BREAKING NEWS

১৩ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ৩০ নভেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

প্রেসক্রিপশন ছাড়া স্টেরয়েডযুক্ত ফেয়ারনেস ক্রিম বিক্রি করলেই জেল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: January 15, 2017 10:57 am|    Updated: January 15, 2017 10:57 am

Without prescription selling steroided fairness creame will put behind the bars

গৌতম ব্রহ্ম: প্রেসক্রিপশন ছাড়া আর স্টেরয়েডযুক্ত ফর্সা হওয়ার ক্রিম বিক্রি করতে পারবে না কোনও ওষুধের দোকান৷ করলে জেল-জরিমানা দু’টোই হবে৷ দেশজুড়ে এবার ‘ড্রাগ কণ্ট্রোল’ মারফত্‍ এই নিয়ম কার্যকর করতে চলেছে কেন্দ্র৷

গত এপ্রিলে দিল্লিতে ‘ড্রাগ কণ্ট্রোল জেনারেল অফ ইন্ডিয়া’ (ডিসিজিআই)-র সঙ্গে দেখা করেন ডার্মাটোলজিস্টদের জাতীয় সংগঠন ‘আইএডিভিএল’-এর টাস্ক ফোর্স ‘ইততসা’-র সদস্যরা৷ স্টেরয়েডযুক্ত ক্রিমের অপকারিতা নিয়ে একটি ‘প্রেজেণ্টেশন দেখান৷ তারই জেরে ডিসিজিআই সম্প্রতি একটি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে৷ স্টেরয়েডযুক্ত ক্রিমকে বিপজ্জনক ‘সিডিউল এইচ ড্রাগ’-এর পর্যায়ভুক্ত করে৷ স্পষ্ট জানিয়ে দেয়, কোনও ওষুধের দোকান প্রেসক্রিপশন ছাড়া এই ধরনের ক্রিম বিক্রি করতে পারবে না৷ শুক্রবার কলকাতায় এসে এমনটাই জানালেন ইততসা-র চেয়ারম্যান ডা. শ্যাম বর্মা৷ সেই সঙ্গে মনে করিয়ে দিলেন রাজ্যগুলি এখনও ‘ডিসিজিআই’-এর বিজ্ঞপ্তি কার্যকর করার প্রক্রিয়া শুরু করেনি৷

এই আক্ষেপ নিয়েই শনিবার কলকাতার রাজপথে নামলেন দেশের তাবড় ডার্মাটোলজিস্টরা৷ গুজরাতের ডা. যোগেশ মারফত্তি থেকে হায়দরাবাদের রাজিতা দামেসেত্তি৷ কলকাতার ডা. কৌশিক লাহিড়ি থেকে ডা. অভিষেক দে৷ সবাই উদ্বেগ প্রকাশ করলেন স্টেরয়েডযুক্ত ক্রিম ব্যবহার নিয়ে৷ জানালেন, ফর্সা হওয়ার ক্রিম বলে বাজারে যা বিক্রি হয় তার একটা বড় অংশে রয়েছে বিপজ্জনক স্টেরয়েড৷ যা ত্বকের ভয়ঙ্কর ক্ষতি করতে পারে৷ পুড়িয়ে দিতে পারে মুখ৷ অথচ, বিজ্ঞাপনী চমকে ভুলে মেয়েরা ওষুধের দোকান থেকে এই ক্রিম কিনে দেদার মাখছে৷ তারপরই বদলে যাচ্ছে মুখের জ্যামিতি৷ কখনও আবার ছেলেদের মতো গজাচ্ছে দাড়ি-গোঁফ৷

অভিনেত্রী সোহিনী সরকার ও ঐন্দ্রিলা সেন শামিল হন এই পদযাত্রায়।
অভিনেত্রী সোহিনী সরকার ও ঐন্দ্রিলা সেন শামিল হন এই পদযাত্রায়।

এদিন সায়েন্স সিটি থেকে বোটিং ক্লাব ঘুরে মিলন মেলা পর্যন্ত পদযাত্রা হয়৷ তাতে শামিল হন টলিতারকারাও৷ অভিনেত্রী সোহিনী সরকার ও ঐন্দ্রিলা সেন এদিনের অনুষ্ঠানে অংশ নেন৷ সোহিনী জানালেন, “একজন সাধারণ মানুষের পক্ষে কোন ক্রিম স্টেরয়েড যুক্ত, কোনটা নয় তা জানা সম্ভব নয়৷ তাই, সিডিউল এইচ পর্যায়ভুক্ত স্টেরয়েড-ক্রিমের তালিকা জনসমক্ষে প্রকাশ করা উচিত৷” ঐন্দ্রিলা জানালেন, “অবিলম্বে আইন করে এই ধরনের বিপজ্জনক ক্রিমের উৎপাদন ও বিক্রি ভারতে নিষিদ্ধ হওয়া উচিত৷ অভিনেত্রীদেরও উচিত এই ধরনের বিজ্ঞাপন থেকে নিজেদের বিরত রাখা৷” এদিনের পদযাত্রার উদ্যোক্তা ছিল ‘ইততসা’৷ সংগঠনটি ১০ বছরের বেশি সময় ধরে স্টেরয়েডযুক্ত ক্রিমের বিরু‌দ্ধে লড়াই করে চলেছে৷ নন্দিতা দাস, দিয়া মির্জার মতো অভিনেত্রীরা এই আন্দোলনে যুক্ত হয়েছেন৷ এবার সোহিনী-ঐন্দ্রিলারাও যুক্ত হলেন৷ এমনটাই জানালেন এদিনের অনুষ্ঠানের কো-অর্ডিনেটর তথা ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসক ডা. অভিষেক দে৷ কনভেনর রাজেতা দামাসেত্তি জানালেন, “টিনএজাররা এই ধরনের স্টেরয়েডযুক্ত ক্রিম মেখে সুন্দর হওয়ার মিথ্যে স্বপ্নে মশগুল হচ্ছে৷ বিপদ ডেকে আনছে নিজেদের৷ এর বিরু‌দ্ধে সার্বিক সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে৷”

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে