BREAKING NEWS

১৬ মাঘ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ 

READ IN APP

Advertisement

প্রাথমিক টেটে বসার যোগ্যতামানে ফের ছাড়ের ঘোষণা, নয়া বিজ্ঞপ্তি পর্ষদের

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: November 3, 2022 8:57 am|    Updated: November 3, 2022 8:57 am

WBBPE makes changes in Primary TET eligibility criteria | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রাথমিক টেটে বসার যোগ্যতামানে ফের বদল আনল পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ (West Bengal Board of Primary Education)। ২০১০ সালে ২৩ আগস্টের আগে স্নাতক এবং বিএড করা প্রার্থীদের টেটে অংশগ্রহণের ক্ষেত্রে যোগ্যতায় বিশেষ ছাড় ঘোষণা করা হল। নয়া বিজ্ঞপ্তি দিয়ে পর্ষদের তরফে জানিয়ে দেওয়া হল, টেটে বসার জন্য এই পরীক্ষার্থীদের স্নাতকে ৫০ শতাংশ নম্বরের প্রয়োজন নেই।

বুধবার পর্ষদের তরফে জারি বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২০১০ সালের ২৩ আগস্টের আগে ব্যাচেলর ইন এডুকেশন (B Ed) এবং স্নাতক করেছেন, এরকম জেনারেল প্রার্থীরা স্নাতকে ৪৫ শতাংশ নম্বর পেলে এবং সংরক্ষিত ক্যাটাগরির প্রার্থীরা ৪০ শতাংশ নম্বর পেলেই ২০২২ সালের টেটে অংশগ্রহণ করতে পারবেন। অবশ্যই এর সঙ্গে টেটে অংশগ্রহণের অন্য যোগ্যতাগুলি পূরণ করতে হবে সংশ্লিষ্ট প্রার্থীকে। অর্থাৎ টেটে বসার জন্য প্রাথমিক স্তরে ৫০ শতাংশ নম্বরের প্রয়োজন হবে না। এই নিয়ে তৃতীয়বার টেট পরীক্ষার্থীদের যোগ্যতামানে পরিবর্তন করা হল।

[আরও পড়ুন: ‘রক্ত-খুন-বন্দুক দিয়ে পঞ্চায়েত ভোট চায়’, তৃণমূলকে তীব্র আক্রমণ লকেটের, পালটা দিলেন কুণাল]

চলতি বছর ১১ ডিসেম্বর রাজ্যজুড়ে প্রাথমিক শিক্ষক (Primary Teacher) নিয়োগের যোগ্যতামান নির্ণায়ক টেট হতে চলেছে। বৃহস্পতিবার অনলাইন আবেদনের শেষদিন। তার আগেই বিজ্ঞপ্তি জারি করে এই যোগ্যতামান জানিয়ে দিল পর্ষদ। অনলাইন আবেদনের পোর্টালে প্রয়োজনীয় সংশোধন করে দেওয়া হয়েছে বলেও জানানো হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। চলতি বছর ১১ ডিসেম্বর বেলা ১২টা থেকে দুপুর আড়াইটে পর্যন্ত রাজ্যজুড়ে অনুষ্ঠিত হবে প্রাথমিক টেট। পুজোর আগে ওই ঘোষণা করেছিলেন পর্ষদ চেয়ারম্যান গৌতম পাল। সেসময় তিনি জানিয়েছিলেন, ওই পরীক্ষার মাধ্যমে প্রাথমিকের ১১ হাজারেরও বেশি শূন্যপদে শিক্ষক-শিক্ষিকা নিয়োগ করা হবে। আড়াই ঘণ্টার পরীক্ষাটি মোট ১৫০ নম্বরে হবে।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে নভেম্বর বা ডিসেম্বরে অশান্তির আশঙ্কা, মন্ত্রিসভার বৈঠকে সতর্কবার্তা মুখ্যমন্ত্রীর]

তবে, আগের বিজ্ঞপ্তিতেই পর্ষদ জানিয়ে দিয়েছে, টেট (TET) উত্তীর্ণ হওয়া মানেই চাকরির অধিকার অর্জন করা নয়। সেই সম্পর্কে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে গাইডলাইনে। বলা হয়েছে, টেটে উত্তীর্ণ হলেই কোনও প্রার্থীর নিয়োগ পাওয়ার অধিকার জন্মাবে না। এটা নিয়োগের যোগ্যতামানগুলির মধ্যে একটি।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে