BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পথ দেখালেন মোদিই, আন্তর্জাতিক যোগ দিবসে সস্ত্রীক সূর্যপ্রণাম করবেন রাজ্যপাল

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: June 20, 2020 9:55 pm|    Updated: June 20, 2020 10:40 pm

An Images

ফাইল ছবি।

গৌতম ব্রহ্ম: যোগা দিবসের সিলেবাসে নেই ঠিকই। তবুও যোগা দিবসেই মোদিজির প্রিয় সূর্যপ্রণাম রাজভবনের মেনুতে! রবিবার রাজভবনে সস্ত্রীক সূর্যপ্রণাম করবেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড় (Jagdeep Dhankhar)। করোনাভীতি কাটিয়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পরামর্শ দেবেন আমজনতাকে। এখানেই শেষ নয়, যুদ্ধভয় কাটাতে রাজভবন মুখরিত হতে পারে শঙ্খধ্বনিতে। কারণ, ফুসফুসের কর্মক্ষমতা বাড়াতে শঙ্খবাদন যে ‘স্পাইরোমিটার’-এর কাজ করে!

করোনাপর্বের জন্য এবছর যোগ দিবস উপলক্ষে ধর্মতলায় প্রকাশ্যে কোনও অনুষ্ঠান হচ্ছে না। রাজভবনে ছোট পরিসরে পালিত হবে ‘আন্তর্জাতিক যোগ দিবস’। আয়োজক ‘ক্রীড়া ভারতী’। রাজ্যপাল ও রাজভবনের কর্মীদের একাংশ অংশ নেবেন তাতে। অনুষ্ঠানটির সরাসরি সম্প্রচার সাড়ে তিন লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানের তত্ত্বাবধানে যোগ বিশারদ ডা. অভিজিৎ ঘোষ। তিনি জানান, একদিকে করোনাভীতি, অন্যদিকে যুদ্ধ পরিস্থিতি। মনকে চাঙ্গা রাখা খুব জরুরি। তাই সিলেবাসের বাইরে গিয়েই সূর্যনমস্কার করানোর পরিকল্পনা। এর আগে একাধিকবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi) সূর্যনমস্কারের উপকারিতার উল্লেখ করেছেন। নিজের ভিডিও পোস্ট করেছেন টুইটারে। কিছুদিন আগে রাহুল গান্ধীর সঙ্গে বাকযুদ্ধেও সূর্যপ্রনামের প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন প্রধানমন্ত্রী। বলেছেন, ‘সূর্যপ্রনামে পিঠ শক্ত হয়।’ প্রধানমন্ত্রীর ভাইরাল হওয়া সেই বক্তব্য রাতারাতি সূর্যপ্রনাম নিয়ে আম জনতার আগ্রহ বাড়িয়ে দেয়। বিতর্কিত সেই যৌগিকমুদ্রা এবার রাজভবনে।

[আরও পড়ুন: করোনাতঙ্কে ছুঁয়েও দেখল না কেউ, রাস্তায় পড়ে কাতরালেন দুর্ঘটনায় জখম ব্যক্তি]

প্রোটোকল মেনে অন্য যৌগিক পদ্ধতিও থাকছে। অর্ধকুর্মাসন, তির্যক টাডাসন, ভুজঙ্গাসন, অর্ধশলভাসন, অনুলোম–বিলোম, কপালভাতি, ভ্রামরি। সবেতেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। আর সূর্যপ্রনামের মধ্যেই তো রয়েছে চোদ্দো আসন, জানালেন অভিজিৎবাবু। সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংয়ের জন্য একসঙ্গে বেশি লোক জড়ো করার উপায় নেই। তাই অভিজিৎবাবু নিজের ইনস্টিটিউটের কয়েকজন প্রশিক্ষককে নিয়েই রাজভবনে আসবেন এদিন। সকাল সাতটা থেকে আটটা পর্যন্ত হবে অনুষ্ঠান। ভাষণ দেবেন রাজ্যপাল। ইতিমধ্যেই যোগগুরু রামদেব রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর জন্য সূর্যনমস্কার-সহ পাঁচটি ‘সুপার যোগা’ করার পরামর্শ দিয়েছেন। দেশের বেশ কয়েকটি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে আয়ুশ প্রোটোকল মেনে নিয়মিত যোগ করানো হচ্ছে। ওষুধ না খেয়ে কয়েকজন কোভিড পজিটিভ রোগী যোগের দৌলতে দ্রুত সুস্থও হয়েছেন বলে দাবিও করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: হাওড়ার চিতনানে ভাঙল রূপনারায়ণ নদের রিং বাঁধের একাংশ, আতঙ্কে স্থানীয়রা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement