Advertisement
Advertisement
Soham Chakraborty

থানায় নেই সোহমের রেস্তরাঁ কাণ্ডের ফুটেজ! হাই কোর্টে শুনানিতে প্রকাশ্যে বিস্ফোরক তথ্য

হাই কোর্টের তরফে সস্ত্রীক রেস্তরাঁ মালিক এবং ম্যানেজারকে রক্ষাকবচ দেওয়া হয়।

Police station does not have footage of Soham Chakraborty's restaurant brawl

(বাঁদিকে) কলকাতা হাই কোর্ট এবং (ডানদিকে) অভিনেতা-বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী। ফাইল ছবি

Published by: Sayani Sen
  • Posted:July 10, 2024 10:39 pm
  • Updated:July 12, 2024 12:02 pm

গোবিন্দ রায়: নিউটাউনের রেস্তরাঁ কাণ্ডে অশান্তির ঘটনায় নয়া মোড়। সেদিনের চড় মারার ঘটনার কোনও সিসিটিভি ফুটেজই টেকনো সিটি থানায় সংরক্ষিত হয়নি। সিসিটিভি কাজ করলেও, ঘটনার বেশ কয়েকদিন আগে থেকে তা রেকর্ড হয়নি। বুধবারের শুনানিতে কলকাতা হাই কোর্টে একথাই জানাল রাজ্য। বিধাননগরের গোয়েন্দা বিভাগের ডিসিকে নতুন করে তদন্ত রিপোর্ট পেশের নির্দেশ বিচারপতি অমৃতা সিনহার। আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে অগ্রগতি রিপোর্ট পেশের নির্দেশ। ওইদিনই মামলার পরবর্তী শুনানি।

রাজ্যের তরফে বুধবার কলকাতা হাই কোর্টে জানানো হয়, টেকনো সিটি থানার ওসির কাছ থেকে গোটা ঘটনার ব্যাখা তলব করেছেন পুলিশ কমিশনার। থানার ওসির ব্যাখা থাকলে তা আদালতে জানানোর নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি সিনহা। এদিন হাই কোর্টের তরফে সস্ত্রীক রেস্তরাঁ মালিক এবং ম্যানেজারকে রক্ষাকবচ দেওয়া হয়। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী, রেস্তরাঁ মালিক আনিসুর হক, তাঁর স্ত্রী সাহিল পারভিন এবং রেস্তরাঁ ম্যানেজারকে এখনই গ্রেপ্তারির মতো কোনও পদক্ষেপ নেওয়া যাবে না। আগামী ৩১ জুলাই শুনানিতে পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির হবে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: জমি দখল ইস্যুতে বড় পদক্ষেপ নবান্নের, বদলি ১৮০ BLRO!]

উল্লেখ্য, গত জুন মাসে শুটিং করার সময় গাড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে অশান্তির জেরে রেস্তরাঁ মালিককে চড় মারার অভিযোগ উঠেছে বিধায়ক সোহম চক্রবর্তীর(Soham Chakraborty) বিরুদ্ধে। যদিও পরে তিনি ক্ষমা চেয়ে নেন। তবে টেকনো সিটি থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন আক্রান্ত রেস্তরাঁ মালিক। অভিযোগ, বেশ কয়েকদিন পেরিয়ে গেলেও কোনও পদক্ষেপ করেনি পুলিশ। মামলা দায়েরের অনুমতি চেয়ে কলকাতা হাই কোর্টে আবেদন করেন রেস্তরাঁ মালিক। বিচারপতি অমৃতা সিনহা অনুমতি দেন। ওই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি অমৃতা সিনহা বিধাননগরের গোয়েন্দা বিভাগকে তদন্ত চালিয়ে যাওয়ার নির্দেশ দেন।

Advertisement

[আরও পড়ুন: গৃহিণীরও থাকা উচিত ‘ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট’, ATM কার্ড, গৃহবধূর অধিকারে সরব সুপ্রিম কোর্ট ]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ