যাদবপুর পোস্ট অফিসে আগুন, বন্ধ পরিষেবা]

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার এই ঘটনা জানতেই টুইটারে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “অসম থেকে ভয়াবহ ঘটনার খবর পেলাম। এই ঘটনার তীব্র নিন্দা করছি। শোক জানানোর ভাষা নেই। দোষীদের দ্রুত ধরে শাস্তি দিতে হবে। আমার প্রশ্ন, এটা কি নাগরিকপঞ্জি নিয়ে সাম্প্রতিক ঘটনাবলীর পরিণাম?”

[এনআরসিতে নাম নেই, অসমে প্রবাসী পড়ুয়াদের সার্টিফিকেট মধ্যশিক্ষা পর্ষদের]

গোটা ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর টুইট পোস্ট হতেই তৃণমূলের তরফে গুচ্ছ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়৷ রাতেই রাজ্যজুড়ে প্রতিবাদ সভার ডাক দেয় তৃণমূল৷ আজ, দুপুরে অসমে বাঙালি হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে মুখে কালো কাপড় বেঁধে পথে নামে তৃণমূল নেতৃত্ব৷ যাদবপুর ৮বি বাসস্ট্যান্ড থেকে হাজরা মোড় পর্যন্ত বিশাল মিছিলের নেতৃত্ব দেন সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম-সহ দলের শীর্ষ নেতারা৷ ইতিমধ্যেই দুই ২৪ পরগনা, নদিয়া, বীরভূম-সহ গোটা রাজ্যেজুড়ে প্রতিবাদে শামিল হন কয়েক হাজার তৃণমূল কর্মী৷

[শহরে মাদক পাচারের নেপথ্যে ‘ডার্ক ওয়েব’, তদন্তে লালবাজার]

বৃহস্পতিবার রাতে অসমের তিনসুকিয়া জেলার ধোলা-খেরোনিবাড়ি এলাকায় পাঁচজন বাঙালি যুবককে ব্রহ্মপুত্র নদের তীরে পয়েন্ট ব্ল্যাঙ্ক রেঞ্জ থেকে গুলি করে হত্যা করা হয়৷ ঘটনায় দায় স্বীকার করেছে বিচ্ছিন্নতাবাদী জঙ্গি সংগঠন উলফা (আই)। উলফা আই অর্থাৎ ইন্ডিপেনডেন্ট হল স্বাধীন উলফা জঙ্গি গোষ্ঠী৷  ইউনাইটেড লিবারেশন ফ্রন্ট অফ আসাম (উলফা)-র এই গোষ্ঠীটি সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা নেতা পরেশ বড়ুয়ার অনুগত৷ বর্ষীয়ান মোস্ট ওয়ান্টেড উলফা জঙ্গি নেতা পরেশ বড়ুয়া এখন বাংলাদেশে গা ঢাকা দিয়ে আছে৷ উলফা (আই) ভারত সরকারের সঙ্গে কোনওরকম আলোচনার বিরুদ্ধে। এরা স্বাধীন অসম রাষ্ট্রের দাবিদার। এরা চায় অসম থেকে হিন্দু বাঙালিদের বিতাড়ন৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে