২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৬ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

পোশাকেই শারদীয়ার গন্ধ, পুজোয় হিট কালনার ‘দুর্গা’ শাড়ি

Published by: Tanumoy Ghosal |    Posted: September 18, 2018 8:08 pm|    Updated: September 18, 2018 8:08 pm

An Images

রিন্টু ব্রহ্ম, কালনা: শাড়িতেই পুজোর গন্ধ! এ বার পুজোয় হিট কালনার ‘দুর্গা’ শাড়ি। কালনার শিল্পীদের হাতের আঁকা

শাড়িতেই অধিষ্ঠিত স্বয়ং দেবী দুর্গা। আঁচল থেকে শুরু করে সমগ্র শাড়িতেই ফুটে উঠছে মহিষাসুর বধের কাহিনী। যা কিনতেই হিড়িক শাড়ির দোকানে। কালনার বিভিন্ন বুটিক শিল্পীদের হাত থেকে সেই শাড়ি চলে যাচ্ছে কলকাতা, হাওড়া হুগলির বড় বড় দোকানে। প্রথমে সামান্য পরিমাণে শাড়ি তৈরি করলেও শেষ বাজারেও ক্রেতারা চাইছেন আরও ‘দুর্গা’ শাড়ি। তাই এখন কাপড়ের উপর দুর্গা আঁকতে ব্যস্ত কালনার শিল্পীরা। শিল্পীরা জানান, এবারের পুজোর ‘স্পেশাল আইটেম’ এই দুর্গা শাড়ি। পুজোর অষ্টমীর দিনের পড়ার জন্যই ক্রেতারা চাইছেন দুর্গা শাড়ি। কালনার বুটিক শিল্পী রাজু দাস জানান, প্রথমে কিছু শাড়িতে দুর্গা বানিয়েছিলেন তিনি। তা পাইকারি ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে খুচরো দোকানে পৌঁছতেই হিট হয়ে যায়। চাহিদা এতটাই, অন্য কোনও ডিজাইন নয়, কেবল দুর্গা শাড়িই তৈরি করছেন শিল্পীরা। শাড়ির দাম পাঁচশো থেকে হাজার টাকার মধ্যে। ভাল টিকসই রং না ওঠারও গ্যারান্টি দিচ্ছেন শাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা।

[ পুজোয় চুলেও চাই ভিন্ন লুক, জেনে নিন কী কী ফ্যাশনে ইন]

কালনা শহরের বাসিন্দা আকাশ পাল ১৪ বছর ধরে এই বুটিকে কাজ করছেন। তাঁর কারখানায়ও তৈরি হচ্ছে এই দুর্গা শাড়ি। তিনি জানান, আগে শুধু মাত্র গোলাপ, পদ্ম, বুদ্ধ, কৃষ্ণ, পশুপাখি নানা দৃশ্য ফুটিয়ে তুলতেন শাড়িতে। তবে এই বছর থেকেই দুর্গা আঁকা শুরু করেছেন। ‘কেরল’ থেকে আমদানি করা এক বিশেষ ধরনের সুতির কাপড়ে ‘ফেব্রিক’ ও পিগমেন্ট ব্যবহার করে আঁকা হচ্ছে। প্রথমে পেন্সিলে এঁকে তার উপর রং চাপানো হচ্ছে। এক একটি শাড়ি প্রায় দু’ণ্টা ধরে শেষ করা হচ্ছে। যেই শিল্পীর হাতের কাজ যত নিপুন হবে তাঁর শাড়ি ততই নজর কাড়বে।   

ছবি: মোহন সাহা

 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement