১১ বৈশাখ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২৫ এপ্রিল ২০১৯ 

Menu Logo নির্বাচন ‘১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও #IPL12 ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

এ বছরের গয়নার ট্রেন্ড। খোঁজ দিলেন শর্মিষ্ঠা ঘোষ চক্রবর্তীতিতাস

অনলাইন শপিং
হাটেবাজারের মতো অনলাইন সাইটেও এবার সিলভার রঙা মেটালের তৈরি ড্যাংগলার, ঝুমকো, বেল টাস্‌ল দেওয়া ঝুমকো, থ্রেড নেকলেসের সঙ্গে বড় মাপের ট্রাইবাল পেনডেন্টে ছয়লাপ। সিলভাররঙা মেটালে এবারের মোটিফে সবচেয়ে বেশি চোখে পড়ছে লোটাস, পুরনো মুদ্রার আদলে তৈরি পেনডেন্ট, দুর্গার মুখের আদল, বিডেড কয়েন ও নিত্যনতুন ট্রাইবাল মোটিফ। সঙ্গে এ বছরও পুজোয় ক্রেজ রয়েছে সবুজ, নীল, লাল, গোলাপি রঙের মিলমিশে আফগান জুয়েলারি। নেকপিস ও দুলের পাশাপাশি স্টেটমেন্ট নাকছাবিও পেয়ে যাবেন আফগানি ধাঁচে। গত দু’তিন বছর ধরেই নাকছাবিতে মজেছে আঠেরো থেকে আশি। পিওর সিলভার, সোনার জল করা, কস্টিউম, অক্সিডাইজ্‌ড মেটালের ছোট-বড় নানা মাপের ও নকশার নোজপিনে ছেয়ে গিয়েছে সাইট। পেয়ে যাবেন ওয়্যার ও ক্লিপ অন দু’ধরনেই। ইয়াং জেনারেশনের কাছে বিড্‌স ও চেন টাস্‌লের কম্বিনেশন করা, স্টেটমেন্ট নেকপিস পপুলার হয়েছে, একইভাবে কদর বেড়েছে থ্রেড টাস্‌ল ও পমপমের কম্বিনেশন করা নেকপিস ও দুলের। মেটালের থ্রি টায়ার্ড নেকলেস, বিড্‌সের মাল্টিলেয়ার্ড নেকলেস, আফ্রিকান গয়নার আদলে তৈরি রংবেরঙের খুদে বিড্‌সের চওড়া চোকার, নেকপিস ও দুলও এবার ট্রেন্ডিং। মিরর ও থ্রেড-এর কারুকাজ করা ঝুমকো, কানপাশা, পেনডেন্ট, এমনকী ব্যাঙ্গেলও চোখে পড়বে সাইটে, পেতলের তৈরি জ্যামিতিক ও অ্যাবস্ট্রাক্ট শেপের ইয়াররিং পাওয়া যাচ্ছে প্রচুর। একইরকম ডিজাইন দেখা যাচ্ছে তামাতেও।

[সুন্দর চুল চান? রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে এই কাজগুলি অবশ্যই করুন]

ডুয়াল টোন জুয়েলারি এবার হট কেক। মিউটেড ম্যাট গোল্ড ও মিউটেড সিলভার-এই দু’রঙের ধাতুর ব্যবহারে তৈরি জুয়েলারি পেয়ে যাবেন খাঁটি রুপো ও মেটাল দু’ধরনেই। চোকার, নেকলেস, বালা, দুল, ককটেল রিং, অ্যাঙ্কলেটও এবার ডুয়াল রঙে মেতেছে। বেশ কয়েক বছর ব্যাকফুটে চলে যাওয়া কাঠের জুয়েলারি এবার ফিরে এসেছে ফ্যাশনে। কাঠের ওপর রঙিন বিড্‌স ও সুতোর কারুকাজ করা ফিশ হুক ইয়াররিং কলেজ পড়ুয়া ও টিনএজারদের লুকের সঙ্গে দারুণ মানানসই। ইয়ং জেনারেশন থেকে মিড্‌ল এজ্‌ড সবার কাছে এ বছর হ্যান্ডক্রাফটেড জুয়েলারির ক্রেজও চোখে পড়ার মতো। অনলাইন বেশ কিছু সাইটে ঢালাও বিকোচ্ছে তা। ফ্রিডা কাহলো থেকে মীনা কুমারী, আবার কখনও কোয়ার্কি কোনও মোটিফ বা ‘ড্রামা কুইন’, ‘নওটঙ্কি’-র মতো খোদাই করা থাকছে বা লেখা থাকছে দুলে। ফিশ হুক, ওভারসাইজ্‌ড হুপ, পুশ ব্যাক তিন ধরনেই মিলছে এ ধরনের ইয়াররিং। একই আদলে পেয়ে যাবেন পেনডেন্ট বা ককটেল রিং। এ ধরনের জুয়েলারিতে রঙের ব্যবহারও বেশ উজ্জ্বল ও নজরকাড়া। বোহো, ফিউশন লুক স্পোর্ট করতে চাইলে এই জুয়েলারি মাস্ট বাই।

[সঠিক মেক-আপ করতে চাইলে এই ভুলগুলি এড়িয়ে চলুন]

এথনিক ও ইন্দো-ওয়েস্টার্ন ওয়্যারের সঙ্গে মানানসই রুদ্রাক্ষ ও ফ্র‌্যাব্রিকের কম্বিনেশন করা ঝুমকো, ড্যাংগলার্সও এবার অনলাইনে জনপ্রিয়। ফ্র‌্যাবিকে ব্যবহার হচ্ছে কলমকারি, বাটিক, গামছা, ভেজিটেব্‌ল প্রিন্ট, বাঁধনি ও ইক্কতের মতো ভ্যারাইটি। পুজোর ক’দিন জমকালো সাজের সঙ্গে মানানসই কস্টিউম জুয়েলারির যাবতীয় পেয়ে যাবেন অনলাইনে। কুন্দন, পোলকি, এনামেল পেন্টেড জুয়েলারি এ বছর ট্রেন্ডে রয়েছে। মাংটিকা, কানবালা, ঝুমকো, বালা, আংটি, নেকপিসের পাশাপাশি ক্লিপ অন ও পিয়ার্সড নাকের জন্য পেয়ে যাবেন হরেক নকশার কস্টিউম, নাকছাবি ও নথ।

[ফ্যাশন নিয়ে সচেতন ছোটরাও, জেনে নিন ওদের জন্য পুজোয় কী কিনবেন]

হাটেবাজারে
বেশ কয়েক বছর ধরে জাঙ্ক জুয়েলারির পাশাপাশি পিওর সিলভারের গয়না খুব ক্রেজ-এ। রুপোর একটা কালচে বর্ণ, যাকে বলে অক্সিডাইজ্‌ড সিলভার, তা দেখা যাচ্ছে অনেকেরই কানে, গলায়। রুপোর দাম যদিও ওজন অনুযায়ী হয়, তাই দাম একটু বেশি পড়ে। তাও ভাল জিনিসের জন্য দাম দিতে কসুর করছে না পুজোপ্রেমী বাঙালি। গথিক ডিজাইন, ট্রাইবাল ডিজাইন, ট্র্যাডিশনাল ডিজাইন সব আছে। রুপোর সঙ্গে টারকোয়েজ, রুবি, এমারেল্ড, পার্ল-এর মিক্স অ্যান্ড ম্যাচ করে এক্সক্লুসিভ ডিজাইনের দেখা মিলছে। ঝুমকো, কানবালা, পাশা, কড়হা, বালা, কঙ্কণ, চওড়া নেকলেসের ওপর দারুণ সুন্দর খোদাই করে তৈরি হচ্ছে হরেক নতুন প্যাটার্ন। রুপোর অক্সিডাইজ্‌ড পলিশের পাশাপাশি গ্লসি পলিশের কদর এ বছর ভীষণভাবে বাড়বে। এ বছর রুপোর গয়নার সঙ্গে ময়দানে নেমে পড়েছে সিলভার লুক অক্সিডাইজ্‌ড জুয়েলারি। সিলভার লুক জাঙ্ক জুয়েলারি আগেও ছিল, কিন্তু এ বছর যেটা চোখে পড়ার মতো, তা হল সিলভার জুয়েলারির রেপ্লিকা দেখতে পাবেন সর্বত্র অর্থাৎ হুবহু রুপোর গয়নার ডিজাইনে বানানো। সিলভার জাঙ্ক দুলের সঙ্গে খুব রুদ্রাক্ষ বিড্‌সের মিক্স অ্যান্ড ম্যাচ দেখা যাচ্ছে। ম্যাট গোল্ডেন গয়নার সঙ্গেও রুদ্রাক্ষ বিড্‌সের মিশেলে স্টাইলিশ হার, দুল তৈরি হচ্ছে। রঙিন সুতোর টাস্‌ল ঝোলানো গয়না এবার মোটামুটি বাজার মাতাবে। সিলভার অক্সিডাইজ্‌ড হোক বা গোল্ডেন অক্সিডাইজ্‌ড গয়না, দুল হোক বা হার- নিচে একরঙা সুতোর লম্বা ঝুরি। লাল, নীল, হলুদ, সবুজ, কমলা– সব ব্রাইট কালারের সুতো টাস্‌লের সমন্বয়ে তৈরি জুয়েলারিগুলো।


ঘুঙুর বিড্‌সের ক্রেজও রয়েছে। নানা ধরনের টাস্‌লের সঙ্গে ছোট-বড় ঘুঙুর দিয়ে তৈরি নেকপিস চোকার বা কানের দুলে রয়েছে নতুনত্ব। কিছু কিছু জায়গায় পায়ের ঘুঙুরের মতোই দেখতে গলার চোকারেরও দেখা মিলবে। ঝুমকো আর ত্রিশূলের একটা কম্বিনেশন এবার খুব চলবে। ত্রিশূল ডিজাইন প্রথমে রুপোতে পপুলার হয়েছিল, এখন সিলভার অক্সিডাইজে, ম্যাট গোল্ডেনেও তৈরি হচ্ছে ত্রিশূল টপ, লকেট। ত্রিশূল ডিজাইন চোখে পড়ার মতো। টেক্সটাইলের গয়না এ বছর সর্বত্র পাওয়া যাবে। গত বছর একটু কম ছিল, এ বছর রাস্তার ছোট-বড় দোকানেও পাবেন টেক্সটাইলের বিভিন্ন ধরনের কালারফুল লম্বা হার, বালা, দুল। পমপম দুল বা হার গত বছরও ছিল, এ বছরও আরও বেশি করে দেখা মিলবে।

[ওজন বাড়াতে নয়, কমাতে সাহায্য করে ঘি!]

বিডেড জুয়েলারিও এ বছর ট্রেন্ডে। ব্রাইট স্টোন বিড্‌সের সঙ্গে সিলভার জাঙ্ক বিড বা ম্যাট গোল্ডেন বিড্‌সের মিক্স অ্যান্ড ম্যাচ করা সুদৃশ্য নেকপিস, দুল পাবেন।
ডোকরার হ্যান্ডমেড জুয়েলারি খুব পপুলার। ডোকরা স্টেটমেন্ট নেকপিস দুর্গা, শিব, কালীর খুব ক্রেজ, সঙ্গে বিড্‌স আর টাস্‌লের মিলমিশ থাকবে। কম্বিনেশন করা জুয়েলারি এ বছর ট্রেন্ডে। আফগান জুয়েলারি ভীষণ ইন। মজা হল, বাজারে আসল আফগানি গয়না, একটু ভাল মানের নকল আফগানি গয়না ও কম মানের আফগানি গয়না তিনটেরই দেখা মিলবে। চিনে নিতে হবে আপনাকেই। আফগানি জুয়েলারি মিনে আর পিওর সিলভারের হয়, যার দাম বেশ চড়া। জার্মান সিলভারেও হয়। মিনেরও কোয়ালিটি আছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং