২০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  বুধবার ৭ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বন্ধ থাকবে ইন্টারনেট, ১৪৪ ধারা জারি করে টেট পরীক্ষার সিদ্ধান্ত পর্ষদের!

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: November 22, 2022 8:59 pm|    Updated: November 22, 2022 9:06 pm

TET 2022 : West Bengal Board of Primary Education may issue a guideline for tet | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী।

দিপালী সেন: নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে তোলপাড় গোটা বাংলা। এসবের মাঝে আগামী ১১ ডিসেম্বর চলতি বছরের টেট পরীক্ষা হতে চলেছে রাজ্যে। পরীক্ষা একশো শতাংশ স্বচ্ছভাবে করতে বদ্ধ পরিকর প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। সূত্রের খবর, পরীক্ষা কেন্দ্র সংলগ্ন এলাকায় জারি করা হতে পারে ১৪৪ ধারা। বন্ধ  রাখা হবে ইন্টারনেট পরিষেবাও।

কিছুদিন আগেই প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের সভাপতি পদ থেকে সরানো হয় নিয়োগ দুর্নীতিতে জড়িত সন্দেহে ধৃত মানিক ভট্টাচার্যকে। তাঁর জায়গায় দায়িত্ব দেওয়া হয় গৌতম পালকে। দায়িত্ব নেওয়ার পরই তিনি আশ্বাস দিয়েছিলেন যে, প্রতিবছর হবে টেট পরীক্ষা। স্বচ্ছ নিয়োগ হবে। কথা রেখেছেন তিনি। দায়িত্ব নেওয়ার কিছুদিনের মধ্যেই চলতি বছর অর্থাৎ ২০২২ সালের টেটের দিনক্ষণ ঘোষণা করেছেন। আগামী ১১ ডিসেম্বর হবে টেট। বেলা ১২টা থেকে দুপুর আড়াইটে পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে চলবে পরীক্ষা।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে লালবাতি-নীলবাতির এত ব্যবহার! বৈধ কি? হাই কোর্টের প্রশ্নের মুখে প্রশাসন]

চলতি বছরের মসৃণভাবে টেট পরীক্ষা নেওয়াই এখন চ্যালেঞ্জ। তাই সবদিক থেকে আঁটোসাঁটো ব্যবস্থা নিচ্ছে পর্ষদ। শোনা যাচ্ছে, যে যে জায়গায় পরীক্ষা কেন্দ্র থাকবে, সেখানে জারি করা হবে ১৪৪ ধারা। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকের মতো করে নির্দিষ্ট এলাকায় বন্ধ রাখা হবে ইন্টারনেট পরিষেবা, এমনকী জেরক্সের দোকানও। লাউড স্পিকার ব্যবহারে জারি করা হবে নিষেধাজ্ঞা। কোনও ইলেকট্রনিক গেজেট নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করতে পারবেন না পরীক্ষার্থীরা। কেন্দ্রে পর্যাপ্ত পরিমানে পুলিশ মোতায়েন করা হবে। খাতা সংরক্ষণের ক্ষেত্রেও বিশেষ যত্ন নেওয়া হবে। শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতি নিয়ে চাপানউতোরের মাঝে স্বচ্ছতার সঙ্গে পরীক্ষা ও নিয়োগই লক্ষ্য পর্ষদ সভাপতি গৌতম পালের।

উল্লেখ্য, আগের বিজ্ঞপ্তিতেই পর্ষদ জানিয়ে দিয়েছে, টেট (TET) উত্তীর্ণ হওয়া মানেই চাকরির অধিকার অর্জন করা নয়। সেই সম্পর্কে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে গাইডলাইনে। বলা হয়েছে, টেটে উত্তীর্ণ হলেই কোনও প্রার্থীর নিয়োগ পাওয়ার অধিকার জন্মাবে না। এটা নিয়োগের যোগ্যতামানগুলির মধ্যে একটি।

[আরও পড়ুন: SFI-এর সভায় ‘বাধা’, TMCP সমর্থকদের সঙ্গে তুমুল বচসা-হাতাহাতি, উত্তাল কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে