১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১ ভাদ্র  ১৪২৬  সোমবার ১৯ আগস্ট ২০১৯ 

BREAKING NEWS

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লোকসভায় বিজেপির ভাল ফল খুলে দিয়েছে চোখ! তাই দেশজুড়ে ‘সংঘশক্তি’ আরও বাড়াতে চাইছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ। বিস্তৃত করতে চাইছে পরিধি। এই কারণে সবথেকে বেশিদিন, ১২ বছর ধরে বিজেপির সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) পদে থাকা রাম লালকে ফিরিয়ে নিয়েছে। দায়িত্ব দিয়েছে দেশব্যাপী সংঘের মতাদর্শ প্রচারে। লোকসভার ভাল ফলে গুরুত্ব বেড়েছে বাংলারও। ফলে নজর পড়েছে সংগঠনে। তাই দীর্ঘদিন ধরে অভিযোগ থাকলেও যার বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি! সেই দক্ষিণবঙ্গের প্রান্ত প্রচারক বিদ্যুৎ মুখোপাধ্যায়কে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হযেছে। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব পেয়েছেন উত্তরবঙ্গের প্রান্ত প্রচারক জলধর মাহাতোকে। আর তাঁর জায়গায় উত্তরবঙ্গের দায়িত্ব এসেছেন এতদিন দক্ষিণবঙ্গের অন্যতম সহ-প্রান্ত প্রচারক থাকা শ্যামাচরণ রায়। গত ১১ থেকে ১৩ জুলাই অন্ধ্রপ্রদেশের বিজয়ওয়াড়াতে অনুষ্ঠিত তিনদিনের প্রান্ত প্রচারক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন- বঙ্গীয় চলচ্চিত্র পরিষদের পরামর্শদাতা কমিটিতে বামপন্থী বিপ্লব!]

সূত্রের খবর, বেশ কিছুদিন ধরেই দুর্নীতি ও স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠছিল দক্ষিণবঙ্গের প্রান্ত প্রচারক বিদ্যুৎ মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। বিভিন্ন সময়ে তিনি নারীঘটিত সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েছেন বলেও খবর পৌঁছে ছিল নাগপুরে! রাজ্য বিজেপি নেতৃত্বও শীর্ষ নেতৃত্বের কাছে অভিযোগ জানিয়েছিল বিদ্যুৎ মুখোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে৷ তাদের অভিযোগ ছিল, সংঘের নির্দেশ না থাকলেও বিদ্যুৎবাবু দলের অভ্যন্তরীণ কাজে অযাচিতভাবে নাক গলান। অনেক ক্ষেত্রেই নিজের প্রভাব খাটানোর চেষ্টা করেন৷

এর ফলে এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল যে তাঁর অঙ্গুলি হেলনেই চলত রাজ্য বিজেপির কাজকর্ম। কিন্তু, মোহন ভাগবতের সঙ্গে ভাল সম্পর্ক থাকায় নাকি তাঁকে সরাতে পারছিলেন না কেউ! কিন্তু, ব্যক্তির থেকে সংঘের আদর্শ যে অনেক বড় তা ফের প্রমাণ করল রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ! বাংলায় সংগঠন বাড়াতে তারা যে স্বচ্ছ ইমেজের উপর জোর দিচ্ছে তার প্রমাণ মিলল। আর মুরলীধর সেন লেনও রক্ষা পেল দোর্দণ্ডপ্রতাপ ওই ব্যক্তির হাত থেকে!

[আরও পড়ুন- মেমারির যুবকের অঙ্গে নতুন জীবন ৫ জনের, কাজে লাগছে ত্বকও]

যদিও ক্ষমতা বা পদ হারানোর কথা মানতে চাননি বিদ্যুৎবাবু৷ তাঁর কথায়, স্বেচ্ছায় ওই পদ ছেড়েছি। দীর্ঘ ন’বছর ধরে প্রান্ত প্রচারকের দায়িত্ব সামলেছি। কিন্তু, শারীরিক কারণের জন্য দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি চেয়েছিলাম। সবকিছু খতিয়ে দেখে সংঘ নেতৃত্ব আমার আবেদনে সম্মতি দিয়েছে। আগামিদিনে যতটা পারব নিজের মতো করে আরএসএসের জন্য কাজ করব।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং