BREAKING NEWS

২১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বুধবার ৮ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

দূরত্ব ভুলে BJP’র সঙ্গে ফের ঘনিষ্ঠতা বাড়াচ্ছেন রাজীব, জোড়া চিঠি পাঠালেন নেতৃত্বকে

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 26, 2021 7:02 pm|    Updated: June 26, 2021 8:37 pm

Rajib Banerjee shows himself as active member of 'BJP' by sending two letters to the State Committee |Sangbad Pratidin

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: রাজনৈতিক শিবির বদলের পর একুশের ভোটে হারের ধাক্কা সামলাতে খানিক সময় লেগেছিল। সেই সময়ের মধ্যে ফের পুরনো দল তৃণমূলের (TMC) কাছে ঘেঁষতে দেখা গিয়েছিল রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী তথা বিজেপি নেতা রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Rajib Banerjee)। কখনও দলের বিরুদ্ধে ‘বেসুরো’ ফেসবুক পোস্ট, কখনও বা তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতাদের সঙ্গে তাঁর ‘সৌজন্য সাক্ষাৎ’ বারবার সেটাই জানান দিচ্ছিল। মনে করা হচ্ছিল, পুরনো দলে ফেরার জমি শক্ত করতে চাইছেন বোধহয় রাজীব। অন্যদিকে, গেরুয়া শিবিরের সঙ্গেও দূরত্ব বাড়াচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু শনিবার সেসব জল্পনা ওলটপালট হয়ে গেল। বিজেপি (BJP) রাজ্য দপ্তরে জোড়া চিঠি পাঠিয়ে রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায় বোঝালেন, তিনি রয়েছেন বিজেপিতেই। দলের কাজই করছেন। ফলে তা নতুন সমীকরণের সূচনা করে দিল বলে মত রাজনৈতিক মহলের একাংশের।

বিজেপি সূত্রে খবর, রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের তরফে শনিবার দুটি চিঠি এসে পৌঁছেছে দলের রাজ্য দপ্তরে।  নিজের এলাকা ডোমজুড়ে (Domjur) ভোট পরবর্তী হিংসার জেরে কতজন বিজেপি কর্মী এখনও ঘরছাড়া রয়েছেন তা বিস্তারিত ভাবে খোলা চিঠিতে জানিয়েছেন রাজীব। তালিকা করে সেসব নাম চিঠিতে লিখেছেন তিনি। দলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদক অমিতাভ চক্রবর্তী এবং সহ-সম্পাদক প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়কে দুটি চিঠি পাঠিয়েছেন ডোমজুড়ের প্রাক্তন বিধায়ক। তিনি জানিয়েছেন, ভোটের পর থেকে ডোমজুড়ে যেসব অশান্তির ঘটনা ঘটেছে, তাতে যাঁরা নানাভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাঁদের ক্ষতিপূরণের আবেদন জানিয়ে  বিজেপি রাজ্য দপ্তরে পাঠানো হয়েছে তালিকা। 

[আরও পড়ুন: কসবা ভুয়ো টিকা কাণ্ড: প্রতারিতদের খুঁজে টিকা দিতে চায় পুরসভা, জানালেন ফিরহাদ]

ভোটের ফলপ্রকাশের এতদিন পর আবার রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই ভূমিকা নতুন করে গুঞ্জনের জন্ম দিল। ইতিপূর্বে দেখা গিয়েছিল, সেভাবে তিনি পদ্মশিবিরে ঘেঁষছেন না। তৃতীয় তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার পর বিজেপি নেতারা লাগাতার সমালোচনা, আক্রমণ করছিলেন শাসকদলকে। সেই সময়ে রাজীবকে কিন্তু ‘বেসুরো’ই শুনিয়েছিল। ফেসবুক পোস্টে বিজেপি নেতাদের এই সমালোচনার জবাবে তিনি তৃণমূলের পাশেই দাঁড়ান। তারপর তৃণমূলের মুখপাত্র কুণাল ঘোষ, মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে ছুটে যাওয়ায় অনেকেই মনে করছিলেন, বিজেপিতে গিয়ে ব্যর্থতার মুখ দেখে হয়ত পুরনো শিবিরেই ফিরতে চাইছেন রাজীব। আর সেই রাস্তা পরিষ্কার করতেই তৃণমূল নেতাদের সঙ্গে ফের সখ্যতা বাড়াচ্ছেন।

[আরও পড়ুন: বাংলা থেকে তৈরি হোক বহু আমলা, UPSC’তে সাফল্যের পথ দেখাচ্ছে মুখ্যমন্ত্রীর স্বপ্নের প্রতিষ্ঠান]

কিন্তু শনিবারের পর রাজনৈতিক মহলের একাংশের মত, হয়ত তৃণমূলে ফেরার পথ প্রত্যাশিতভাবে প্রশস্ত করতে পারেননি তিনি। তাই ফের গেরুয়া শিবিরেই সক্রিয়তা দেখাচ্ছেন। সূত্রের খবর, আগামী ২৯ তারিখ কলকাতায় দলের কার্যকারিণী বৈঠকে তাঁকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। তবে আমন্ত্রণপত্র পেলেই ঠিক করবেন, বৈঠকে যোগ দেবেন কি না। এমনই জানিয়েছেন রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে