BREAKING NEWS

১ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আজই শেষযাত্রায় সোমেন মিত্র, চলছে প্রিয় নেতাকে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর প্রস্তুতি

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: July 30, 2020 8:50 am|    Updated: July 30, 2020 2:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাতারাতি সব যেন বদলে গেল। বিনা মেঘে বজ্রপাতের মতো নিজেদের অভিভাবককে হারাল প্রদেশ কংগ্রেস নেতৃত্ব। বুধবার রাত ২টো নাগাদ সংগঠনের সভাপতি সোমেন মিত্রর (Somen Mitra) প্রয়াণের খবর পেয়ে প্রাথমিকভাবে দিশেহারাই হয়ে গিয়েছিলেন কংগ্রেস কর্মীরা। হাসপাতালে ভিড় করেন তাঁরা। শেষমেশ অবশ্য সেই ধাক্কা সামলে দলের দীর্ঘদিনের বর্ষীয়ান নেতা ‘ছোড়দা’কে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর পরিকল্পনা তৈরি হয়।

জানা গিয়েছে, সকাল সাড়ে ৯টা নাগাদ হাসপাতাল থেকে সোমেন মিত্রর দেহ সরাসরি নিয়ে যাওয়া হবে প্রদেশ কংগ্রেস দপ্তর বিধান ভবনে। সেখান থেকে বিধানসভা ভবন ও তাঁর বাড়ি হয়ে নিমতলা ঘাটে শেষকৃত্য হবে। ইতিমধ্যেই হাসপাতালে পৌঁছেছেন বর্ষীয়ান কংগ্রেস সাংসদ তথা তাঁর সতীর্থ প্রদীপ ভট্টাচার্য। পৌঁছেছেন পিডিএস নেতা সমীর পুততুণ্ড। অন্যান্য রাজনৈতিক দলের যুব নেতারাও শেষযাত্রায় শামিল হতে পৌঁছে গিয়েছেন হাসপাতালে। 

[আরও পড়ুন: বাংলার রাজনীতিতে ইন্দ্রপতন, প্রয়াত প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র]

প্রদেশ কংগ্রেস সূত্রে খবর, কলকাতা যে বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন বছর আটাত্তরের প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি, সেখান থেকে সাড়ে ৯টা নাগাদ সেখান থেকে বেরবে তাঁর মৃতদেহ। প্রথমে ঠিক ছিল, হাসপাতাল থেকে সোমেন মিত্রকে নিয়ে যাওয়া হবে রডন স্ট্রিটে, তাঁর বাসভবনে। কিন্তু পরে এই সূচিতে বদল করা হয়। হাসপাতাল থেকে সরাসরি মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে বিধান ভবনে। আসলে ব্যক্তি সোমেন মিত্রর থেকেও তো রাজনৈতিক সোমেন মিত্রের পরিচিতি অনেকটা বেশি। জীবনের দীর্ঘ সময় রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডেই নিজেকে সমর্পণ করেছিলেন ডানপন্থী রাজনীতির বর্ষীয়ান নেতা। শেষবেলায়ও তার ব্যতিক্রম হচ্ছে না। প্রদেশ কংগ্রেস ভবনে প্রিয় ‘ছোড়দা’কে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে আসবেন দলীয় কর্মীরা। সামাজিক দূরত্ববিধি মেনেই চলবে শ্রদ্ধা জানানোর পালা।

[আরও পড়ুন: নিমতলাতেই হয়েছিল সৎকার, মৃত্যুর ১২৯ বছর পর শ্মশানে বসল বিদ্যাসাগরের স্মৃতিফলক]

দুপুর সাড়ে ১২টা নাগাদ প্রদেশ কংগ্রেস ভবন থেকে বেরবে সোমেন মিত্রর মরদেহ। যাবে বিধানসভা ভবনে। ১৯৭২ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত বিধায়ক হয়ে বারবার এই ভবনে পা রেখেছেন তিনি। গুরুত্বপূর্ণ আলোচনায় অংশ নিয়ে দায়িত্বশীল জনপ্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে গিয়েছেন। হয়ে উঠেছেন অনেকের আইডল। ঘণ্টা খানেক বিধানসভা ভবনে তাঁর দেহ শায়িত থাকবে, চলবে শেষ শ্রদ্ধাজ্ঞাপন। এরপর দেহ পৌঁছবে প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতির বর্তমান বাসভবন, ৩, রডন স্ট্রিটের বাড়িতে। পরিবারের সদস্যরা সেখানে শেষ শ্রদ্ধা জানাবেন। এখনও পর্যন্ত স্থির করা সূচি অনুযায়ী, বিধানসভা ভবন থেকে সোমেন মিত্রর মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে আর্মহার্স্ট স্ট্রিটে, তাঁর পৈতৃক বাড়িতে। এরপর নিমতলা শ্মশানে হবে শেষকৃত্য। এদিন সোমেন মিত্রর শেষযাত্রার দিকে দিনভর নজর থাকবে সকলের।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement