১ আশ্বিন  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সরকারি কর্মচারী ও সরকারি স্কুল-কলেজের ছাত্রছাত্রীদের জন্য সুখবর। সরস্বতী পুজো উপলক্ষে সোমবার ছুটি ঘোষণা করল রাজ্য সরকার। অর্থাৎ টানা তিনদিন ছুটি পেয়ে গেলেন সমস্ত সরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা।

শনিবার নাকি রবিবার? ঠিক কবে সরস্বতী পুজো? বাগদেবীর আরাধনার প্রাক্কালে এই লাখ টাকার প্রশ্ন ঘিরে আলোচনা ছিল তুঙ্গে। শাস্ত্রীয় মতে, মাঘ মাসের শুক্লা পঞ্চমী তিথির ঊষালগ্নে দেবী সরস্বতীর বন্দনা করতে হয়। বিশুদ্ধ সিদ্ধান্ত ও গুপ্তপ্রেস-দুই পঞ্জিকা মতে শনিবার বেলার দিকেই পঞ্চমী লেগেছে। কাটছে রবিবার সকাল পেরিয়ে। তাই শাস্ত্ররীতি মেনে রবিবার প্রাতঃকাল সরস্বতীই পুজোর উপযুক্ত সময় বলে বিধান দিচ্ছেন শাস্ত্রজ্ঞরা। কিন্তু পেশাদার পুরোহিতদের অনেকে বলছেন, রবিবার সকালের সময়টি বড্ড কম। উপরন্তু পুরোহিতের আকাল। ফলে আজ, শনিবার পঞ্চমী লেগে যাওয়ার পর থেকেই পাড়ায় পাড়ায় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শুরু হয়ে গিয়েছে পুজো। এমনিতেই শনি ও রবিবার পুজো পড়ায় দু’দিন পড়াশোনা আর কাজ-কর্মে ইতি টেনেছেন রাজ্য সরকারের কর্মী ও পড়ুয়ারা। এবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণায় তাঁদের মুখের হাসি আরও চওড়া হল। সোমবার ছুটি ঘোষিত হওয়ায় বীণাপাণির পুজো উপলক্ষে টানা তিনদিনের ছুটি পেয়ে গেলেন তাঁরা।

সরস্বতী পুজো মানেই বাঙালির ভ্যালেনটাইন্স ডে। সাধারণত একদিনের সারতে হয় প্রেমালাপ। তবে এবার শনি ও রবিবার- দুটো দিন মন খুলে ভালবাসার সময় পেয়েছিল যুবপ্রজন্ম। এবার প্রেম পর্বের জন্য আরও একটা অতিরিক্ত দিন পেয়ে গেল তারা। বাগদেবীর আরাধনার পর স্বাভাবিকভাবেই হাতে অনেকখানি সময় পেয়ে গেলেন রাজ্য সরকারের কর্মীরা। পাশাপাশি সরকারি স্কুল-কলেজের পড়ুয়াদের হাতেও অনেক সময়। ফলে অনেকেই এর মধ্যে বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনাও করে ফেলছেন। সোমবারের ছুটি কাটিয়েই কর্মক্ষেত্রে যোগ দিতে পারবেন সকলে।

[সরস্বতী পুজোর ফ্যাশনে থাক হলুদের ছোঁয়া]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং