Advertisement
Advertisement

Breaking News

Garden Reach

দুধ সাপ্লায়ার থেকে প্রোমোটার! রকেট গতিতে উত্থান গার্ডেনরিচ কাণ্ডে ধৃত ওয়াসিমের

এলাকায় বাড়ি কেনাবেচায় ওয়াসিমের তৈরি 'নিয়ম' মানতেই হতো।

Promoter Md. Wasim arrested in Garden Reach accident, used to sell milk
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:March 18, 2024 4:31 pm
  • Updated:March 18, 2024 9:09 pm

অর্ণব আইচ ও নিরুফা খাতুন: এ যেন অনেকটা – ‘ছিল রুমাল, হয়ে গেল বেড়াল’। পরিশ্রমের সঙ্গে সঙ্গে নিজের ভাগ্য তৈরির রাস্তা নিজেই খুঁজে নেওয়া। ছোট থেকে একেবারে রকেটের গতিতে অর্থনৈতিক স্বাচ্ছন্দ্যের চূড়ায় পৌঁছে যাওয়া। গার্ডেনরিচের (Garden Reach) নির্মীয়মাণ বেআইনি বহুতল ভেঙে ৭ জনের মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেপ্তার হওয়া প্রোমোটার মহম্মদ ওয়াসিমের জীবন এমনই রঙিন। কিন্তু উত্থানেরই একটা পতন থাকে। ওয়াসিমেরও ছিল। স্রেফ ক্ষমতার জোরে অনুমোদনহীন বহুতল দাঁড় করিয়ে দেওয়ার খেসারত তাঁকে দিতে হচ্ছে। সোমবার এলাকা থেকেই কলকাতা পুলিশের গুন্ডাদমন শাখার (ARS) আধিকারিকরা গ্রেপ্তার করেন ওয়াসিমকে। তাঁর বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের হয়েছে।

বছর চল্লিশের মহম্মদ ওয়াসিম গার্ডেনরিচ এলাকার দোর্দণ্ডপ্রতাপ প্রোমোটার (Promoter)। শুধু প্রোমোটিংয়ের ব্যবসাই নয়, এলাকার যে কোনও বাড়ি কেনাবেচার দালাল হিসেবে পয়লা নম্বরে নাম তাঁর। ওয়াসিমের অজান্তে ছোট হোক কি বড়, গার্ডেনরিচ এলাকার একটি বাড়িও বিক্রি হবে না। কেউ কিনতেও পারবেন না। ক্রেতা ও বিক্রেতা উভয়ের কাছ থেকেই মোটা অঙ্কের কমিশন আদায় করে তবেই সেই বাড়ির হাতবদল হবে। গত প্রায় ১০ বছর ধরে ওয়াসিমের তৈরি এই ‘নিয়ম’-এর কোনও ব্যতিক্রম নেই।

Advertisement
গার্ডেনরিচ কাণ্ডে ধৃত মহঃ ওয়াসিম। নিজস্ব চিত্র।

আদতে রাজাবাজারের বাসিন্দা ওয়াসিম একসময়ে দুধ সরবরাহের কাজ করত। তার পর পরিবহণ ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত হয়। কিন্তু মন ভরছিল না তাতে। ধীরে ধীরে নির্মাণ সামগ্রীর ব্যবসার কাজ শুরু করেন। স্থানীয় সূত্রে খবর, গার্ডেনরিচ এলাকার বাসিন্দা এক যুবকের সঙ্গে মিলে এই কাজ শুরু করে ওয়াসিম। তার পর একেবারে আলোর গতিতে উত্থান ঘটে তার। শেয়ার বাজারে ব্যবসা করে। স্ত্রীর নামে জামাকাপড়ের ব্যবসা শুরু করে। জানা যাচ্ছে, জে ৫১৩/৫, ফতেপুর ব্যানার্জি বাগান লেনের নির্মীয়মাণ বহুতলটি অনুমোদন ছাড়া স্রেফ ক্ষমতার জোরে বানাতে শুরু করে ওয়াসিম। রবিবার মাঝরাতে সেখানেই নেমে এল বিপর্যয়। বহুতল হুড়মুড়িয়ে (Collapsed)ভেঙে পড়ে পাশের বসতিতে। এখনও পর্যন্ত প্রাণহানির সংখ্যা ৭। উদ্ধারকাজ চলছে এখনও।

Advertisement

[আরও পড়ুন: একা বিজেপিই ৭,০০০ কোটি! সব বিরোধী মিলিয়ে ৬২০০ কোটি, প্রকাশ্যে নির্বাচনী বন্ডের আয়]

এসবের পরও নিজের বিপদ টের পায়নি ওয়াসিম। এলাকাতেই ছিল। কিন্তু সাতজনের প্রাণহানির নেপথ্যে যার বেআইনি কাজ দায়ী বলে মনে করা হচ্ছে, সেই ওয়াসিমকে পুলিশ এলাকা থেকেই গ্রেপ্তার করেছে। স্থানীয় সূত্রে খবর, এর আগেও জেলে গিয়েছিলেন ওয়াসিম। এদিন সকালেই গার্ডেনরিচের দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বেআইনি নির্মাণ নিয়ে কড়া বার্তা দিয়েছেন। সাফ জানিয়েছেন, ”বেআইনি নির্মাণে যে বা যারা দোষী, তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রশাসনকে বলব।” এর পরই পুলিশ তড়িঘড়ি ওয়াসিমকে গ্রেপ্তার করে। প্রোমোটিং ব্যবসার সঙ্গে জড়িত বাকিদেরও খোঁজ চলছে।

[আরও পড়ুন: ‘হাতের সঙ্গে পা-ও চলবে, মারলে আওয়াজ হবে’, লোকসভার আগে ফের চাঁচাছোলা দিলীপ]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ