৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ: রাঁচি, ধানবাদ, পাটনা থেকে অনলাইনে যোগাযোগ। অনেকটা দূর থেকে সেই ভিন রাজ্যের বাসিন্দাদের বাইকে করে নিয়ে যাওয়া হত ফ্যামিলি স্পা-এ। সেখানেই থাকত সুন্দরী তরুণীরা। স্থানীয়দের চোখ ধুলে দিয়ে সেখানেই স্পা-এর আড়ালে রমরমিয়ে চলত দেহ ব্যবসা। গোপন সূত্রের খবরের ভিত্তিতে দক্ষিণ কলকাতার কালীঘাট ও নিউ আলিপুরে ওই দু’টি স্পা-এ তল্লাশি চালালো লালবাজারের গোয়েন্দারা। কালীঘাটের সদানন্দ রোডের স্পা থেকে ১৫ জন ব্যক্তি, ৯ জন যৌনকর্মী ও স্পা-এর ম্যানেজারকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। নিউ আলিপুরের সাহাপুর কলোনির একটি স্পা থেকে ধরা পড়ে এক ব্যক্তি ও এক যৌনকর্মী।

[আরও পড়ুন:সুস্থতার পথে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য, খেলেন আইসক্রিম]

পুলিশ জানিয়েছে, ওই স্পা-এর যৌনকর্মীদের একটি বড় অংশই দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুর ও অন্যান্য এলাকার বাসিন্দা। দালাল মারফৎ তাদের নিয়ে আসা হত এই স্পা দু’টিতে। সেখানে থাকত মদের সম্ভার। এলাকার বাসিন্দারা জানান, এর আগেও ওই স্পা-এ তল্লাশি হয়। তবে সম্প্রতি বেশি বাড়াবাড়ি শুরু হয়েছিল। ফলে স্থানীয়দেরও সন্দেহ হতে শুরু করেছিল। জানা গিয়েছে, বহু ভিনরাজ্যের বাসিন্দারা অনলাইনে যোগাযোগ করত ওই স্পা-এ। এরপর তাঁদের শরৎ বোস রোডের একটি ঠিকানায় আসতে বলা হত। সেখান থেকে বাইকে করে নিয়ে যাওয়া হত এই স্পাগুলিতে। 

জানা গিয়েছে, প্রায় বছর খানেক ধরে কালীঘাটের যে বাড়িতে স্পা চলছিল, সেই বাড়ির বাসিন্দার সংখ্যা কম। তবে প্রায়দিন রাতেই বাসিন্দারা দেখতেন, মদ্যপান করে রাস্তায় চিৎকার-চেঁচামেচি করছে কিছু যুবক। সপ্তাহের শেষে এই কারবারের বাড়বাড়ন্ত হত। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে গোয়েন্দারা স্পা-এ হানা দিয়ে আপত্তিকর অবস্থায় কয়েকজনকে ধরে ফেলে। আরও কয়েকজনকে ভিতরে অপেক্ষা করতেও দেখা যায়। সূত্রের খবর, উদ্ধার হয়েছে আপত্তিকর জিনিস ও নগদ টাকা। চক্রের মূল পাণ্ডাদের খোঁজে শুরু হয়েছে তদন্ত।

[আরও পড়ুন: বিদেশি শিল্পীর হাতে প্রতিমার চক্ষুদান, অভিনব উদ্যোগ বাগুইআটির পুজো কমিটির]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং