BREAKING NEWS

৪ কার্তিক  ১৪২৮  শুক্রবার ২২ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

Durga Puja 2021: আমিষ নাকি নিরামিষ? পুজোর মেনু নিয়েও দ্বিধাবিভক্ত বিজেপি শিবির

Published by: Paramita Paul |    Posted: October 6, 2021 3:44 pm|    Updated: October 6, 2021 3:45 pm

Veg or non-veg? Fissures in BJP over Durga Puja menu | Sangbad Pratidin

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: আমিষ নাকি নিরামিষ? বিজেপির দুর্গাপুজোয় তিনদিনের খাওয়া-দাওয়া শুধুই খিচুড়ি আর বেগুনভাজা, না কি সপ্তমী আর নবমীর মেনুতে থাকবে মাছ-খাসির মাংসও! এটা নিয়েই আপাতত দ্বিধাবিভক্ত বঙ্গ বিজেপির (BJP) পুজোর উদ্যোক্তারা।

একে তো পুজো (Durga Puja 2021) হবে কি না তা নিয়ে মতান্তর ছিলই। দলের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ পুজো নিয়ে ততটা আগ্রহী নন। নয়া রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার পুজোর পক্ষেই। তাই রাজ্য সভাপতির অমত না থাকায় গতবারের থেকে আয়োজনে কাটছাঁট করেও পুজো হচ্ছে সল্টলেক ইজেডসিসিতে। দলের মধ্যে মতান্তরের মধ্যেই শেষমেশ গেরুয়া শিবির পুজোর প্রস্তুতি শুরুও করে দিয়েছে। আর অনুমতি যখন মিলেছেই তখন নমো-নমো করে তো আর পুজো করা যায় না। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হবে ইজেডসিসি চত্বরে। আর সপ্তমী থেকে নবমীতে পেটপুজোও বাদ থাকে কেন? দুর্গাপুজোর প্রস্তুতি নিয়ে গত রবিবারই বিজেপির রাজ্য দপ্তরে বৈঠক হয়েছে।

[আরও পড়ুন: Durga Puja 2021: নামাবলি গায়ে মণ্ডপে বসে প্রথমবার চণ্ডীপাঠ করলেন মদন মিত্র, দেখুন ভিডিও]

পুজোর প্রধান উদ্যোক্তার মধ্যে রয়েছেন দলের অন্যতম দুই রাজ্য সম্পাদক সব্যসাচী দত্ত ও সংঘমিত্রা চৌধুরি। সমস্ত আয়োজনের দায়িত্বে দলের মহিলা মোর্চা ও সাংস্কৃতিক সেল। গত বছর ইজেডসিসির পুজোর সংকল্প করেছিলেন রাজ্য সহ-সভাপতি প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়। নিয়ম অনুযায়ী একবার সংকল্প করলে তিনবার পুজো করতেই হয়। তাই এবারও দলের তরফে প্রতাপবাবুই প্রধান দায়িত্বে এই পুজোর আয়োজনের। প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্য, “বিজেপি পার্টি নয়। দলের কার্যকর্তা ও শুভানুধ্যায়ীরাই এই পুজো করছে। পুজোর তিনদিন দুপুরের মেনুতে খিচুড়ি আর বেগুনভাজা করার ভাবনাচিন্তা চলছে। অনেকে আবার বলছেন সাধারণ নিয়মে মাছ-খাসির মাংসও থাকুক মেনুতে।” বিজেপি দলের বিভিন্ন বৈঠকে খাওয়ার মেনুতে সাধারণত নিরামিষ আয়োজন থাকে। তাই পুজোর ক’দিন আয়োজকদের একাংশ চাইছেন নিরামিষ খাবার হোক। তাতে খরচও কম হবে। আরেকদল অবশ্য চাইছে নিরামিষ-আমিষ দুই হোক। আর এই মেনু নিয়েই আপাতত দ্বিধাবিভক্ত গেরুয়া শিবির।

গত বছর করোনা আবহেও হাই কোর্টের সমস্ত নির্দেশ মেনেই সল্টলেকের ইজেডসিসিতে দুর্গাপুজোর আয়োজন করেছিলেন বিজেপি নেতা-কর্মীরা। একেবারে বাঙালি বেশে ভার্চুয়ালি পুজোর উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। একুশের নির্বাচনকে সামনে রেখে গতবছর কলকাতায় দুর্গাপুজোর সেই আয়োজনকে বিজেপির ‘মাস্টারস্ট্রোক’ বলেই মনে করেছিলেন অনেকে। ষষ্ঠীর দিন দুর্গাপুজোর ভার্চুয়াল উদ্বোধন করতে পারেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। রাজ্য শাখার তরফে সেই অনুরোধ করা হয়েছে নাড্ডার কাছে। গতবছর কৈলাস বিজয়বর্গীয়, মুকুল রায়, সব্যসাচী দত্তরা পুজোর উদ্যোক্তাদের মধ্যে থাকলেও দিলীপ ঘোষ সেভাবে আগ্রহ দেখাননি।

[আরও পড়ুন: Mamata Banerjee: এই প্রথমবার পুজোর অ্যালবামের জন্য গান গাইছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়]

এবারও দিলীপ ঘোষ জানিয়ে দিয়েছিলেন পুজো করা পার্টির কাজ নয়। তবে নয়া রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদারের থেকে অনুমতি আদায় করে পুজোর আয়োজন শুরু করেছেন দলের একাংশ। পুজো নিয়ে যে নিজের পুরনো অবস্থানেই দিলীপবাবু অনড় তা তিনি মঙ্গলবারও বুঝিয়ে দিয়েছেন। এদিন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ—সভাপতি বলেন, “আমি কোনও পুজোর বিপক্ষে নই। তবে পার্টির কাজ পুজো করা নয়। সকলে পুজো করে, অামরা অংশগ্রহণ করি। কিছু লোকজন গতবার পুজো করেছিলেন। এবারও করছেন। পারলে যাব।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement