Advertisement
Advertisement
Kolkata Metro

গঙ্গার তলা দিয়ে মেট্রো অথৈ জলে, প্রশ্নের মুখে যাত্রী নিরাপত্তা

সূত্রের খবর, মেট্রোর কাজের অগ্রগতি দেখে কার্যত বিরক্ত সিআরএস আধিকারিকরা।

Underground East West metro work delayed । Sangbad Pratidin

ফাইল চিত্র

Published by: Sayani Sen
  • Posted:December 23, 2023 9:25 am
  • Updated:December 23, 2023 9:31 am

নব্যেন্দু হাজরা: পরিকাঠামো তৈরির কাজ শেষ হয়নি। অথচ উদ্বোধনের ঢক্কানিনাদ শুরু হয়ে গিয়েছিল। মেট্রোর তরফে ঘোষণাও হয়ে গিয়েছিল যে, চলতি বছরের শেষেই গঙ্গার নিচ দিয়ে যাত্রী নিয়ে ছুটবে মেট্রো। এক নয়, একাধিকবার এই ঘোষণা হয়েছিল। কিন্তু কোথায় কী! ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর হাওড়া ময়দান থেকে ধর্মতলা পর্যন্ত অংশ পরিদর্শন শেষ না করেই ফিরে গেলেন কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটির (সিআরএস) আধিকারিকরা। কাজের এমন অবস্থা, যে, খোঁজ নিয়ে পরিদর্শনে এলেন না চিফ কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটিও। ফলে আপাতত বিশ বাঁও জলে গঙ্গার নিচে মেট্রোর যাত্রী পরিষেবা শুরুর সম্ভাবনা।

গত শুক্রবার এই অংশের কাজের অগ্রগতি ও যাত্রী নিরাপত্তা সংক্রান্ত বিষয় খতিয়ে দেখতে আসেন কমিশনার অফ মেট্রো রেলওয়ে সেফটির আধিকারিকরা। সূত্রের দাবি, কাজের অগ্রগতি দেখে কার্যত বিরক্ত সিআরএস আধিকারিকরা এখন তাঁদের পরিদর্শনে ডাকার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। সেই সঙ্গে পরিদর্শনে নেমেই প্রায় ২০টি প্রশ্ন তোলেন তাঁরা। আপৎকালীন পরিস্থিতিতে যাত্রীদের বের করার জন‌্য ধর্মতলা স্টেশনে কোনও এভাকুয়েশন শ‌্যাফট নেই কেন! এই প্রশ্ন তোলেন। পরিকাঠামোর এতটাই বেহাল দশা যে, বুধ ও বৃহস্পতিবার আসার কথা থাকলেও এলেন না চিফ কমিশনার অফ রেলওয়ে সেফটি জনক কুমার গর্গ। ফিরে যায় বাকি টিমও। পরিকাঠামোর কাজ সম্পন্ন করে ফের তাঁদের পরিদর্শনের জন‌্য ডাকতে নির্দেশ দিয়েছেন সিআরএসের আধিকারিকরা।

Advertisement

[আরও পড়ুন: নিয়োগ জট কাটার ইঙ্গিত, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকের পর ‘সন্তুষ্ট’ SLST চাকরিপ্রার্থীরা]

এর পাশাপাশি হাওড়া ময়দান থেকে সল্টলেক পর্যন্ত ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর একমাত্র ডিপো তৈরি হয়েছে করুণাময়ীতে। জমি না মেলায় হাওড়া ময়দান বা সংলগ্ন এলাকায় কোনও ডিপো তৈরি করা যায়নি। রক্ষণাবেক্ষণ বা আপৎকালীন পরিস্থিতিতে বউবাজারের উপর দিয়ে নিয়ে যেতে হবে মেট্রোর রেক। কিন্তু বউবাজার দিয়ে রেক নিয়ে যাওয়ার কোনও পরিকাঠামোই নেই। পরিদর্শনের সময় এনিয়ে প্রশ্ন তোলেন সিআরএসের লোকজন। পরিস্থিতি যা, তাতে আগামী লোকসভা ভোটের আগে এই মেট্রো চালু করাটাই এখন বড় চ‌্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াল। সূত্রের খবর, বিষয়টি নিয়ে ইতিমধ্যেই কেএমআরসিএল, মেট্রো পরস্পর পরস্পরের দিকে দায় চাপানো শুরু করেছে।

Advertisement

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আসার খবরে মনে করা হয়েছিল, নিউ গড়িয়া-রুবি প্রকল্প চালু হয়ে যাবে বড়দিনের আগেই। সেই মতো শুরু হয়েছিল গতি উঁচিয়ে ট্রায়াল রান। প্রস্তুতিও শুরু হয়ে গিয়েছিল। উদ্বোধনের। কিন্তু আয়োজনই সার। প্রধানমন্ত্রী না আসায় এবারও এই মেট্রো উদ্বোধন হল না। প্রায় এক বছর হয়ে গেল বাইপাসের এই মেট্রোর রেলওয়ে সেফটি কমিশনারের ছাড়পত্র মিলে গিয়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী বা রেলমন্ত্রীর সময় না হওয়ায় তা উদ্বোধন হচ্ছে না। মেট্রো রেলের মুখ‌্য জনসংযোগ আধিকারিক কৌশিক মিত্র বলেন, ‘‘আমরা তো কোনও নির্দিষ্ট দিনের কথা জানাইনি কবে উদ্বোধন হবে, ঠিক সময়মতো যাত্রী পরিষেবা শুরু হয়ে যাবে।’’

[আরও পড়ুন: নয়া প্রজাতির আতঙ্কের মধ্যেই রাজ্যে ফের করোনার থাবা, আক্রান্ত শিশু-সহ ৩]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ