BREAKING NEWS

১১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  সোমবার ২৮ নভেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দিনশেষে বোধোদয়! ২২ ঘণ্টা পর কলেজ স্ট্রিটের অবরোধ তুললেন প্রেসিডেন্সির পড়ুয়ারা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: March 6, 2020 7:13 pm|    Updated: March 6, 2020 7:13 pm

Students of Presidency clear College street after 22 hours

দীপঙ্কর মণ্ডল: টানা ২২ ঘণ্টা পর অবরোধমুক্ত হল কলেজ স্ট্রিট। মানবিকতার খাতিরে অবস্থান বিক্ষোভের রাস্তা থেকে সরে এলেন বলে দাবি করলেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্দোলনরত পড়ুয়ারা। ফলে বিকেলের পর ওই চত্বরের যান চলাচল স্বাভাবিক হয়। যদিও পড়ুয়ারা জানিয়েছেন যে তাঁরা আন্দোলন থেকে সরবেন না। দাবিপূরণ না হওয়া পর্যন্ত তা চালিয়েই যাবেন।

presidency-rally

হিন্দু হস্টেল সংস্কারের দাবিতে বৃহস্পতিবার সন্ধে থেকে কলেজ স্ট্রিটের রাস্তা অবরোধ করে আন্দোলনে নামেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল পড়ুয়া। হস্টেলের ৩, ৪ এবং ৫ নম্বর ওয়ার্ড খালি করার দাবি জানিয়েছিলেন পড়ুয়ারা। এছাড়া হিন্দু হস্টেলের মেস স্টাফের সংখ্যা বাড়ানো, যৌন হেনস্তায় অভিযুক্ত অ্যাসিস্ট্যান্ট সুপারকে পদ থেকে অপসারণ-সহ একাধিক দাবি ছিল তাঁদের। সেসব দাবি নিয়েই অবরোধে বসেছিলেন তাঁরা। শুক্রবার সকালেও প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের পথ অবরোধকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত কলেজ স্ট্রিট চত্বর। বৃহস্পতিবার বিকেল পাঁচটা থেকে একটানা সাড়ে ২২ ঘণ্টা ধরে কলেজ স্ট্রিটে অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখান পড়ুয়ারা। তার জেরে শুক্রবার সকাল থেকেই ওই চত্বরে তীব্র যানজট তৈরি হয়। ভোরের দিকে গাড়ির গতিপথ বদল করে পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করে কলকাতা পুলিশ। তবে তাতে বিশেষ লাভ হয়নি।

[আরও পড়ুন: নারী দিবসের উপহার, উত্তরবঙ্গের প্রথম মহিলা পরিচালিত ডাকঘর চালু রায়গঞ্জে]

বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে সমস্যা যে বাড়বে, তা বোঝাই গিয়েছিল। হলও তাই। সাধারণ পথচলতি মানুষজন সঠিক সময়ে গন্তব্যে পৌঁছতে না পেরে মেজাজ হারান। বেশ কয়েকজন মানুষ প্রতিবাদে সুর চড়ান। তাঁদের বক্তব্য, হিন্দু হস্টেল সংক্রান্ত যাবতীয় সমস্যা একেবারেই প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ বিষয়। সাধারণ মানুষের তা নিয়ে মাথাব্যথা নেই। তাই ছাত্রছাত্রীরা নিজেদের সমস্যা বিশ্ববিদ্যালয়ে চত্বরে মিটিয়ে নিক। কোনওভাবেই রাস্তা অবরোধের মাধ্যমে দাবিপূরণের চেষ্টা করা উচিত নয়। উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়াও কড়া বার্তা দিয়েছিলেন যে এভাবে রাস্তায় বসে আন্দোলন করলেই দাবি পূরণ হওয়ার নয়। যথাযথ সময়েই কাজ হবে।

[আরও পড়ুন: জনমতের ভিত্তিতে তৈরি হবে ইস্তাহার, পুরভোটে নয়া স্ট্র্যাটেজি পুরুলিয়া বিজেপির]

তাঁর সেই বার্তা উপেক্ষা করেই চলতে থাকে অবরোধ। তা হঠাতে গেলে পথচলতিদের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়েন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় বিশাল পুলিশবাহিনী। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, পুলিশ জোর করে অবরোধ তোলার চেষ্টা করে। এমনকী ছাত্রীদের গায়েও হাত দেওয়া হয় বলেও অভিযোগ। তবে দিনের শেষে সাধারণ মানুষের অসুবিধার কথা বুঝে অবরোধ তুলে নেন পড়ুয়ারা। স্বস্তি ফেরে ব্যস্ততম কলেজ স্ট্রিটে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে