BREAKING NEWS

৯ কার্তিক  ১৪২৮  বুধবার ২৭ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অভিযুক্ত কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের আর মোতায়েন নয়, নয়া দাবিতে কমিশনে তৃণমূল

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 2, 2021 2:35 pm|    Updated: April 2, 2021 3:18 pm

WB assembly polls: Trinamool Congress urges EC not to deploy 'tainted' CAPF jawans at polling booths | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দ্বিতীয় দফার ভোটের দিন নন্দীগ্রামের (Nandigram) বয়ালে দাঁড়িয়েই কেন্দ্রীয় বাহিনী এবং নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। দাবি করেছিলেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর নির্দেশে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা বাংলার নির্বাচনকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছেন। মমতার করা সেই অভিযোগই এবার সরকারিভাবে নির্বাচন কমিশনকে জানিয়ে এল তৃণমূল কংগ্রেস (TMC)। তাঁদের দাবি, কেন্দ্রীয় বাহিনীর যে জওয়ানদের বিরুদ্ধে ভোটকে প্রভাবিত করার অভিযোগ উঠেছে, তাঁদের যেন আগামী দিনে আর ভোটের কাজে মোতায়েন করা না হয়।

শুক্রবার দুপুর দেড়টা নাগাদ তৃণমূলের এক শীর্ষস্তরীয় প্রতিনিধিদল রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দপ্তরে যায়। প্রতিনিধি দলে ছিলেন রাজ্যের বিদায়ী পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, তৃণমূলের শীর্ষনেতা যশবন্ত সিনহা, সাংসদ দোলা সেন, বিদায়ী বিধায়ক তথা তৃণমূল প্রার্থী নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের শাসকদলের তরফে দ্বিতীয় দফার ভোট নিয়ে মোট ৩০০টিরও বেশি অভিযোগ কমিশনে জানানো হয়েছে। যার মধ্যে উল্লেখ রয়েছে বৃহস্পতিবার নন্দীগ্রামের বয়ালের ঘটনাও। তৃণমূলের অভিযোগ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহর (Amit Shah) নির্দেশে কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানরা বিজেপিকে সুবিধা পাইয়ে দিচ্ছেন। বহু জায়গা থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে ভোটকে প্রভাবিত করার অভিযোগ আসছে। আমি এর আগে কোনওদিন এভাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে ভোট হতে দেখিনি। শুধু তাই নয়, বেশ কিছু বুথে ইভিএম বিকল হওয়ার যে খবর পাওয়া যাচ্ছে, তা নিয়েও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে শাসক শিবির।

[আরও পড়ুন: ‘কেন্দ্রীয় বাহিনী ভয় দেখালে সব জাতি মিলে প্রতিরোধ করুন’, দিনহাটায় বার্তা মমতার]

বিদায়ী পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলছেন, “৩০০টি নির্দিষ্ট অভিযোগ আমরা জমা দিয়েছি। এই প্রথম ভারতবর্ষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে কেন্দ্রীয় বাহিনী বিজেপিকে (BJP) সহযোগিতা করছে। যেখানে বিজেপি জোর করে ভোট করার চেষ্টা করছে, সেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনী নীরব। আমাদের দাবি, যেসব কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানের বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে তাঁদের যেন পরবর্তীকালে ভোটের কাজে মোতায়েন করা না হয়।” সুব্রতর (Subrata Mukherjee) দাবি,”কমিশন যেন উপযুক্ত দায়িত্ব পালন করে। সঠিক তথ্যের ভিত্তিতে অভিযোগ জানিয়েছি। আশা করি সংবিধানিক দায়িত্ব পালন করবে নির্বাচন কমিশন। কারণ, রাজ্যে আরও একমাস বেশ কয়েক দফার গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচন বাকি আছে।”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement