BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

পুজোর ভিড়ে রোড রোমিওদের রুখতে স্লোগান বাঁধল পুলিশ

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: October 11, 2018 6:38 pm|    Updated: October 11, 2018 6:38 pm

Police busted slogans to stop the Road Romeos in Pujo crowd

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অন্য বছরগুলিতে পঞ্চমী থেকে রাস্তায় নামে কলকাতা পুলিশ। এবার চতুর্থী থেকেই ভিড় সামলাবে লালবাজার। কুইক রেসপন্স টিম ছাড়াও ডিসি পর্যায়ের অভিজ্ঞ অফিসাররা থাকবেন নামী পুজো মণ্ডপগুলির সামনে৷ ইতিমধ্যেই প্যান্ডেল হপিংয়ে বেরিয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ৷ চতুর্থীতে ছুটি। ওইদিন থেকেই ভিড় শুরু হবে বলে মনে করছে পুলিশ। তাই অতিরিক্ত বাহিনী। থাকবে সাদা পোশাকের পুলিশকর্মী। ইভটিজিং রুখতে সাদা পোশাকের মহিলা পুলিশ থাকবে।

[অপুষ্টিতে আক্রান্ত অন্তঃসত্ত্বাদের নিখরচে খাদ্যসামগ্রী দেবে রাজ্য সরকার]

পুজোর দিনগুলিতে ট্রাফিক ব্যবস্থাও আঁটসাট থাকবে। হেলমেট ছাড়া কোনও বাইক চলবে না। ইতিমধ্যে কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার বিভিন্ন প্যান্ডেল পরিদর্শন করেছেন। শহরের বেশ কিছু জায়গায় ব্রিদ অ্যানালাইজার নিয়ে হাজির থাকবে পুলিশ৷ কেউ মদ্যপান করে বাইক বা গাড়ি চালালেই তাঁকে আটক করা হবে। অতিরিক্ত গতিতে বাইক বা গাড়ি চললে তা ধরা পড়বে ‘স্পিড রাডার গান’-এ। একটি বিশেষ টিম বেপরোয়া বাইক আরোহী ও চালকদের ধরার জন্য তৈরি থাকছে।

[পুজোয় বন্ধ ভিআইপি রোডের তিনটি ব্রিজ, যানজটের সম্ভাবনা]

রোমিওদের জন্য পুলিশের স্লোগান, ‘বলছি শোনো বারংবার, পুজো বলে নেই কোনও ছাড়৷’ পুজোর সময় শহরে হেলমেট ছাড়া বাইক চালিয়ে বেলেল্লাপনা বরদাস্ত করবে না পুলিশ। ট্রাফিক আইন মেনে ঠাকুর দেখলে কোনও সমস্যা হয় না। পুজোর সময় ট্রাফিক পুলিশও সারা রাত ডিউটিতে থাকে। দুর্ঘটনা এড়াতে নানা প্রচার চালানো হচ্ছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সতর্ক করা হচ্ছে শহরবাসীকে, যাতে তাঁরা বাইক ও গাড়ি চালানোর সময় আইন মানেন। কারণ, পুজোর সময় ট্রাফিক আইন ভাঙলে কোনও ছাড় দেওয়া হবে না। পুজোর সময় গাড়ি পার্ক করে চলে গেলে উপরে মোবাইল নম্বর লিখতে হবে। শিশুদের গলায় রাখতে হবে পরিচয়পত্র৷

[অসম থেকে রাজ্যে ঢুকছে মাদক, শহরে গ্রেপ্তার পাচারচক্রের পাণ্ডা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে