Advertisement
Advertisement
Scrub Typhus

বসিরহাটে স্ক্রাব টাইফাসে আক্রান্ত শিশু! বিপদ মুক্তির উপায় জানালেন চিকিৎসক

অজানা পোকার কামড়েই বিপদ! কী করবেন?

A child has been affected by scrub typhus in Basirhat, What should one do to survive this disease?
Published by: Ramen Das
  • Posted:June 23, 2024 3:54 pm
  • Updated:June 23, 2024 4:47 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মাত্র এক বছর আগেই বর্ষার শুরুতে ‘বিপদবার্তা’ শুনিয়েছিল স্ক্রাব টাইফাস। ওড়িশা, হিমাচলপ্রদেশে পরজীবী এক পোকার কামড়ে মৃত্যু হয়েছিল একাধিকের! এরাজ্যের জলপাইগুড়িতেও ছড়ায় স্ক্রাব টাইফাস (Scrub Typhus)। করোনা (COVID 19) পেরিয়ে এবার বসিরহাটে স্ক্রাব টাইফাসে আক্রান্ত হল এক শিশু! শিশুর পরিবারের দাবি, ১০-১২দিন ধরে জ্বরে ভোগার পর চিকিৎসকের কাছে যান তাঁরা। তারপর জানা যায়, স্ক্রাব টাইফাসে আক্রান্ত হয়েছে তাঁদের সন্তান। যদিও চিকিৎসকদের পরামর্শে আপাতত স্থিতিশীল বসিরহাট পুরসভার ১১ নম্বর ওয়ার্ডের ওই বাসিন্দা। এ প্রসঙ্গে বসিরহাট (Basirhat) স্বাস্থ্য জেলা আধিকারিক রবিউল ইসলাম ঢালি জানিয়েছেন, ”এই বিষয়ে আমরা সচেতনতার বার্তা নিয়ে বিভিন্ন ক্যাম্প করব। লিফলেট ছড়াবো এবং মানুষকে সতর্ক করব, আমাদের কর্মসূচি লাগাতার চলবে।”

কিন্তু কী এই স্ক্রাব টাইফাস? এসএসকেএম হাসপাতালের (SSKM Hospital) শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ সৌমিতা সরকার বলছেন, ওরিয়েন্সিয়া শুশুগামুশি নামে এক ধরনের অন্তঃকোষীয় পরজীবী সংক্রমণে এই রোগ হয়। এক ধরনের ‘মাইট’, আকারে মাত্র ০.২-০.৪ মিমি। জুন থেকে নভেম্বর মাসের মধ্যে ‘মাইট’ ডিম পাড়ে। এই সময়েই রোগের বাড়বাড়ন্ত হয়। মাইটের লার্ভা কামড়ানোর ৬-২০ দিন (গড়ে ১০দিন) পরে রোগের লক্ষণ প্রকাশ পায়। পোকা কামড়ানোর জায়গায় প্রথমে র‍্যাশ, এরপর পোড়া ঘায়ের মতো ‘এস্কার’ তৈরি হতে পারে। উচ্চ তাপমাত্রা, মাথাব্যথা, র‍্যাশ, গায়ে ও পেটে ব্যথা, বমি, ফুসফুস, হৃৎযন্ত্র ও মস্তিষ্কের প্রদাহ, বুকে-পেটে জল জমে যাওয়া, লসিকা গ্রন্থিফুলে যাওয়া, জীবাণু শরীরে প্রবেশের পরে এই লক্ষণগুলি দেখা যেতে পারে। অনেক ক্ষেত্রে শ্রবণক্ষমতাও হ্রাস পেতে পারে বলে বলছেন চিকিৎসক।

Advertisement

শিশুদের শরীরে এই রোগের কোনও লক্ষণ দেখা দিলে কী করবেন? চিকিৎসক সৌমিতা সরকার বলছেন, এই রোগের নির্দিষ্ট ওষুধ রয়েছে। রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে রোগনির্ণয় করা সম্ভব। কোনও রকমের উপসর্গ দেখা দিলেই ভয় না পেয়ে নিকটবর্তী হাসপাতাল বা চিকিৎসকের কাছে যেতে হবে। এই রোগ থেকে বাঁচতে পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখার দিকেও জোর দিয়েছেন চিকিৎসকেরা।

Advertisement

[আরও পড়ুন: এখনও সক্রিয় নয় মৌসুমী বায়ু! বর্ষা এলেও ভারী বৃষ্টি নেই দক্ষিণে]

প্রসঙ্গত, যিশুখ্রিস্টের জন্মেরও ৩১৩ বছর আগে থেকে শুরু করে নেপোলিয়নের বাহিনীর একটা বড় অংশ, টাইফাস জ্বরে মৃত্যু হয় বহুর। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ চলাকালীন হাজার হাজার সৈন্য এই রোগের কবলে পড়েন। বছরে কোটি কোটি মানুষ আজও এই জীবাণু দ্বারা সংক্রামিত হন। ভারত, নেপাল, পাকিস্তান, আফগানিস্তান থেকে শুরু করে রাশিয়া, জাপান, কোরিয়া- বহু দেশেই ভয়ানক হয় স্ক্রাব টাইফাস। কিন্তু ডেঙ্গু-ম্যালেরিয়া নিয়ে প্রচার বেশি হলেও এই রোগ প্রতিরোধের বার্তায় এখনও উদাসীন প্রশাসন, বলছেন কেউ কেউ।

[আরও পড়ুন: মেরে হাঁটুর মালাইচাকি ভেঙে দেওয়ার নিদান! বিজেপি জেলা সভাপতির FIR স্থানীয় বাসিন্দার]

দেখুন ভিডিও:

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ