১৪ মাঘ  ১৪২৮  শুক্রবার ২৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

বেসরকারি স্কুলের বাড়বাড়ন্ত রুখতে কড়া আইন আনছে স্কুলশিক্ষা দপ্তর

Published by: Kumaresh Halder |    Posted: November 15, 2018 1:06 pm|    Updated: November 15, 2018 1:06 pm

WB Govt;s curb on Private schools

দীপঙ্কর মণ্ডল: বেসরকারি স্কুলগুলির জন্য এবার প্রশাসনিক ছাড়পত্র আবশ্যিক করছে রাজ্য সরকার। কলকাতায় শিক্ষামূলক একটি অনুষ্ঠান শেষে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানিয়েছেন, স্কুলশিক্ষা দপ্তর এই বিষয়ে কড়া আইন তৈরি করছে। নয়া নিয়মে শিক্ষা দপ্তর অনুমোদন দেওয়ার আগে সংশ্লিষ্ট স্কুলকে প্রশাসনের ছাড়পত্র নিতে হবে। পাশাপাশি শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছেন, নদিয়া ও উত্তর ২৪ পরগনায় আরও দু’টি নতুন বিশ্ববিদ্যালয় গড়া হবে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কিছুদিনের মধ্যে বিস্তারিত ঘোষণা করবেন।

[দুধের শিশুকে কোলে নিয়ে বহুতল থেকে ঝাঁপ মা-দিদার]

বর্তমান নিয়মে ব্যক্তি বা সংস্থার উদ্যোগে এ রাজ্যে স্কুল গড়তে হলে স্কুল শিক্ষা দপ্তরের অনুমোদন নিতে হয়। অনেক সময় রাজ্য সরকারের নিয়ম মানা হয় না বলে অভিযোগ ওঠে। পার্থবাবু এই বিষয়ে আগেই সরব হয়েছিলেন। বিশেষত, শহরের কয়েকটি স্কুলে যৌন হেনস্তার অভিযোগ ওঠার পর তিনি সরকারি নজরদারি কড়া করেছেন। বেসরকারি স্কুলগুলির একটি অংশে সিলেবাস ও নানা বিষয়ে বেনিয়ম হয় বলে অভিযোগ। এই বিষয়ে কড়া আইন আনা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। নয়া আইনে এবার ছোট-বড় যে কোনও স্কুলের ক্ষেত্রেই অনুমোদন পাওয়ার জন্য প্রশাসনিক ছাড়পত্র লাগবে। শিক্ষামন্ত্রী এদিন বলেন, “আমাদের রাজ্য সরকারের বিধির বাইরে কোনও স্কুল চললেই তার অনুমোদন বাতিল করা হবে। তবে ইসলামপুরের সরস্বতী বিদ্যামন্দিরের কোনও কাগজে ঈশ্বরপুর লেখা নেই। বোর্ডে কেন লেখা আমরা খতিয়ে দেখব। তবে এবার থেকে যে কোনও স্কুল অনুমোদনেই প্রশাসনিক ছাড়পত্র বাধ্যতামূলক করা হবে।”

[কেউ ওষুধ না খেলে সরকার নিরুপায়, শবরদের মৃত্যুতে প্রতিক্রিয়া মমতার]

শিক্ষামন্ত্রী পাশাপাশি এদিন জানিয়েছেন, উত্তর ২৪ পরগনা ও নদিয়ায় দু’টি নতুন বিশ্ববিদ্যালয় গড়া হবে। অনুষ্ঠান মঞ্চে শিক্ষামন্ত্রী ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে বলেন, ‘‘আমাদের একটা সাধারণ ধারণা তৈরি হয়ে গিয়েছে, বাংলায় যেন কিছু হবে না। বিদেশ থেকে স্ট্যাম্প লাগিয়ে আনলেই যেন অনেক বড় কিছু হয়ে যাবে। এই ধারণা ভুল। এখন বাংলা অনেক বদলে গিয়েছে। এই বছরই ১৮ হাজার পরীক্ষার্থী ভিন রাজ্য থেকে এই রাজ্যে পড়তে এসেছেন। এখানে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রায় ৪.৫ লক্ষ আসন রয়েছে। আমাদের এই রাজ্যে অনেক বাধা ছিল, এখনও কিছু আছে, তবে এখানে থাকলে সাফল্য পাবে না, সেই পরিবেশ আর নেই।’’

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে