BREAKING NEWS

১৫ চৈত্র  ১৪২৬  রবিবার ২৯ মার্চ ২০২০ 

Advertisement

চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছে ঋষভ-দিব্যাংশু, ২ দিন পর কিছুটা স্বস্তিতে পরিবার

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: February 16, 2020 4:13 pm|    Updated: February 16, 2020 4:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দু’দিন পর রবিবার দুপুর থেকে চিকিৎসায় সাড়া দিতে শুরু করল পোলবা কাণ্ডে জখম ঋষভ সিং ও দিব্যাংশু ভগত। হাসপাতাল সূত্রে খবর, রবিরার সকালের দিকেও শ্বাসপ্রশ্বাসজনিত সমস্যা হচ্ছিল ঋষভের। তবে এই মুহূর্তে আগের তুলনায় সামান্য হলেও উন্নতি হয়েছে ঋষভের। উন্নতির পথে দিব্যাংশুও।

শুক্রবার পোলবায় পুলকার দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হয়েছিল ৪ পড়ুয়া। তাদের মধ্যে দুই শিশুর অবস্থা ছিল অত্যন্ত সংকটজনক। তাদের চিকিৎসার জন্য সাত সদস্যের মেডিক্যাল টিম গঠন করা হয়। শুক্রবার রাতেই জখম ঋষভ সিংয়ের অস্ত্রোপচার করা হয়। কৃত্রিম ফুসফুসের সাহায্যে শ্বাসপ্রশ্বাস চালু রাখা হয় তার। অন্যদিকে, জখম দিব্যাংশুকে রাখা হয়েছে ট্রমা কেয়ার ইউনিটে। সর্বক্ষণ নজরে রাখা হয়েছে তাঁদের। ইতিমধ্যেই ট্র্যাকিওস্টমি পদ্ধতিতে ঋষভের ফুসফুসের ছবি তোলা হয়েছে। সেই ছবি দেখেই চিকিৎসা এগোনো হবে বলেই হাসপাতাল সূত্রে খবর। জানা গিয়েছে, সেন্ট্রাল লাইন করে ওষুধ প্রবেশ করানো হবে দিব্যাংশুর শরীরে।

[আরও পড়ুন:  ‘ড্রাইভার কাকুকে বদলে দাও’, পোলবা দুর্ঘটনার পর আতঙ্কের সুর খুদের গলায়]

অবস্থা সংকটজনক হওয়া সত্ত্বেও রবিবার বেলা গড়াতেই ঋষভ ও দিব্যাংশু চিকিৎসায় সাড়া দেওয়ায় কিছুটা হলেও স্বস্তিতে পরিবার। অন্যদিকে, ঘটনার তদন্তে উঠে এসেছে আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা গিয়েছে, দুর্ঘটনার পর হাসপাতালেই ছিল অভিযুক্ত গাড়ি চালক শামিম। গাড়িতে অনিয়মের তথ্য প্রকাশ্যে আসতেই হাসপাতাল ছাড়ে সে। এরপরই বন্ধ করে দেয় মোবাইল ফোন। প্রসঙ্গত, শুক্রবার সকালে পুলকারে স্কুলে যাচ্ছিল চুঁচুড়ার একটি বেসরকারি স্কুলের ১৪ জন পড়ুয়া।  প্রচণ্ড গতিতে যাওয়ার সময় কামদেবপুরে গাড়িটি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে রাস্তার ধারের একটি সিমেন্টের পোস্টে সজোরে ধাক্কা মেরে নয়ানজুলিতে পড়ে উলটে যায় গাড়িটি। দুর্ঘটনায় গুরুতর জখম হন ৪ জন। তাঁদের স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় এসএসকেএমে স্থানান্তরিত করা হয় ঋষভ সিং ও দিব্যাংশু ভগত নামে দুই পড়ুয়াকে। 

[আরও পড়ুন: পোলবা কাণ্ড থেকে শিক্ষা, পুলকারের দৌরাত্ম্য কমাতে নয়া গাইডলাইন]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement