BREAKING NEWS

৭ মাঘ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২১ জানুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘সোনার গোপালের জন্যই তৃণমূলের নিধন হবে’, জনসভায় মুখ্যমন্ত্রীর জন্য ‘দুঃখপ্রকাশ’ শোভনের

Published by: Sayani Sen |    Posted: January 11, 2021 7:15 pm|    Updated: January 11, 2021 7:26 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিধানসভা নির্বাচনের (Assembly Election 2021) আগে তৃণমূলে লেগেছে ভাঙন। দল ছেড়েছেন অনেকেই। শুভেন্দু অধিকারী-সহ একাধিক নেতা-কর্মী যোগ দিয়েছেন গেরুয়া শিবিরে। নানা জনসভা থেকে বারবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। নাম না করে ‘ভাইপো’ বলে কটাক্ষ করেছেন। সেই ইস্যুতে ইতিমধ্যেই আইনের দ্বারস্থ হয়েছে ডায়মন্ড হারবারের তৃণমূল সাংসদ। তা সত্ত্বেও অভিষেককে চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করতে ছাড়লেন না শোভন চট্টোপাধ্যায়। অভিষেককে নাম না করে ‘সোনার গোপাল’ বলে কটাক্ষ করেন। তার জন্য চলতি বছরের বিধানসভা নির্বাচনে তৃণমূলের ফলাফল খারাপ হবে বলেই দাবি তাঁর। বেশ কয়েক বছর পর রাজনীতিতে সক্রিয় শোভন চট্টোপাধ্যায় (Sovan Chatterjee)। বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে সোমবার গোলপার্ক থেকে মিছিলে অংশ নেন। মিছিল শেষের পর সভামঞ্চ থেকে এভাবেই সুর চড়ালেন শোভন।

মিছিলের পর জনসভার মঞ্চ থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য দুঃখপ্রকাশ করেন তিনি। শোভনবাবুর দাবি, “আমি যখন তৃণমূলে ছিলাম এমন ছিল না। তৃণমূলের (TMC) বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ উঠছে। আয়নার সামনে দাঁড়াক তৃণমূল। ওদের পায়ের নিচের মাটি সরে গিয়েছে।” মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলায় পঞ্চায়েত নির্বাচন হতে দেননি বলেও অভিযোগ শোভনের। ‘সোনার বাংলা’ গড়ার দাবিকে তুলে ধরেও মুখ্যমন্ত্রীকে বিঁধলেন। তাঁর দাবি,  সোনার বাংলা গড়ার জন্য প্রতিহিংসামূলক আচরণ করছেন মুখ্যমন্ত্রী।

[আরও পড়ুন: ‘স্বামীজি কারও একার নন, উনি সবার’, নাম না করে বিজেপিকে খোঁচা মমতার]

উল্লেখ্য, মিল্লি আল আমিন কলেজে অধ্যাপনা করার সময় বারবার হেনস্তার অভিযোগ করেন বৈশাখী (Baisakhi Banerjee)। অভিযোগ, সরকারকে জানানো সত্ত্বেও তা মেটেনি। পরে তাঁকেই ওই কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব দেয় সরকার। দু’জনেই বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর থেকে সমস্যা আরও বাড়ে।  অধ্যক্ষের পদে ইস্তফা দেন বৈশাখী। যদিও তা গৃহীত হয়েছে বলে তাঁকে জানানো হয়নি। এরপর মিল্লি আল আমিন থেকে রামমোহন কলেজে বদলি করা হয় তাঁকে। তবে সেই সিদ্ধান্ত মানতে পারেননি বৈশাখী। ‘বাধ্য হয়ে’ শিক্ষকতা ছাড়েন বৈশাখী। এই ইস্যুতেও আরও একবার সুর চড়ালেন শোভন। বৈশাখীর হেনস্তাকারী অভিযোগে ফিরহাদ হাকিমকে আক্রমণ করেন। ঠিক কী কারণে একাধিক পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হল বৈশাখীকে। তার সম্ভাব্য কারণও উল্লেখ করেন শোভন। তাঁর কথায়, ” আমার যন্ত্রণা, দুঃখ হয়। আমার পাশে দাঁড়ানোর জন্য সমস্ত পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে বৈশাখীকে।” এই ইস্যুতে শোভনের পাশাপাশি বৈশাখীও ফিরহাদকে কটাক্ষ করেন।

 [আরও পড়ুন: ভিড় মেট্রোয় বধূর শ্লীলতাহানির অভিযোগ, কবি নজরুল স্টেশনে তুমুল চাঞ্চল্য]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement