৩১ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কেরলের বন্যাদুর্গতদের পাশে দাঁড়িয়েছে গোটা দেশ। শুধু দেশই নয়, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সাহায্য এসে পৌঁছেছে কেরলের বানভাসিদের জন্য। সংযুক্ত আরব আমিরশাহির তরফে ৭০০ কোটি টাকা ত্রাণ সাহায্যের কথা ঘোষণা করা হয়েছে। এবার আর্থিক দিক থেকে কেরলের পাশে দাঁড়াল ফেসবুক। বন্যাবিধ্বস্ত কেরলকে এক কোটি ৭৫ লক্ষ টাকা দিল এই জনপ্রিয় সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট।

[বন্যা দুর্গতদের খুঁজতে নয়া অ্যাপ, বিনামূল্যে পরিষেবা দিচ্ছে টেলিকম সংস্থাগুলি]

কেরলে আজও বৃষ্টির ভ্রুকুটি। বন্যায় ইতিমধ্যেই প্রাণ হারিয়েছেন প্রায় ৩৭০ জন। মৃতের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। ঘরছাড়া আট লক্ষেরও বেশি মানুষ। আট হাজারেরও বেশি ঘর-বাড়ি বন্যার জলে ধুয়ে-মুছে সাফ হয়ে গিয়েছে। পরিস্থিতি সামাল দিতে একত্রিত গোটা দেশ। কেন্দ্রের তরফে ৫০০ কোটি টাকা সাহায্যের কথা জানানো হয়েছে। যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে ভারতীয় সেনা। ক্রীড়াদুনিয়া থেকে বিনোদন জগতের তারকারা, ই-কর্মাস সাইট থেকে টেলিকম সংস্থা, সকলেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে। দিনকয়েক আগেই কেরল দুর্গতদের জন্য একটি ক্রাইসিস রেসপন্স পেজ তৈরি করে ফেসবুক। কেরল সম্পর্কে সবধরনের খবর, ছবি, ভিডিও এখানে পোস্ট করতে পারবেন সাধারণ মানুষ। ফলে প্রতি মুহূর্তে সে জায়গার আপডেট পাবেন সকলে। এছাড়াও সেফটি চেক অপশনটিও রয়েছে ফেসবুকে। আপনি বা আপনার পরিবার সুরক্ষিত কিনা তা এক ক্লিকেই জানাতে পারবেন এর মাধ্যমে। ফেবসুকের ম্যাপ স্থানীয় বাসিন্দাদের লোকেশন খুঁজে বের করতেও সাহায্য করবে। পাশাপাশি তৈরি করা হয় কমিউনিটি হেল্প এবং ক্রাইসিস ডোনেট অপশনও। ইতিমধ্যেই ৫০০ মানুষ এর মাধ্যমে সাধ্যমতো ত্রাণ সামগ্রী দান করেছেন।

[হ্যাক হচ্ছে ইনস্টাগ্রাম, কীভাবে সুরক্ষিত রাখবেন আপনার অ্যাকাউন্টটি?]

এবার আর্থিকভাবেও কেরলবাসীর পাশে দাঁড়াল ফেসবুক। এই সোশ্যাল মিডিয়ার পেজ ও কমিউনিটি থেকে প্রাপ্ত টাকাই ‘গুঞ্জ’ নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার হাতে তুলে দিচ্ছে ফেসবুক। এছাড়াও ফেসবুকে পেজ ও গ্রুপ তৈরি করে কেরলবাসীর জন্য অর্থ তোলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে এই কোম্পানি। শুধু তাই নয়, এর মাধ্যমে বিভিন্ন মেডিক্যাল সাহায্যও পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। এসব পেজ ও গ্রুপেই চিকিৎসকরাও প্রয়োজন মতো পরামর্শ দিয়ে সাহায্য করছেন।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং