BREAKING NEWS

২৮ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১৩ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

সেই জেল্লা, আগের মতোই সুরভি, নাম পালটে চেনা ক্রিম এখন ‘গ্লো অ্যান্ড লাভলি’

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: July 2, 2020 9:33 pm|    Updated: July 2, 2020 9:33 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বর্ণবৈষম্য নিয়ে দীর্ঘ প্রতিবাদের জেরেই যে হিন্দুস্তান ইউনিলিভার তাদের জনপ্রিয় প্রসাধনী দ্রব্য ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি’র (Fair & Lovely) নাম থেকে ‘ফেয়ার’ শব্দটি ছেঁটে ফেলেছে, তা বোধহয় আলাদা করে উল্লেখ করার কোনও প্রয়োজন নেই। সাধারণ মানুষ থেকে তারকারাও এমন অভিনব সিদ্ধান্তের জন্য বাহবা দিয়েছেন সংশ্লিষ্ট সংস্থাকে। কিন্তু, যে প্রসাধনী দ্রব্য এতদিন ফর্সা করার ‘মেকি’ প্রতিশ্রুতি দিয়ে এসেছে, এবার পণ্য বিকোনোর জন্য কোনও নয়া পদ্ধতি কিংবা স্ট্র্যাটেজি আনতে হবে তো? আর নয়া স্ট্র্যাটেজি মানেই নতুন নাম! ফর্সা না হোক, অন্য কোনও প্রতিশ্রুতি। সেই ভাবনা থেকেই এল ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি’র নয়া নাম। ‘ফেয়ার আউট গ্লো ইন!’ আরেকটু খোলসা করে বললে ‘ফেয়ার’ শব্দ উঠে গিয়ে সেই জায়গায় এল ‘গ্লো’ শব্দটি। অর্থাৎ নতুন নাম ‘গ্লো অ্যান্ড লাভলি’ (Glow & Lovely) ।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবারই লন্ডনে হিন্দুস্তান ইউনিলিভার সংস্থার তরফে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয় যে, ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি’ নামের মধ্য দিয়ে কৃষ্ণবর্ণের মানুষদের অসম্মান করার মনোভাব প্রকাশিত হয়। তাই ‘ফেয়ার’ শব্দটি বাদ দেওয়া হচ্ছে। প্রসাধনী দ্রব্য যখন তখন নয়া উপকারিতা বিশেষণ তো যোগ করতেই হত, তাই এবার থেকে বাজারে মিলবে ‘গ্লো অ্যান্ড লাভলি’। অতঃপর এবার থেকে বিজ্ঞাপনে আর ফরসা হওয়ার কথা শোনা যাবে না! পরিবর্তে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডরদের বলতে শোনা যাবে, “এই ক্রিম মাখলে ত্বকের ঔজ্জ্বল্য ফিরে আসবে, মজবুত হবে ত্বকের স্বাস্থ্য…” গোছের কথা। অতঃপর নাম বদলানোর সঙ্গে সঙ্গে বিজ্ঞাপনেও থাকছে বড় চমক।

fairness-cream-N

মহিলাদের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট পণ্যের পুরুষদের জন্য যে ক্রিম রয়েছে তারও নাম ‘ফেয়ার অ্যান্ড হ্যান্ডসাম’ থেকে বদলে ‘গ্লো অ্যান্ড হ্যান্ডসাম’ করা হয়েছে। হিন্দুস্তান ইউনিলিভারের তরফে জানানো হয়েছে যে, গত এক সপ্তাহ ধরে বিকল্প নামের জন্য অনেক ভাবার পরেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: বর্ণবৈষম্য নিয়ে বিক্ষোভ, বিজ্ঞাপনের ভাষা বদলাচ্ছে L’Oreal-ও]

কোম্পানির ওয়েবসাইটে বিউটি অ্যান্ড পার্সোনাল কেয়ার বিভাগের প্রেসিডেন্ট সানি জৈন জানিয়েছেন, “আমরা প্রথম থেকেই বিশ্বজুড়ে মানুষদের ত্বকের খেয়াল রাখার দিকেই বেশি গুরুত্ব দিয়ে এসেছি। যে কোনও রঙের ত্বকই হোক না কেন, তার নিজস্ব একটা সৌন্দর্য রয়েছে বলেই আমরা বিশ্বাস করি। ‘ফেয়ার’, ‘হোয়াইট’, ‘লাইট’ ইত্যাদি শব্দের মাধ্যমে সৌন্দর্যের সংজ্ঞাকে সীমাবদ্ধ করে ফেলা হয়। তাই নাম বদলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।”

উপরন্তু এর আগে, ইউনিলিভারের প্রতিদ্বন্দ্বী সংস্থা জনসন অ্যান্ড জনসন জানিয়েছে, তারা আর ফরসা হওয়ার ক্রিম বিক্রি করবে না। অতঃপর, বাজারে টিকে থাকতে হলে নতুন স্ট্র্যাটেজির তো দরকার। তাই ইউনিলিভার সংস্থার ব্র্যান্ডিং-এ বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হবে বলে জানা গিয়েছে।

[আরও পড়ুন: সাদা-কালো পোশাকে অনুরাগীদের মনে ঝড় তোলেন, ফ্যাশন ডিভা ঋতাভরীর এই রূপ দেখেছেন?]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement