৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শুরুতেই ধাক্কা, অনেক দেরিতে ছাড়ল কলকাতা-লন্ডন বিমান, তুমুল ক্ষোভ যাত্রীদের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: September 17, 2020 4:29 pm|    Updated: September 17, 2020 5:07 pm

An Images

কলহার মুখোপাধ্যায়: চ্যালেঞ্জটা কঠিনই ছিল। কোভিড পরিস্থিতিতে এক দশক পর কলকাতা-লন্ডন সরাসরি উড়ান পরিষেবা (Kolkata-London flight service) চালু হচ্ছে। সমস্ত বিধি মেনে, বাণিজ্যের দিকটা বজায় রেখে পরিষেবা চালিয়ে যাওয়া খুব সহজ কাজ যে হবে না, তা বোঝাই গিয়েছিল। তবে এই পরিষেবার শুরুতেই যে এতটা সমস্যা দেখা দেবে, আশা করা যায়নি। যথাযথ কোভিড রিপোর্ট না থাকায় লন্ডনের হিথরো বিমানবন্দর থেকে বহু যাত্রী কলকাতাগামী বিমানে উঠতেই পারলেন না। এদিকে, কলকাতা থেকে লন্ডন যাওয়ার যাত্রী সংখ্যা এত কম যে দিল্লি থেকে যাত্রী তুলে তবে লন্ডন রওনা দিতে হল এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানকে। ফলে কলকাতা-লন্ডন উড়ান পরিষেবা শুরুতেই ধাক্কার মুখে পড়ল।

বুধবার রাত প্রায় ১.৩৫। লন্ডনের হিথরো বিমানবন্দর থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমান দমদম বিমানবন্দরের মাটি ছুঁয়েছে। প্রায় ১১ বছর পর ব্রিটেন-ভারতের দুই শহরের মধ্যে সরাসরি বিমান, ফলে উদ্দীপনা বেশি ছিল দুই বিমানবন্দরেই। কিন্তু লন্ডন থেকে আসা বিমানটি বেশ হতাশই করল দমদম বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে। দেখা গেল, পেল্লাই সাইজের বিমানটিতে ১১ জন ক্রু-মেম্বার মাত্র ১৪ জন যাত্রী নিয়ে কলকাতা ফিরলেন। কেন এত কম যাত্রী? জানা গেল, করোনার রিপোর্ট হিসেবে RT-PCR রিপোর্ট হাতে না থাকায় তাঁদের বিমানে উঠতে দেওয়া হল না। ফিরে যেতে হল অনেককেই। যাত্রীরা জানতেনই না যে RT-PCR পরীক্ষা করাতে হবে বিমান ওঠার আগে।

[আরও পড়ুন: মন্দির তৈরিতে দিতে হবে ৫০ হাজার টাকা! রাজি না হওয়ায় পর্ণশ্রীতে অন্তঃসত্ত্বাকে মারধর]

এতেই চূড়ান্ত সমন্বয়ের অভাবের অভিযোগ তুলছেন যাত্রীরা। যদিও এয়ার ইন্ডিয়া কর্তৃপক্ষের দাবি, তাদের ওয়েবসাইট এবং ‘এয়ার সুবিধা’ অ্যাপে সবরকম বিধির কথা উল্লেখ করা ছিল। এক যাত্রী জানালেন, তিনি লন্ডনের যে ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকতেন, সেই ফ্ল্যাটটি ছেড়ে কলকাতা ফিরে আসছিলেন পাকাপাকিভাবে। কিন্তু RT-PCR রিপোর্ট হাতে না থাকায় বিমানে উঠতে পারেননি। এখন কী করবেন, তা ভেবেই আকুল তিনি। লন্ডনে পড়তে যাওয়া দক্ষিণ কলকাতার ম্যানেজমেন্ট ছাত্র বলছেন, ”ভাগ্যিস ১৩০ পাউন্ড খরচ করে RT-PCR পরীক্ষা করিয়েছিলাম।”

[আরও পড়ুন: করোনা সংকটের আবহে সেলিব্রিটিদের দুর্গাপুজো উদ্বোধনে চাইছে না উদ্যোক্তারা]

এদিকে, লন্ডন থেকে আসা বিমানটিরই বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা নাগাদ দমদম থেকে যাত্রী নিয়ে উড়ে যাওয়ার কথা ছিল হিথরোয়। কিন্তু যাত্রী সংখ্যা অনেক কম থাকায়, তা এখানেই ৪ ঘণ্টা অপেক্ষা করে দেরিতে ছাড়ে। টা ১০এ বিমান ছাড়বে বলে ঠিকমতো যানবাহন না পাওয়ার আশঙ্কায় অনেকেই রাতেই পৌঁছে গিয়েছিলেন  বিমানবন্দরে। তবে সকাল ৬টা ১০এর পরিবর্তে সকাল ১০টা নাগাদ বিমানটি ছেড়ে পৌঁছয় দিল্লি। সেখান থেকে বেশ কয়েকজন যাত্রী তুলে তবেই তা লন্ডনমুখী হল। হিথরোয় বিমানটি পৌঁছবে রাত ৯টা নাগাদ, যেখানে কলকাতা থেকে সরাসরি গেলে বিকেল ৪টের মধ্যে পৌঁছে যাওয়ার কথা। সবমিলিয়ে, প্রথম দিনই কলকাত-লন্ডন বিমান পরিষেবা একাধিক প্রতিকূলতার মুখে পড়ল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement