৫ কার্তিক  ১৪২৬  বুধবার ২৩ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যে রাঁধে, সে চুলও বাঁধে৷ বাংলার এই প্রবাদবাক্যটিকে একটু ঘুরিয়ে বলাই যায়, যিনি ক্রিকেট খেলেন, তিনি রেস্তরাঁর মালিকও হন৷ কলকাতার বুকে খেলা-খাবারের মেলবন্ধন অবশ্য ঘটিয়ে দেখিয়েছিলেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়৷ সে পথে হেঁটেছেন ক্রীড়াজগতের অনেকেই৷ এমনকী বর্তমান ভারতীয় ক্রিকেট অধিনায়ক বিরাট কোহলিও দিল্লিতে একটি রেস্তরাঁ খুলেছেন ‘নুয়েভা’ নামে৷ নিশ্চয়ই মন চাইছে কোহলির রেস্তরাঁয় ঢুঁ মেরে একটু স্বাদ পেতে? তাহলে আসুন, সেখানকার মূল আকর্ষণগুলো আপনাকে জানিয়েই দিই৷

[আরও পড়ুন: বর্ষায় ইলিশ খিচুড়ি হয়ে যাক, জেনে নিন জিভে জল আনা রেসিপির খুঁটিনাটি]

প্রথমত ‘নুয়েভা’র পরিবেশ৷ বিশ্বমানের যে কোনও রেস্তরাঁকে হারানোর ক্ষমতা রাখে কোহলির রেস্তরাঁ৷ পরিবার সঙ্গে নিয়ে খেতে গেলে বসতে পারেন নরম গদিওয়ালা সোফা এবং বেতের চেয়ারে৷ লাউঞ্জ থেকে বার কাউন্টারে যাওয়ার আলো-আঁধারি ঘোরাল সিঁড়ির পরিবেশ আপনাকে টানবেই৷ যেহেতু মালিক বিরাট কোহলি, স্বভাবতই থিমে ক্রিকেটের ছড়াছড়ি৷ একেবারে নিচতলাটি ফ্যামিলি পার্টি হোক বা কর্পোরেট, এক্কেবারে আদর্শ৷

দ্বিতীয়ত, খাবারের রকমারি মেনু৷ জাপানি, ইটালিয়ান থেকে শুরু করে দক্ষিণ আমেরিকার যে কোনও পদ চান, হাতের কাছেই পেয়ে যাবেন৷ প্রত্যেক ধরনের খাবারের জন্য আলাদা আলাদা শেফ রয়েছেন৷ তাঁদেরই তত্বাবধানে পদ তৈরি হওয়ায় একেবারে খাঁটি স্বাদ বজায় থাকে৷ লোভনীয় পাস্তা বলুন বা সুশি – আপনার এক ইচ্ছেতেই পাত সাজিয়ে দেবে ‘নুয়েভা’৷

nueva2

এবার শোনাই ককটেল কথা৷ ফল দিয়ে তৈরি সাংগারিয়া হোক বা সামান্য অ্যালকোহল মিশ্রিত বায়া বেসো আপনার জিভের স্বাদই পালটে দেবে৷ আর ব়্যাসবেরি বা আঙুরের সাধারণ জুসও এমনভাবে পরিবেশিত হয় ‘নুয়েভা’য় যে আপনি প্রত্যাখ্যান করতেই পারবেন না৷

[আরও পড়ুন: বর্ষায় জিভে জল আনা তেলভাজা কোথায় পাবেন? জেনে নিন ঠিকানা]

লাস্ট বাট নট দ্য লিস্ট৷ খেতে খেতে কোনও না কোনও সময় বিরুষ্কার সঙ্গে দেখা হয়ে যেতেই পারে৷ খেলা কিংবা শুটিংয়ের ফাঁকে কোহলি-অনুষ্কা যুগলে চলে আসেন রেস্তরাঁয়৷ তাহলে তো স্পেশ্যাল ডিনারের মাঝে সাক্ষাৎ তারকা দর্শন! ওহ, ঠিকানাটাই তো বলা হল না৷ সঙ্গম কোর্টওইয়ার্ড, আরকে পুরম, নিউ দিল্লি – এই ঠিকানায় গিয়ে একেবারে একতলায় চোখে পড়বে ‘নুয়েভা’৷ দুপুর ১২টা থেকে রাত ১টা পর্যন্ত যে কোনও সময় চলে যেতে পারেন৷ দু’জনের জন্য মোটামোটি হাজার তিনেক টাকাই যথেষ্ট৷ তাহলে আর ভাবছেন কেন? একটা দিন ‘নুয়েভা’র স্বাদ নিয়েই আসুন৷

nueva3

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং