BREAKING NEWS

১২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

লোকাল ট্রেন ও পর্যাপ্ত পরিবহণের ব্যবস্থা নেই, অফিস খোলার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাই কোর্টে মামলা

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: June 2, 2020 9:03 pm|    Updated: June 2, 2020 9:03 pm

PIL against State Govt at Calcutta HC for resuming workforce in offices

শুভঙ্কর বসু: লোকাল ট্রেন ও পর্যাপ্ত পরিবহণের ব্যবস্থা না করেই সরকারি ও বেসরকারি অফিস খোলার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এবার জনস্বার্থ মামলা দায়ের হল কলকাতা হাই কোর্টে। পাশাপাশি কোনও পরিকল্পনা না করে লকডাউন শিথিল করার সিদ্ধান্তেরও তীব্র বিরোধিতা করে কেন্দ্র-রাজ্য উভয়ের জবাব তলব করা হয়েছে মামলায়।

মামলাকারী আইনজীবী অনিন্দ্যসুন্দর দাসের বক্তব্য, লোকাল ট্রেন কবে থেকে চলাচল করবে সে ব্যাপারে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। রাস্তায় পর্যাপ্ত পরিবহণও নেই। যে সংখ্যক বাস চালানো হচ্ছে তাতে যাত্রীদের সামাজিক দূরত্ব বিধি মানা সম্ভব হচ্ছে না। কোথাও বাসে ধাক্কাধাক্কি করে ওঠার ছবি ধরা পড়ছে। কোথাও বা আবার বাস না পেয়ে ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে আছেন যাত্রীরা। এই পরিস্থিতিতে রাজ্য সরকার আগামী ৮ জুন থেকে ৭০ শতাংশ কর্মী নিয়ে সরকারি এবং বেসরকারি অফিসগুলি খোলার কথা ঘোষণা করেছে। পর্যাপ্ত গণপরিবহনের ব্যবস্থা না করে এমনটা করার অর্থ মানুষকে মৃত্যুরমুখে ঠেলে দেওয়া। এ ব্যাপারে আদালত অবিলম্বে পদক্ষেপ গ্রহণ করুক।

[আরও পড়ুন: ‘বাংলার কোয়ারেন্টাইন সেন্টারগুলি মৃত্যুর আঁতুরঘর’, নতুন পদ পেয়েই রাজ্যকে বিঁধলেন সায়ন্তন]

এছাড়াও মামলায় অনিন্দ্যবাবুর অভিযোগ, লকডাউন কার্যকর করতে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে রাজ্য সরকার। লকডাউন তুলে দেওয়ার পরও একই ছবি ধরা পড়ছে। কোথাও সামাজিক দূরত্ববিধি মানা হচ্ছে না। পুরোনো ছন্দে বাজার খুলেছে। কোনওরকম প্রাথমিক স্বাস্থ্যবিধি না মেনেই চলছে কেনাকাটা। কোথাও কোনোও নজরদারি বালাই নেই। এছাড়াও তাঁর অভিযোগ, ভিন রাজ্য থেকে ঘরে ফেরা শ্রমিকদের ব্যাপারেও রাজ্যের কোনও সুস্পষ্ট নীতি নেই। তাদের থাকার জন্য পর্যাপ্ত কোয়ারেন্টাইন সেন্টারের ব্যবস্থা করা হয়নি। ফলে আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। পুলিশি নজরদারিতে এখনই বিষয়টি নিয়ন্ত্রণ না করা গেলে পরিস্থিতি আরও ঘোরালো হবে। ফলে অবিলম্বে পদক্ষেপ গ্রহণ করুক আদালত।

[আরও পড়ুন: স্তন্যদানে অপারগ মা, করোনাতঙ্ক উপেক্ষা করে স্তন্যপান করিয়ে সদ্যোজাতর কান্না থামালেন নার্স]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে