Advertisement
Advertisement
NEET scam

‘মেডিক্যালের প্রবেশিকা ফেরানো হোক রাজ্যের হাতে’, NEET দুর্নীতি প্রকাশ্যে আসতেই সরব ব্রাত্য

২০১৯ সালের আগে পর্যন্ত বিভিন্ন রাজ্যের মেডিক্যাল কলেজে প্রবেশিকা পরীক্ষার দায়িত্ব থাকত সেই রাজ্যের জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ডের হাতেই।

WB Education minister Bratya Basu talks about NEET scam
Published by: Subhajit Mandal
  • Posted:June 15, 2024 6:56 pm
  • Updated:June 15, 2024 8:14 pm

দীপালি সেন: সর্বভারতীয় অভিন্ন মেডিক্যাল প্রবেশিকা বা নিট বাতিল করে আগের মতো রাজ্যস্তরের মেডিক্যাল প্রবেশিকা চালুর দাবি নতুন নয়। এতদিন এই দাবি উঠত দক্ষিণ ভারত থেকে। মূলত তামিলনাড়ু থেকে। এবার বাংলা থেকেও দাবি উঠল রাজ্যে জয়েন্টের মাধ্যমে মেডিক্যাল প্রবেশিকা ফেরানোর। নিটে ব্যাপক কেলেঙ্কারির অভিযোগ উঠতেই রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী রাজ্য ব্রাত্য বসু রাজ্য জয়েন্ট ফেরানোর দাবিতে সরব হলেন।

২০২৪ সালের নিট পরীক্ষায় বিস্তর অসঙ্গতির অভিযোগ তুলছেন পরীক্ষার্থীরা। এ বছর নিট (NEET) পরীক্ষায় প্রথম স্থান অধিকার করেছে ৬৭ জন। এর পর থেকে এই প্রবেশিকা পরীক্ষা নিয়ে উঠেছে বিস্তর অভিযোগ। পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁসের অভিযোগের পাশাপাশি অনেককে গ্রেস মার্কস দেওয়ারও অভিযোগ তোলেন পরীক্ষার্থীরা। এই ইস্যুতে সরব গোটা দেশ। নিটের বেনিয়ম প্রশ্ন তুলে দিচ্ছে ন্যাশনাল টেস্টিং এজেন্সির বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়েও। এ প্রসঙ্গে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর (Bratya Basu) বক্তব্য, কেন্দ্র হাজার হাজার পড়ুয়ার ভবিষ্যৎ নিয়ে ছিনিমিনি খেলছে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ফ্লোরিডায় ভারত-কানাডার প্রতিপক্ষ হতে পারে বৃষ্টি, বল কি আদৌ গড়াবে?]

শনিবার এক অনুষ্ঠানে গিয়ে ব্রাত্য বলেন, “এটা কেন্দ্রীয় সরকারের ব্যর্থতা। হাজার-হাজার পরীক্ষার্থীর ভবিষ্যত নিয়ে ছিনিমিনি খেলা হয়েছে। আমাদের রাজ্যের শিক্ষক দুর্নীতি নিয়ে অনেক আলোচনা হল। অনেক টক শো হল। তদন্ত হল। গ্রেপ্তারও হল। কিন্তু কেন্দ্রের এই নিটে যা হল গোটা ভারত দেখছে। তার জন্য কোনও তদন্ত হবে না? সিবিআই (CBI) ইডি মাঠে নামবে না? এই ব্যর্থতার পর আমার মনে হয় ওদেরই স্বতঃপ্রণোদিত ভাবে রাজ্যের হাতে ফিরিয়ে দেওয়া উচিত।”

Advertisement

[আরও পড়ুন: একটুর জন্য হল না অঘটন, দক্ষিণ আফ্রিকাকে কাঁপিয়ে দিয়েও হৃদয় ভাঙল নেপালের]

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের আগে পর্যন্ত বিভিন্ন রাজ্যের মেডিক্যাল কলেজে প্রবেশিকা পরীক্ষার দায়িত্ব থাকত সেই রাজ্যের জয়েন্ট এন্ট্রান্স বোর্ডের হাতেই। ২০১৯ সালে কেন্দ্রের মোদি (Narendra Modi) সরকার মেডিক্যালে অভিন্ন প্রবেশিকা চালু করে। দক্ষিণের রাজ্যগুলি তখন থেকেই এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ করে আসছে। এবার সুর চড়াল বাংলাও।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ