১২ কার্তিক  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

স্বচ্ছতায় জোর, হাওড়া-শিয়ালদহ স্টেশনে থুতু ফেললেই জরিমানা ৫০০ টাকা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: September 22, 2020 2:50 pm|    Updated: September 22, 2020 2:50 pm

An Images

সুব্রত বিশ্বাস: আনলক ফোরে ধাতস্থ হয়েছে রেল। এবার প্রস্তুতি নিউ নর্মালের দিকে। করোনা পরিস্থিতিতে সংক্রমণের দ্রুততাকে হারাতে পারে স্বচ্ছতা। তাই ‘স্বচ্ছ পখওয়ারা’ দ্বিসপ্তাহিক পরিচ্ছন্নতা পালনে রেল স্টেশন সাফ রাখতে কড়া আইন প্রয়োগ করতে চলেছে রেল। স্টেশনে থুতু ফেলা থেকে শুরু করে যে কোনওভাবে নোংরা ছড়ালে জারিমানা দিতে হবে ৫০০ টাকা। রেল লাইনের ১৪৫ ধারায় নুইসেন্স ক্রিয়েট করলে সংশ্লিষ্ট আইন রয়েছে। তবে তা সঠিক ভাবে প্রয়োগ হয়না বলে মনে করেছেন রেলকর্তারা। হাওড়ার ডিআরএম ইশাক খান বলেন, “নোংরা ছড়ানো আইনত দণ্ডনীয়। তা উপযুক্ত ভাবে প্রয়োগ করতে হবে। কি ভাবে তা প্রয়োগ হবে তা স্থির হয়নি। আলোচনা চলছে। আলোচনার মাধ্যমে স্থির হবে যাবতীয় সিদ্ধান্ত।”

[আরও পড়ুন: পুলওয়ামার আত্মঘাতী জঙ্গির সঙ্গে যোগ ছিল মুর্শিদাবাদে ধৃত আল কায়দা জেহাদিদের]

গত ১৬ সেপ্টেম্বরে থেকে স্বচ্ছতা অভিযান শুরু হয়েছে। এবার করোনা যুদ্ধে প্রয়োজনীয় বিষয়গুলির দিকে দৃষ্টি দিয়ে স্বচ্ছতা পালনের উদ্যোগ নিয়েছে রেল। হাওড়া, শিয়ালদহ, খড়গপুর, আসানসোল, মালদহ ডিভিশনগুলিতে অভিযান চলছে। স্টেশনগুলি পরিষ্কার করার পাশাপাশি যাতে নোংরা না হয়, সে বিষয়ে সচেতন করার কাজ শুরু করেছে। এড্রেস সিস্টেম ও বিলবোর্ডে প্রচার শুরুর সাথে সাথে মাস্ক, সানিটাইজ, সাবান ব্যাবহারের সুপরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। স্টেশনে ভেন্ডিং স্টালগুলিতে খাবারে ও ব্যবহৃত সামগ্রীর উপযুক্ত যায়গায় না ফেললে নিশ্চিত জরিমানার বিষয়টি রাখা হয়েছে। কম সংখ্যক ট্রেন চললেও কামরা সাফাই, শৌচালয় সাফাই, প্যানট্রি কার সাফাই চলছে। দপ্তর থেকে, রেল আবাসন, রেল হাসপাতাল পরিচ্ছন্ন রাখার কাজ চলছে। আরপিএফ বিভাগের এক সহকারী কমান্ডেন্ট নিজের অভিজ্ঞতা ব্যক্ত করে বলেন, “আইন কড়া ভাবে প্রয়োগ করলেই চলবে না, তার কতটা সদ্ব্যবহার হচ্ছে সেদিকে নজর রাখতে হবে। বেশি কড়াকড়ি হলে যাত্রী হয়রানি বাড়বে। এক শ্রেণির রক্ষীরা যাত্রীদের ধরে নিজেদের আখের গোটাতে থাকবে। বদনাম হবে রেলের।”

উল্লেখ্য, দেশজুড়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। আক্রান্ত ব্যক্তির হাঁচি, কাশি বা লালা থেকে দ্রুত ছড়াতে পারে এই মরণ রোগের জীবাণু। তাই স্টেশন চত্বরে থুথু ফেলা নিয়ে কড়া পদক্ষেপ করল রেল। করোনা আবহে যাত্রীবাহী ট্রেন পরিষেবা স্বাভাবিক না হলেও বেশ কয়েকটি বিশেষ ট্রেন চলছে। সেগুলিতে রীতিমতো ভিড়ও হচ্ছে। ফলে যাত্রীদের স্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই এই পদক্ষেপ।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে রেলের লক্ষ্মীলাভ, গুজরাট থেকে বাংলায় মাছ পাঠিয়ে আয় লক্ষ লক্ষ টাকা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement