BREAKING NEWS

১৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ১ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

লকডাউনের পর বিমানবন্দর খোলার প্রস্তুতি, মানতে হবে একগুচ্ছ বিধিনিষেধ

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 15, 2020 11:17 pm|    Updated: May 15, 2020 11:18 pm

Preparations is going on to reopen the airports, no.of rules will be implemented

কলহার মুখোপাধ্যায়, বিধাননগর: আন্তঃরাজ্য বিমান পরিষেবা চালু হওয়া এখন স্রেফ সময়ের অপেক্ষা। পরিষেবা পুরোপুরি চালু হওয়ার আগেই করোনা সতর্কতায় একগুচ্ছ সতর্কতামূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে দেশের বিমানবন্দরগুলি। যাত্রীদের জন্য আগাম নির্দেশিকা জারি হয়েছে। এই নির্দেশিকাই আগামী তিন মাস বলবৎ থাকবে। কী সেই নির্দেশিক, একবার দেখে নেওয়া যাক। 

বিমানবন্দরের প্রত্যেক যাত্রীর এখন থেকে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিয়ে প্রবেশ করতে হবে। কর্তৃপক্ষের তরফে বলা হয়েছে, সর্বাধিক ৩০০ মিলিলিটার স্যানিটাইজার ব্যাগে রাখতে পারবেন প্রত্যেক যাত্রী। এবং সবাইকে মাস্ক পরে বিমানবন্দর চত্বরে ঢুকতে হবে। এর পাশাপাশি জানানো হয়েছে, বিমানবন্দরে সহযাত্রীদের সঙ্গে কম করে চার ফুট দূরত্ব রাখতে হবে। বোর্ডিং পাসের একটি প্রিন্টআউট সঙ্গে রাখতে হবে। বিমানবন্দরের কর্মীরা মোবাইল বা যাত্রীদের কোনও সামগ্রী সরাসরি না ছুঁয়ে দূর থেকে সেই বোর্ডিং পাস দেখে নিতে পারেন।

[আরও পড়ুন: অব্যাহত কেন্দ্র-রাজ্য টুইট তরজা, শ্রমিকদের হাতিয়ার করে সরগরম রাজনীতি]

কলকাতা নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দৈনিক প্রায় ৭৫ হাজার মানুষ যাতায়াত করেন। লকডাউন চলাকালীন একাধিকবার বিমানবন্দর জীবাণুমুক্ত করার কাজ হয়েছে। দমদম বিমানবন্দরের অধিকর্তা কৌশিক বসু উপস্থিত থেকে সেই কাজের তদারকিও করেন। জানা গিয়েছে, বিমানবন্দরে এখন থেকে অতিরিক্ত ভিড় নিয়ন্ত্রণ করা হবে। যাত্রীদের বসার জায়গায় দূরত্ব রাখার জন্য একটি করে চেয়ারে লাল ফিতে দিয়ে বেঁধে দেওয়া হয়েছে। মেঝেতে দাগ কেটে নির্দিষ্ট করে দেওয়া রয়েছে দূরত্ব।

বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্বে CISF। তাঁরা উপযুক্ত পিপিই পরে কাজ করছেন। কোনও যাত্রীর সংস্পর্শে আসা যাবে না বলে সিআইএসএফকে জানানো হয়েছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের তরফে। যাত্রীদের দেহ তল্লাশি তল্লাশি হচ্ছে দূর থেকে। টিকিট, পাস ইত্যাদি নিজেরা স্ক্যান করে নিচ্ছেন যাত্রীরা। দূরে রাখা একটি অন্য স্ক্যানারে সেই সেই ছবি ফুটে উঠছে। সেখানে দাঁড়িয়ে বিমানবন্দর কর্মীরা তা দেখে শনাক্ত করতে পারছেন করতে পারছেন যাত্রীকে।

[আরও পড়ুন: করোনা হাসপাতালে মোবাইল নিষিদ্ধকরণ নিয়ে হাই কোর্টে মামলা, শুনানি ১৯ মে]

জানা গিয়েছে, বিমান বন্দরের ভেতরে বন্দরের ভেতরে কয়েকটি খাবারের দোকান খোলা থাকবে। চা-কফি স্টলও খুলে রাখা হবে। বিমান যাত্রীদের প্রত্যেককে আরোগ্য সেতু অ্যাপ ডাউনলোড করতে বলা হয়েছে ব্যুরো অফ সিভিল এভিয়েশনের তরফে। দিন কয়েক আগে সিভিল এভিয়েশনের তরফে নির্দেশিকা জারি করে এই বিষয়টি জানানো হয়েছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে