১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  রবিবার ২ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

প্রার্থী হওয়া নিয়ে মাথাব্যথা নেই, মানুষের জন্য কাজ করতে চান অগ্নিমিত্রা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 28, 2019 5:41 pm|    Updated: April 17, 2019 6:07 pm

Will contest polls if party want, says Agnimitra Paul

বিশাখা পাল: দেশজুড়ে শুরু হয়ে গিয়েছে কাউন্টডাউন। ভোটের আর দু’সপ্তাহও বাকি নেই। তারপর শুরু হয়ে যাবে ভারতযুদ্ধ। এর আগে প্রত্যেক দল তাদের প্রার্থীদের নিয়ে ময়দানে নেমে পড়েছে। কিন্তু এরাজ্যে এখনও দু’টি আসনে প্রার্থী ঘোষণা করেনি বিজেপি। পুরুলিয়া ও বর্ধমান-দুর্গাপুর। কংগ্রেস, বাম ও তৃণমূল কংগ্রেস সব আসনে প্রার্থী দিলেও গেরুয়া শিবির কেন দু’টি আসন এখনও ফাঁকা রেখেছে, তা বলা মুশকিল। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, লোকসভায় এই দু’টি আসন পাকা করে নিতে চাইছে তারা। তাই ভেবেচিন্তে ঘুঁটি সাজাচ্ছে। কিন্তু তাই বলে প্রার্থী নিয়ে যে রাজনৈতিক মহল একেবারে আতান্তরে, তা কিন্তু নয়। পুরুলিয়ায় কে বিজেপির হয়ে লড়বেন, তা এখনও হট-টপিকের তালিকায় উঠে না এলেও বর্ধমান-দুর্গাপুরের আসন নিয়ে শুরু হয়ে গিয়েছে জল্পনা। শোনা যাচ্ছে, এই কেন্দ্রে প্রতিপক্ষদের টক্কর দিতে পারেন ফ্যাশন ডিজাইনার অগ্নিমিত্রা পল

সদ্য বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন অগ্নিমিত্রা। গ্ল্যামার ওয়ার্ল্ড ছেড়ে হঠাৎ রাজনীতিতে কেন? এই প্রশ্ন দিয়েই কথা শুরু হয়েছিল অগ্নিমিত্রার সঙ্গে। তিনি বললেন, সাধারণ মানুষের জন্য তিনি কিছু করতে চান। আগেও কাজ করতেন, তবে তা ছোটখাট। বলার মতো কিছু নয়। সেটাই এবার বড় আকারে করতে চান তিনি। বিশেষ করে জনকল্যাণকারী কোনও প্রজেক্টের সঙ্গে যুক্ত হতে চান তিনি। সেই কারণেই তাঁর রাজনীতিতে আসা।

[ আরও পড়ুন: ‘মেয়াদ উত্তীর্ণ ফেলে দেওয়া ওষুধ’, অনুপমকে তীব্র কটাক্ষ মিমির ]

আর প্রার্থী হওয়া? এনিয়ে এখন মাথা ঘামাতে চান না অগ্নিমিত্রা। তাঁর মতে, এই তো সবে তিনি রাজনীতিতে এলেন। এখনই প্রার্থী হওয়া নিয়ে তিনি কিছু ভাবছেন না। কিন্তু সিক্সথ সেন্স কী বলছে? অনেকে বলেন, মেয়েদের সিক্সথ সেন্স নাকি খুব ভাল কাজ করে। এই প্রশ্নের উত্তরেই বেশ খানিকটা হেসেই নিলেন অগ্নিমিত্রা। তারপর বলেন, শুধু সিক্সথ কেন? সেভেন্থ, এইটথ, নাইন্থ.. কোনও সেন্সই তাঁর কিছু বলছে না। যদি দল মনে করে, তাঁকে প্রার্থী করবে। এটি সম্পূর্ণ দলের ব্যাপার। এনিয়ে তিনি মাথা ঘামাতে চান না।

কিন্তু যদি তাঁকে দল প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা করেন, যদি দল বলে বর্ধমান-দুর্গাপুরে তাঁকে লড়তে হবে, সেক্ষেত্রে তিনি কী করবেন? কারণ সব দল প্রার্থী ঘোষণা করে দিয়েছে। শুরু করে দিয়েছে প্রচারও। সেদিক থেকে তিনি যত দেরি করে প্রচার শুরু করবেন, তত তো ব্যাকফুটে থাকবেন। একথা একেবারে মানতে রাজি নন অগ্নিমিত্রা। তিনি সরাসরি বলেছেন, এমন কোনও ব্যাপারই নেই। “পরীক্ষার আগের সপ্তাহেই সবচেয়ে ভাল পড়া হয়। আগে থেকে প্রচার করে বিশেষ লাভ নেই।” বলেছেন তিনি। তবে হতে সময় পেলে কি আর ভাল হত না? নিশ্চয়ই হত। কিন্তু তাতে ময়দানে পিছিয়ে পড়বেন না বলে মনে করছেন অগ্নিমিত্রা। কারণ তাঁর মতে, সঠিকভাবে পরিকল্পনা করে যদি এগোন যায়, তাহলে যে কোনও কাজে সাফল্য আসতে বাধ্য।

এবছর লোকসভা নির্বাচনে বর্ধমান-দুর্গাপুর কেন্দ্রে তুখোড় প্রতিদ্বন্দ্বী মমতাজ সংঘমিতা। বর্ষীয়ান এই রাজনীতিবিদ গত বছর লোকসভা নির্বাচনে এই কেন্দ্র থেকেই জিতেছিলেন। এবছরও তিনি একই আসনে লড়াই করবেন। রাজনৈতিক মহল মনে করছে, বিদায়ী সাংসদের দিকে পাল্লা এবছর ভারী। তাই কংগ্রেস বা বিজেপির জন্য লড়াই খুব একটা সহজ হবে না। বিনা যুদ্ধে সূচাগ্র মেদিনী ছেড়ে দেবে না কেউ। কিন্তু যদি এই আসনে অগ্নিমিত্রা পল লড়াই করেন তবে তাঁর আত্মবিশ্বাস আর মানুষের জন্য কাজ করার চেষ্টা তাঁকে ব্যালট-যুদ্ধে অনেকটাই এগিয়ে রাখবে বলে মনে করে এলাকার বিজেপি নেতৃত্ব।

[ আরও পড়ুন: মিমির সঙ্গে সেলফিতে ‘না’ তৃণমূলের, গোঁসা দলের নিচুতলার কর্মীরা ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে