BREAKING NEWS

১১ কার্তিক  ১৪২৭  বুধবার ২৮ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

হ্যান্ডমেড না সোনা, ভারী নাকি হালকা? পোশাকের সঙ্গে মানানসই চুড়ি না পরলে সাজটাই মাটি

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 18, 2020 11:16 pm|    Updated: October 18, 2020 11:16 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আর মাত্র দু, একটা দিন হাতে। ষষ্ঠী থেকেই একেবারে নতুন রূপে, নতুন সাজে বেরিয়ে পড়তে হবে। হোক না করোনা কাল, চিরাচরিত প্যান্ডেল হপিংয়ে কাটছাঁট। তবু পুজোর কয়েকটা দিন বিশেষ সাজগোজ (Fashion) থেকে কি দূরে থাকতে পারেন বঙ্গললনারা? মোটেই না। তাই দল বেঁধে বেরনো হোক বা না হোক, ঘরের চার দেওয়ালে থাকলেও উৎসবের আমেজ পুরোপুরি মেখে নিতে পুরোদস্তুর তৈরি সকলে।

[আরও পড়ুন: পুজোর বাজারে হিট করোনা শাড়ি! দাম মধ্যবিত্তের সাধ্যের মধ্যেই]

শাড়ি কিংবা সালোয়ার-কামিজ অথবা জিনস-টপ, পুজোর (Durga Puja) কোনদিন কী পরবেন, তা নিশ্চয়ই এতক্ষণে ঠিক করে ফেলেছেন সকলে। কিন্তু কীসের সঙ্গে কোন অ্যাকসেসরিজ পরবেন, তা এখনও ভাবছেন তো? আজ বরং দেখে নিন, কোন ড্রেসের সঙ্গে হাতে কী পরবেন। চুড়ি না ব্রেসলেট নাকি কঙ্কন – সবটাই নির্ভর করবে, আপনি কী ধরনের পোশাক পরছেন, তার উপর। সহজে সিদ্ধান্ত নিতে রইল টিপস-

শাড়ি যখন হালকা রং, হ্যান্ডলুম
– ধরুন, ষষ্ঠী বা অষ্টমীর সকালে সাদার উপর রঙিন কোনও শাড়ি পরছেন, তার ডিজাইন একেবারে সাবেকি, রং হালকা। হাতে কী পরবেন? মোটেই শাড়ির রঙের সঙ্গে ম্যাচ করে সরু চুড়ির কথা ভাববেন না। বরং একটু মোটা, গাঢ় রঙের হ্যান্ডমেড চুড়ি পরুন বেশ কয়েকখানা। কড়ি বসানো কিংবা কলামকারি প্রিন্টেড কাপড়ের চুড়ি দারুণ মানাবে। আকার পুরোপুরি গোল না হয়ে একটু অন্য জ্যামিতিক আকার হলে বেশি ভাল। তাতে আপনার সাজ আরও খুলবে।

Fashion

শাড়ি যখন ভারী, ঐতিহ্যের ছোঁয়ামাখা
– সাদা-লাল কাঞ্জিভরম কিংবা বেনারসি পরেন, তাহলে সোনার বালা তার সঙ্গে সবচেয়ে বেশি মানানসই। তবু বাইরে বেরবেন বলে যদি সোনা পরতে একটু আশঙ্কা হয়, কুছ পরোয়া নেহি। পরে ফেলুন সাদা-লাল চূড়া। মাঝে একটা হালকা সোনার চুড়ি। ব্যস, একেবারে নতুন রূপে আপনাকে দেখবে সবাই। তবে অন্য কোনও রঙের শাড়ি পরলে, এই চূড়া কিন্তু একেবারেই পরবেন না, তাতে গোটা সাজটা মাটি হয়ে যেতে পারে।

Fashion

শাড়ি যখন গাঢ় রঙের সিল্ক
– হালকা সিল্কের শাড়ির সঙ্গে একটু ভারী অক্সিডাইজড চুড়ি পরুন। এই জুড়ি যেন মেড ফর ইচ আদার। নীলচে কিংবা সবুজাভ রঙের সিল্কের সঙ্গে ভারী ধাতব দুটো চুড়িই যথেষ্ট। আরেক হাতে থাকুক বাহারি ঘড়ি। অষ্টমী বা নবমীর সন্ধের সাজে আপনিই হয়ে উঠবেন অনন্যা।

Fashion

এ তো গেল শাড়ি-চুড়ির মিলমিশের কথা। তাহলে যাঁরা শাড়ি পরবেন না কিংবা পশ্চিমী পোশাক পরবেন, তাঁদের সাজে কি চুড়ির কোন ভূমিকাই থাকবে না? আলবাৎ থাকবে। সেসব টিপসও বাদ যাবে না।

[আরও পড়ুন: ত্বকের বয়স ধরে রেখে হয়ে উঠুন আরও আকর্ষণীয়, রইল টিপস

সিল্কের সালোয়ার-কামিজ পরলে বেশি না ভেবে ম্যাচিং কাঁচের চুড়ি পরে ফেলুন। সবচেয়ে ভাল মানাবে। অবশ্য চুড়ির রং কনট্রাস্টও হতে পারে। অর্থাৎ সালোয়ারের রং হালকা হলে, ডিপ রঙা ওড়নার সঙ্গে ম্যাচিং চুড়ি পরতে পারেন। অথবা দুই রঙের কাঁচের চুড়ি সাজিয়ে নিয়ে পরলেও আপনার সাজ দারুণভাবে ফুটে উঠবে।

Fashion

জিনস-টপের সঙ্গে বেছে নিন হালকা রিস্টলেট। রুপোলি হলেই ভাল হয়। একটা সরু কবজিবন্ধনী, কিছুটা ঝুলবে ঠিক কবজির কোণ থেকে। আরেক হাতে চওড়া ঘড়ি। ব্যস, বঙ্গললনার পাশ্চাত্য সাজে এটাই হবে এক্সক্লুসিভ। তাহলে আর দেরি কেন? পোশাকের সঙ্গে গুছিয়ে রাখুন চুড়িটাও। পুজোর দিনগুলোয় আর আলাদা করে ভাবতে হবে না।

Fashion

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement