BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আবহেই দু’দিনের কর্মসূচি নিয়ে উত্তরবঙ্গে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by: Sulaya Singha |    Posted: September 15, 2020 8:16 pm|    Updated: September 15, 2020 8:50 pm

An Images

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: দু’দিনের কর্মসূচি নিয়ে আগামী সোমবার উত্তরবঙ্গ যাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। করোনা পরিস্থিতির মধ্যে গত ছ’মাসে এই প্রথম তিনি সরকারি কর্মসূচিতে অংশ নিচ্ছেন। যদিও আমফানের পর তিনি পরিস্থিতি দেখতে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গিয়েছিলেন বসিরহাটে। এছাড়া এর মধ্যে মুখ্যমন্ত্রী কোনও কর্মসূচি নেননি।

গত মার্চ মাসের শুরুতে মুখ্যমন্ত্রী উত্তরবঙ্গেই মালদহ, কালিয়াগঞ্জ সফরে গিয়েছিলেন। তারপর এই করোনা (Coronavirus) পরিস্থিতির জন্য তাঁর সমস্ত কর্মসূচি বাতিল হয়ে যায়। প্রায় সাড়ে ছ’মাস পর তিনি উত্তরবঙ্গ যাচ্ছেন। আগামী সোমবার অর্থাৎ ২১ তারিখ শিলিগুড়ি পৌঁছবেন। ২২ তারিখ আলিপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়ি এই দু’টি জেলার প্রশাসনিক বৈঠক রয়েছে উত্তরকন্যায়। ২৩ তারিখ দার্জিলিং, কালিম্পং এবং কোচবিহার এই তিনটি জেলার প্রশাসিনক বৈঠক করার কথা রয়েছে। সবটাই হবে ভারচুয়ালি।

[আরও পড়ুন: রাজ্যে নারীসুরক্ষায় তৈরি হচ্ছে বিজেপির ‘উমা’ বাহিনী, চলবে মার্শাল আর্টের প্রশিক্ষণ]

মুখ্যমন্ত্রীর এই সফরের জন্য যাতে কোনওভাবেই সংক্রমণ না ছড়ায়, তার জন্য যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এই প্রশাসনিক বৈঠকের ক্ষেত্রে যাতে সবরকম কোভিডবিধি মানা হয় সেদিকে নজর দিতে বলা হয়েছে। জেলায় জেলায় গিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর এই প্রশাসনিক বৈঠক তাঁর সরকারের শুরু থেকেই এক ইউনিক কর্মসূচি। এর মাধ্যমে একেবারে শহর বা গ্রামের তৃণমূলস্তর পর্যন্ত পৌঁছে যাওয়া যায়। সরকারি কাজ কোথায় কী হচ্ছে, তার বিস্তারিত খবর নেওয়া যায়। এতদিন করোনা আবহে সবটাই বন্ধ ছিল। মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছিলেন, যেহেতু তিনি পৌঁছতে পারছেন না, তাই জেলাশাসকরা যেন স্থানীয় স্তরে জরুরি বৈঠক সেরে নেন। পরে তিনি নিজেই জানিয়েছিলেন কোভিড পরিস্থিতি মোটামুটি নিয়ন্ত্রণে এলে সেপ্টেম্বরের শেষ থেকে ফের তাঁর জেলা সফর শুরু করবেন। মহালয়ার পরই তিনি তাই উত্তরবঙ্গ (North Bengal) যাচ্ছেন। উত্তরবঙ্গে এই কয়েক মাসে শুধু করোনায় নয়, বন্যাতেও প্রচুর ক্ষয়খতি হয়েছে। হয়েছে ভূমিধসও। সবটাই তাঁর এই বৈঠকে তিনি পর্যালোচনা করবেন।

করোনা আবহে কোনও জেলা সফরে যেতে না পারলেও প্রশাসনিক কাজ কোথাও তাঁর নজর এড়িয়ে গিয়েছে এমনটা হয়নি। কখনও জেলাশাসকের দপ্তরে, কখনও পুলিশ সুপারের দপ্তরে, কখনও কোনও প্রত্যন্ত এলাকার কোনও থানার আধিকারিকের সম্পর্কে তাঁর কাছে তথ্য এসেছে। জেলা পরিষদের সদস্যদের মাধ্যমে কোনও সমস্যার কথা কানে এসেছে। নবান্নে বসেই সেসবের সমাধান সূত্র খুঁজে দিয়েছেন। অর্থ হোক বা কোনও জটিল সমস্যা, কোনও প্রকল্প আটকে গিয়ে থাকলেও তার নিদান দিয়েছেন চটজলদি। তার মধ্যেই জানিয়েছেন উত্তরবঙ্গের জন্য বেশ কিছু নতুন প্রকল্পের উদ্বোধন বা শিলান্যাসের কথা। জানিয়েছেন স্থানীয় জনগোষ্ঠী কামতাপুরী ছেলেমেয়েদের শিক্ষার জন্য চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত নির্দিষ্ট পাঠ্যসূচির বই তাঁর তৈরি হয়ে রয়েছে। বলেছেন, সব কিছুরই সূচনা করবেন তিনি এই সফরে গিয়ে। সেই অনুযায়ী এই সফরে একাধিক উদ্বোধন ও শিলান্যাসও করার কথা তাঁর।

[আরও পড়ুন: খাস কলকাতায় প্রকাশ্যে সাংসদ মিমি চক্রবর্তীকে হেনস্তা মদ্যপ ট্যাক্সি চালকের, গ্রেপ্তার অভিযুক্ত]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement