Advertisement
Advertisement
হৃদরোগ

হৃদরোগের আভাস দেবে বিছানার চাদর! ব্যাপারটা কী?

সময় থাকতেই নেওয়া যাবে আগাম সতর্কতা।

Amazing bed-sheet invented by IIT student to predict heart attack now
Published by: Sayani Sen
  • Posted:September 24, 2019 4:57 pm
  • Updated:September 24, 2019 4:58 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হৃদযন্ত্র বিকলের লক্ষণ শরীর জানান দেওয়ার আগেই জেনে যাবে বিছানা। সতর্ক করবে আগে থেকে। যাতে সময় থাকতে আগাম সতর্কতা নিয়ে আটকানো যায় চরম বিপদ। রাতবিরেতে উদ্বেগে ত্রস্ত হয়ে, থমথমে মুখে ছুটতে না হয় হাসপাতালে। শরীরকে সুস্থ করে তোলার জন্য পাওয়া যায় কিছুটা ‘এক্সট্রা টাইম’। আর সেই সুযোগ করে দিয়েছে দেশের আইআইটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের কয়েকজন স্নাতক। আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স বা কৃত্রিম মেধাকে কাজে লাগিয়ে তারা তৈরি করেছে এক বিশেষ সেন্সরযুক্ত চাদর, যা আগাম খবর দেবে হার্ট অ‌্যাটাকের।

[আরও পড়ুন: সারাদিন চেয়ারে বসে কাজ করে পিঠে ব্যথা? ঘরোয়া কৌশলে যন্ত্রণাকে জানান বিদায়]

অনুভূতিপ্রবণ ওই চাদর গদির নিচে পাতা থাকলেই বিছানায় শোওয়া ব‌্যক্তির হার্ট বিট থেকে শুরু করে পালস রেট, নিঃশ্বাস-প্রশ্বাসের ঘনত্ব-সহ সব তথ‌্য অনুভূতির মাধ‌্যমে সংগ্রহ করবে ওই চাদর। আর তারপর সংগৃহীত তথ্যের বিচার বিশ্লেষণ করে উক্ত ব‌্যক্তির হার্ট অ‌্যাটাকের সম্ভাবনা আছে কি নেই-সেই সিদ্ধান্তও নিতে পারবে নিজে নিজেই। অভিনব এই অনুভূতিপ্রবণ চাদর তৈরির কারিগর মূলত দু’জন। মুদিত দান্ডওয়াতে এবং গৌরব পাচরানি। দু’জনেই আইআইটির স্নাতক।

Advertisement

[আরও পড়ুন: খিদের পেটে ইনস্ট্যান্ট নুডলস? সাবধান, অচিরেই ডেকে আনবে বিপদ]

তাঁরা জানাচ্ছেন, ব‌্যালিস্টোক‌ার্ডিওগ্রাফি (বিসিজি) নামে এক বিশেষ প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে এই সেন্সরযুক্ত চাদর তৈরি করেছেন তাঁরা। “এই প্রযুক্তির সুবিধা হল, এটি হৃদযন্ত্রের সমস্ত কাজকর্মের খেয়াল রাখতে পারে। আবার তার মাপজোক করে বিশ্লেষণও করতে পারে। এই প্রযুক্তিকেই নানাভাবে প্রয়োগ করে চাদরের সেন্সরকে এতটাই অনুভূতিপ্রবণ বানানো হয়েছে যাতে তার উপরে শোওয়া ব‌্যক্তির নিঃশ্বাস প্রশ্বাসের ঘনত্ব এমনকী নাকডাকার শব্দও বুঝতে পারে সে। শুধু তাই নয়, ঘুমন্ত ব‌্যক্তি মানসিক চাপের মধ্যে রয়েছে কি না বা তাঁর ঘুম কতটা গভীর তা-ও জানাবে এই সেন্সর চাদর। বহু পরীক্ষানিরীক্ষার পর দেখা গিয়েছে, হার্ট অ‌্যাটাকের মতো রোগের আগাম পূর্বাভাস দেওয়ার ক্ষেত্রে এ যাবৎ এই চাদর সফল হয়েছে ৯৮.৪ শতাংশ ক্ষেত্রে।

Advertisement

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ