BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শুক্রবার ২০ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

টাকা দিতে নারাজ বাবা, অভিমানে প্রকাশ্যে আগুন লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা ছেলের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 25, 2019 8:48 am|    Updated: February 25, 2019 8:48 am

Youth tried to imolate  self at Park Circus

অর্ণব আইচ: দোকান তৈরির জন্য নগদ টাকা চেয়েছিল ছেলে। নগদ টাকা ছেলের হাতে  দিতে নারাজ ছিলেন বাবা। সেই অভিমানে পার্ক সার্কাস ময়দানে প্রকাশ্যে গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন এক যুবক। ঘটনার সঙ্গে সঙ্গে এলাকার বাসিন্দারা মহম্মদ নাদিম নামে ওই যুবককে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠান। আপাতত তাঁর অবস্থা স্থিতিশীল বলে হাসপাতাল সূত্রে খবর।

সরকারি কর্তাদের জাল চিঠি, হাসপাতালে ভরতির নামে বৃদ্ধ দম্পতিকে প্রতারণা

পুলিশ জানিয়েছে, রবিবার বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ পার্ক সার্কাস ময়দানে এই ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ান অনুযায়ী, বিকেলে এক যুবক যখন মাঠের ভিতরে ঢোকেন, তখন কারও কোনও সন্দেহ হয়নি। যদিও তাঁর হাতে একটি পাত্র দেখেছিলেন তাঁরা। হঠাৎই চিৎকার করে যুবক বলতে থাকেন, “এই জীবন আর রাখব না। আমায় কেউ বিশ্বাস করে না।” ছুটির দিন বিকেলে তখন পার্ক সার্কাস ময়দানে খেলাধুলো করতে শুরু করেছেন সব বয়সী ছেলেমেয়েরা। বয়স্করা গোল হয়ে বসে জমিয়েছেন আড্ডা। যুবকের চিৎকার শুনে প্রথমে কেউই কিছু বুঝতে পারেননি। হঠাৎই তাঁরা দেখেন, যুবক একটি জার থেকে তরল ছিটোচ্ছেন নিজের শরীরে। সন্দেহের বশে কয়েকজন তাঁর দিকে এগোতে থাকেন। কিন্তু তার আগেই সে নিজের শরীরে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। অগ্নিদগ্ধ অবস্থাতেই দৌড়ে পালানোর চেষ্টা করেন। পুরো পার্ক সার্কাস ময়দান জুড়ে তখন চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে। কয়েকজন কাছের একটি জায়গা থেকে জল নিয়ে এসে যুবকের অগ্নিদগ্ধ শরীরে ঢেলে বাঁচানোর চেষ্টা করেন। তাতে আগুন নিভে যায়। তবে ততক্ষণে অচৈতন্য হয়ে পড়েছেন যুবক। খবর পেয়ে বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে অগ্নিদগ্ধ যুবককে উদ্ধার করে ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানেই তাঁর চিকিৎসা চলছে।

মাদক ইঞ্জেকশন দিয়ে খুন? অ্যাপোলোর নার্সের মৃত্যুতে ঘনীভূত রহস্য

প্রাথমিক তদন্তের পর পুলিশ জানতে পেরেছে, যুবকের নাম মহম্মদ নাদিম। বাড়ি কাসিয়াপাড়া লেনে। দর্জির কাজ করেন নাদিম। তাঁর ইচ্ছা, নিজের একটা দোকান করার। তার জন্য বাবা মহম্মদ আফজলের কাছ থেকে টাকা চেয়েছিলেন। কিন্তু বাবার অভিযোগ, নাদিম এর আগেও দোকান তৈরির নাম করে টাকা নিয়েছেন। অথচ সেই টাকা অন্যত্র খরচ করে ফেলেছেন। ফের টাকা পেলে নাদিম হয়তো একই কাজ করবেন। এই আশঙ্কায় ছেলের হাতে নগদ টাকা দিতে চাননি বাবা। বিষয়টি নিয়ে কয়েকদিন ধরে বাবার সঙ্গে ছেলের মনোমালিন্য চলছিল ছেলের। তারপর রবিবার বিকেলের এই ঘটনা। পুলিশের দাবি, নাদিম হাসপাতালে শুয়ে স্বীকার করেছেন, বাবার উপর অভিমানে তিনি প্রকাশ্যে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন। পুরো ঘটনার তদন্তে নেমেছে বেনিয়াপুকুর থানার পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে