BREAKING NEWS

১৭ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৭  রবিবার ৩১ মে ২০২০ 

Advertisement

প্রধানমন্ত্রী ও মুখ্যমন্ত্রীর পাশে রাজ্যপাল, করোনা মোকাবিলায় তহবিলে দান ১৫ লক্ষ টাকা

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 3, 2020 8:56 pm|    Updated: April 3, 2020 8:56 pm

An Images

দীপঙ্কর মণ্ডল: করোনা মোকাবিলায় রাজনীতি দূরে সরিয়ে রেখে এগিয়ে আসার ডাক আগেই দিয়েছিলেন। মারণ ভাইরাসকে প্রতিহত করতে এবার রাজ্য এবং কেন্দ্র সরকারের পাশে দাঁড়ালেন বাংলার রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ত্রাণ তহবিলে দশ লক্ষ এবং প্রধানমন্ত্রীর তহবিলে পাঁচ লক্ষ টাকা সাহায্য করলেন তিনি। 

করোনা পরিস্থিতি সামাল দিতে কোমর বেঁধে লড়াই করছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)।  সাধারণ মানুষের কথা ভেবে পৃথক দুটি তহবিল তৈরি করেছেন প্রধানমন্ত্রী এবং মু্খ্যমন্ত্রী। এবার প্রধানমন্ত্রী এবং মুখ্যমন্ত্রীর পাশে দাঁড়ালেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়।  শুক্রবার রাজভবনের তরফে একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়। ওই বিজ্ঞপ্তিতেই জানানো হয়েছে, “প্রধানমন্ত্রীর তৈরি তহবিল পিএম কেয়ারসে (PM-CARES) পাঁচ লক্ষ টাকা সাহায্য করবেন রাজ্যপাল। এছাড়াও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৈরি ওয়েস্ট বেঙ্গল স্টেট এমার্জেন্সি ফান্ডে (West Bengal State Emergency Fund) দশ লক্ষ টাকা দেবেন।” সাধারণ মানুষকে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার আবেদনও জানিয়েছেন রাজ্যপাল। করোনা মোকাবিলায় সকলকে এগিয়ে এসে রাজ্যের তহবিলে সাহায্য করার অনুরোধ করেছেন তিনি। 

[আরও পড়ুন: কঠিন সময়ে রাজ্যের পাশে ক্লাবগুলি, মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলে বড় সাহায্য সুরুচি সংঘের]

দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকে রাজ্য সরকারের সঙ্গে বারবার সংঘাতে জড়িয়েছেন ধনকড় (Jagdeep Dhankar)। একাধিকবার প্রশাসনিক আধিকারিকদের ব্যবহারে ‘অপমানিত’ হয়েছেন। চড়িয়েছেন সমালোচনার সুর। তবে করোনা পরিস্থিতিতে বারবার রাজনীতি ভুলে কাজ করার আবেদন জানিয়েছেন রাজ্যপাল। করোনা মোকাবিলায় রাজ্য এবং কেন্দ্র সরকারের পদক্ষেপের ভূয়সী প্রশংসাও করেন তিনি। টুইটে জানিয়েছিলেন, “রাজ্য এবং কেন্দ্র যেভাবে করোনা মোকাবিলায় বিভিন্ন পদক্ষেপ নিচ্ছে তা সত্যিই প্রশংসনীয়। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উদাহরণ তৈরি করেছেন। রাজ্যকে ১০ হাজার করোনা পরীক্ষার সামগ্রী পাঠিয়েছে কেন্দ্র। রাজনীতির উর্ধ্বে থেকে কঠিন সময়ে লড়াই করতে হবে”       

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement