BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৪ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‌বন্ধু গুগল ম্যাপ, ১১ বছর পর নিজের বাড়িতে ফিরল অপহৃত নাবালক

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: October 16, 2020 7:20 pm|    Updated: October 16, 2020 7:20 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:‌ বর্তমান সময় আসলে প্রযুক্তির যুগ। যে দেশ প্রযুক্তির দিক থেকে যত উন্নত, সেই দেশ তত এগিয়ে। অনেক কঠিন কাজও এখন হয়ে যায় সহজ ও দ্রুততার সঙ্গেই সম্পন্ন হয়। আবার এই প্রযুক্তিই দীর্ঘদিন আগে হারিয়ে যাওয়া ছেলেকে ফিরিয়ে দেয় পরিবারে। শুনতে অবাক লাগলেও ইন্দোনেশিয়ার (Indonesia) সেন্ট্রাল জাভার স্র্যাগেন প্রদেশ সাক্ষী থেকেছে এমনই এক অবিশ্বাস্য ঘটনার। পাঁচ বছর বয়সে অপহৃত হওয়া বালক ১১ বছর পর পরিবারের কাছে ফিরে এল, গুগল ম্যাপের সাহায্যে। হ্যাঁ, সেই প্রযুক্তির দৌলতেই।

ঘটনাটি ঠিক কী?‌ – ইরভান ওয়াহিয়ু আনজাসোরো নামে ওই বালক ৫ বছর বয়সে অপহৃত হন। পাড়ার একটি ভিডিও গেমের দোকান থেকে বাড়ি ফেরার সময় রাস্তায় খেলা–দেখানো এক লোক তাকে বাড়িতে পৌঁছে দেবে বলে লিফট দিতে চায়। কিন্তু ছোট্ট ইরভান গাড়িতে ওঠার পরই, বাড়ির দিকে নিয়ে আসার পরিবর্তে তাকে অন্য জায়গায় নিয়ে যান। এর পর ছোট্ট ইরভানের জীবন আরও দুর্বিষহ হয়ে ওঠে। অত্যাচার, ঠিক মতো না খেতে পাওয়ার সঙ্গেই চলেছিল রাস্তায় খেলা দেখানোর তালিম। ওই ব্যক্তির সঙ্গেই পথে পথে ঘুরে খেলা দেখাতে দেখাতেই দিন কাটতে থাকে তার।

[আরও পড়ুন:‌ নতুন আইফোনে নেই অ্যাডাপ্টার, অ্যাপলকে কটাক্ষ স্যামসংয়ের, পালটা জবাব নেটিজেনদেরও]

এরপরই হঠাৎ পুলিশের তাড়া খেয়ে পালিয়ে যায় ওই ব্যক্তি। ইরভানের ঠাঁই হয় এক অনাথ আশ্রমে। সেখানেই চলতে থাকে পড়াশোনাও। এর মাঝেই একদিন ওই অনাথ আশ্রমে রাখা কম্পিউটার থেকেই Google Map ব্যবহার করতে শেখে ইরভান। এরপর আচমকাই একদিন ‘গংগ্যাং’ নামের এক বাজারের নাম দিয়ে জায়গাটা খোঁজার ইচ্ছে জাগে তার মনে। কারণ, স্মৃতিতে ওই বাজারটির নামই মনে ছিল তার। সেখানে ঠাকুমার সঙ্গে যেত সে। দেখা যায় যে গুগল ম্যাপ সত্যিই ওই নামের এক বাজারের লোকেশন বের করে ফেলেছে।

[আরও পড়ুন: ‌বিচ্ছিন্নতবাদে মদত! ফ্লিপকার্টের বিরুদ্ধে হতে পারে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলা]

এরপর অনাথ আশ্রমের লোকেরা ওই বাজারের দোকানদারদের ইরভানের কথা জানিয়ে খোঁজ নিতে বলেন। এক দোকানদার জবাবে এক পরিবারের ছবি পাঠান, যাঁদের ছেলে ৫ বছর বয়সে হারিয়ে গিয়েছিল! শেষপর্যন্ত ১১ বছর পর পরিবারের কাছে ফিরেই তাঁদের চিনতে পারে ইরভান। পরিবারের প্রত্যেকেই হারানো ছেলেকে খুঁজে পেয়ে খুশি।তাঁরা প্রত্যেককেই ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement