BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

২ কর্তাকে বরখাস্তের দাবি, আমরির সামনে আমরণ অনশনে বসার হুঁশিয়ারি ঐত্রীর মায়ের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 19, 2018 10:44 am|    Updated: January 19, 2018 10:44 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আমরিকাণ্ডে এবার হাসপাতালের সামনে আমরণ অনশনে বসার হুমকি দিলেন মৃতার মা শম্পা দে। সন্তানহারা মায়ের সাফ কথা, আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে যদি আমরির সিইও রূপক বড়ুয়া ও ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়কে যদি সরানো না হয়, তাহলে হাসপাতালে সামনে অনশনে বসবেন তিনি। ওই দুই পদাধিকারী বরখাস্ত না হওয়া পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাবেন। প্রসঙ্গত, সিইও রূপক বড়ুয়া ও ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে মৃতার পরিবার। কিন্তু তাঁদের বিরুদ্ধে এখনও পর্যন্ত কোনও ব্যবস্থা নেয়নি।

[হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই ঐত্রীর মৃত্যু, উল্লেখ ময়নাতদন্তের রিপোর্টে]

মুকুন্দপুরের আমরি হাসপাতালে আড়াই বছরের ঐত্রী দে-র মৃত্যুতে স্বাস্থ্যমহলে শোরগোল পড়েছে। প্রশ্নের মুখে শহরের বেসরকারি হাসপাতালের পরিষেবা। গত সোমবার থেকে আমরিতে চিকিৎসাধীন ছিল ঐত্রী। বুধবার সকালে মারা যায় সে। পরিবারের অভিযোগ, ইনজেকশনে দেওয়ার পরই ঐত্রীর শারীরিক অবস্থা অবনতি হয় ও কিছুক্ষণ পর মারা যায় সে। এই নিয়ে বুধবার তুলকালাম হয় আমরিতে। ক্যামেরায় সামনেই নিজেকে মস্তান পরিচয় দিয়ে মৃতার পরিবারকে শাসানি দেন ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়। তাতে উত্তেজনা আরও বাড়ে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে যেমন থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন মৃতার পরিবার, তেমনি হাসপাতালের সিইএ রূপক বড়ুয়া ও ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধেও এফআইআর হয়েছে। অভিযোগ জমা পড়েছে স্বাস্থ্য কমিশনেও। বস্তুত, বৃহস্পতিবার সকালে কালীঘাটের বাড়িতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে পর্যন্ত দেখা করেছেন ঐত্রীর বাবা-মা। সঠিক তদন্ত ও দোষীদের শাস্তির আশ্বাস দিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু, ঘটনা হল ২ দিন পেরিয়ে গেলেও কারও বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এখনও নিজেদের পদেই আসীন আমরির সিইও রূপক বড়ুয়া ও ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়। এতেই ধৈর্য্যের বাঁধ ভেঙেছে মৃত ঐত্রীর মা শম্পা দে-র।

[অবশেষে পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ বিধানচন্দ্র কলেজের জিএস-এর]

সন্তানহারা মায়ের একটাই আরজি, আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে সিইও রূপক বড়ুয়া ও ইউনিট হেড জয়ন্তী চট্টোপাধ্যায়কে বরখাস্ত করা হোক। আর তা যদি না হয়, তাহলে আমরির সামনেই অনশনে বসবেন বলে জানিয়েছেন শম্পা দে। তাঁর সাফ কথা, ওই দুই পদাধিকারীকে বরখাস্ত না করা পর্যন্ত অনশন চালিয়ে যাবেন। শহরের বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসায় গাফিলতিতে শিশুমৃত্যুর অভিযোগ নতুন নয়। গত বছরের এপ্রিলে অ্যাপোলোতে চার মাসের শিশুকন্যা কুহেলি চক্রবর্তীর মৃত্যু নিয়ে কম তোলপাড় হয়নি। হাসপাতালকে ৩০ লক্ষ টাকা জরিমানাও করেছিল স্বাস্থ্য কমিশন। কিন্তু, অভিযুক্তদের বরখাস্তের দাবিতে মৃত শিশুর মা অনশনের হুমকি দিচ্ছেন, এমন ঘটনা নজিরবিহীন।

[মহানগরে পুজোয় বাড়বে পর্যটকের সংখ্যা, বাঙালিদের ঘরে ঘরে আয়ের সুযোগ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement