BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বিজেপি সাংসদদের কাজে বাধার অভিযোগ উড়িয়ে রাজ্যের জবাবি চিঠি, বিস্মিত রাজ্যপাল

Published by: Sayani Sen |    Posted: April 19, 2020 10:26 am|    Updated: April 19, 2020 10:42 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সময় যত গড়াচ্ছে রেশন দুর্নীতি এবং ত্রাণ বণ্টন নিয়ে রাজ্য এবং রাজ্যপালের তরজার ঝাঁজও বাড়ছে। শনিবারই রেশন নিয়ে দুর্নীতি হচ্ছে বলে সুর চড়ান রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankar)। কড়া ভাষায় টুইট করেন তিনি। নবান্নের তরফে তার পালটা জবাবও দেওয়া হয়। রেশন কেলেঙ্কারি ঘটেনি বলে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়। রাত গড়াতে না গড়াতেই আবারও নবান্নের ভূমিকার কড়া নিন্দা করে টুইট করলেন ‘বিস্মিত’ রাজ্যপাল।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় রবিবার টুইটে লেখেন, “বিজেপি সাংসদদের কাজে বাধা দেওয়া হচ্ছে। একজন ১০০০ মানুষকে খাবার বিলি করতে পারেন। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে অন্যরা কিছুই করতে পারেন না। আমি বিস্মিত। এই দেখনদারি আচরণ মোটেও কাম্য নয়। এসব মেনে নেওয়া যেতে পারে না। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) কাছে আবেদন আচরণে বদল আনুন। সাংসদ সুভাষ সরকার, অর্জুন সিং, জন বার্লা, রাজু বিস্তের অভিযোগ যথেষ্ট যুক্তিপূর্ণ। সত্যিই তাঁদের কাজে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এ অভিযোগ উড়িয়ে দেওয়ার মতো নয়।”

[আরও পড়ুন: ‘করোনায় মৃতদের লাশ গায়েব করছে রাজ্য’, ফের বিস্ফোরক দিলীপ ঘোষ]

প্রথম পর্যায়ের লকডাউনের শুরু থেকেই রাস্তায় নেমে করোনা প্রতিরোধে নানা কাজ করে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কখনও আচমকা পরিদর্শনে গিয়েছেন হাসপাতালে তো কখনও বাজারে, আবার কখনও সামনে দাঁড়িয়ে ত্রাণ বণ্টন দেখভাল করেছেন। তা নিয়ে বারবারই সুর চড়িয়েছেন বিজেপি নেতারা। মুখ্যমন্ত্রী রাস্তায় বেরিয়ে সামাজিক দূরত্ব তৈরির পরিবর্তে জমায়েত বাড়াচ্ছেন বলে অভিযোগ করেছেন তাঁরা। অথচ তাঁদের দাবি, বিজেপি সাংসদদের ত্রাণ বিলি করতে বাধা দিচ্ছে রাজ্যপাল। ত্রাণ বণ্টন নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে বলে বারবার সুর চড়িয়েছে গেরুয়া শিবির। করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা এবং রেশন ব্যবস্থা নিয়ে সমালোচনা করে টুইট করেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। রেশনিং ব্যবস্থায় দুর্নীতির অভিযোগ তুলে রাজ্যপালের সচিব সতীশ তিওয়ারি মুখ্যসচিবকে বার্তাও পাঠান। ব্যাখ্যা তলব করা হয়। নবান্নের তরফে পালটা জবাবও দেওয়া হয়। বিরোধীদের তোলা অভিযোগ সম্পূর্ণ খণ্ডন করে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয় গরিবদের ত্রাণ বণ্টন কিংবা রেশনের ক্ষেত্রে কোনও দুর্নীতি করা হচ্ছে না। সেই জবাবেই সন্তুষ্ট নন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়। বিস্মিত হয়ে ফের পালটা টুইট করেন তিনি।

[আরও পড়ুন: মাস্ক পরতে রাজি না হওয়ায় ছেলেকে খুন, থানায় আত্মসমর্পণ বাবার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement