১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

শিশু চিকিৎসায় গাফিলতি, ধুন্ধুমার এসএসকেএমে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 23, 2016 4:06 pm|    Updated: June 23, 2016 4:06 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: রোগীর পরিবারের লোকজনের হাতে জুনিয়র ডাক্তারের প্রহৃত হওয়ার ঘটনায় উত্তাল এসএসকেএম হাসপাতাল৷ চলছে অঘোষিত কর্মবিরতি৷ ডিরেক্টরের দফতরে ধরনায় বসেছেন তাঁরা৷ ব্যাহত চিকিৎসা পরিষেবা৷ চিকিৎসককে পেটানোর ঘটনায় তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ৷ এদিকে জলপাইগুড়ির ধূপগুড়ি হাসপাতালেও রাত থেকে গন্ডগোল চলছে৷ এক শিশুমৃত্যুর অভিযোগে সেখানে রাতভর ঘেরাও-বিক্ষোভ চলে৷ সকালে অবশ্য পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়৷ বুধবার মধ্যরাতে উত্তর ২৪ পরগনার শাসনের গোলাঘাটা থেকে মোস্তাফিজুর রহমান (৬) নামে এক শিশুকে এসএসকেএমের জরুরি বিভাগে আনা হয়৷ চিকিৎসাও শুরু হয় তার৷

কিন্তু হাসপাতালে উপস্থিত তার পরিবারের লোকজনের অভিযোগ, ঠিকমতো চিকিৎসা হচ্ছে না৷ এই নিয়ে ওই সময় জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত জুনিয়র ডাক্তারদের সঙ্গে বচসা বাধে৷ পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে৷ অভিষেক সিং নামে এক চিকিৎসককে বেধড়ক পেটানো হয়৷ মেঝেতে ফেলে চলতে থাকে চড়, কিল, লাথি৷ গুরুতর জখম হন তিনি৷ এরই মধ্যে ৩০-৪০ জন ঢুকে পড়ে জরুরি বিভাগে৷ শুরু হয় তাণ্ডব৷ অন্য রোগীরা আতঙ্কিত হয়ে পড়েন৷ ভয়ে নার্সরা পালিয়ে যান ঘর ছেড়ে৷ অন্য চিকিৎসকরা চলে আসেন৷ আক্রান্ত হন তাঁরাও৷ এরই মধ্যে আক্রমণকারীদের চারজনকে ধরে আটক করে ফেলেন চিকিৎসক ও হাসপাতালের কর্মীরা৷ খবর দেওয়া হয় ভবানীপুর থানায়৷ চলে আসে পুলিশ৷ ধৃত চারজনকে তুলে দেওয়া হয় পুলিশের হাতে৷ পরিস্থিতি সামাল দিতে রাতেই আসেন হাসপাতালের সুপার মানস সরকার৷

কিন্তু হাসপাতালে তাঁদের কোনও নিরাপত্তা নেই, এই অভিযোগে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন চিকিৎসকরা৷ মূলত জুনিয়র ডাক্তাররা ক্ষোভে ফেটে পড়েন৷ দফায় দফায় আলোচনা চলে৷ তবে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়নি৷ আজ, বৃহস্পতিবার দুপুর পর্যন্ত কর্মবিরতি চলছে৷ ওই শিশুটিকে আনা হয়েছিল অস্থি-শল্য (অর্থোপেডিক) বিভাগে৷ সেখানকার চিকিৎসকরা সবচেয়ে বেশি ক্ষুব্ধ৷ ওই বিভাগেরই সবচেয়ে বেশি পরিষেবা ব্যাহত হচ্ছে৷ উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেও এসএসকেএমে একইভাবে চিকিৎসকরা আক্রান্ত হয়েছিলেন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement