Advertisement
Advertisement
Heart Surgery

ডান দিকে হার্ট, কলকাতায় সফল হল বাইপাস সার্জারি

কলকাতায় সফল বিরল অস্ত্রোপচার।

Kolkata hospital performs rare surgery on heart situated in right side
Published by: Sandipta Bhanja
  • Posted:May 30, 2024 6:42 pm
  • Updated:May 30, 2024 6:42 pm

জিনিয়া সরকার: উলাটপুরাণ। হার্ট বাঁদিকের বদলে ডানদিকে। আর তাতেই হয়েছে বিপত্তি! মনারানী দাস, বয়স ৫৪ বছর। হঠাৎ করেই শুরু হয় বুকের ডানদিকে ব্যথা, শ্বাসকষ্ট। কিন্তু কে বুঝবে যে ডানদিকে ব্যথা হলেও হার্ট অ্যাটাক হতে পারে! হ্যাঁ হতেই পারে। এমন অনেকেই আছেন যাঁদের হার্ট থাকে ডানদিকে। কিন্তু তা না জানলে বোঝা মুশকিল। এই রোগীর তাই রোগ নির্ণয়ে দেরি হয়। হাসপাতালে এলে ইসিজি করে ধরা পড়ে হার্ট অ্যাটাক হয়েছে ও রোগীর ‘ডেক্সট্রোকার্ডিয়া’ রয়েছে। এই বিশেষ পরিস্থিতি নিয়ে যদি কেউ জন্মান, তার শরীরে ‘সাইটাস ইনভার্সাস’ অর্থাৎ, বেশির ভাগ অঙ্গপ্রত্যঙ্গই শরীরের উলটো দিকে থাকে। এক্ষেত্রে হার্টের পাশাপাশি যকৃৎ, প্লীহা, ফুসফুসের অবস্থানও উলটো হয়।

এমনিতে এই অঙ্গগুলির উল্টো অবস্থানের জন্য কোনও রকম শারীরিক সমস্যা থাকে না। অসুবিধা হয় কোনও অসুখ করলে বা সার্জারির দরকার পড়লে চিকিৎসা করতে। এই মহিলার ক্ষেত্রে বাইপাস সার্জারির দরকার হয়। এই কঠিন অপারশেন উলটোদিকে হার্টে করা মোটেই সহজ ব্যাপার নয়। কলকাতার মনিপল হাসপাতাল ব্রডওয়েতে সফলভাবে করা হল সার্জারি। হাসপাতালের কার্ডিয়াক সার্জন ডা. সিদ্ধার্থ মুখোপাধ্যায় জানান, এমন রোগীর সংখ্যা বিরল। কয়েক লাখে একজনের এমন হয়। অপারেশন করার ক্ষেত্রে বেশ কিছু প্রতিবন্ধকতা থাকে। এটাই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। যে পদ্ধতিতে বাইপাস করা হয় সেটা পুটোরাই উলটোভাবে করা, শিরা-ধমনির অবস্থায়, অলিন্দ-নিলয় ইত্যাদি চেম্বারের অবস্থায় সব বুঝে তারপর করতে হয়। এমনও হয়েছে এক্ষেত্রে ডান হাতে যে কাজ সহজে হয়, সেটাই বাঁ হাতে করার প্রয়োজন পড়েছে। তবে এসব পরিস্থিতিকে জয় করেই অপারেশন খুবই সফলভাবে করা সম্ভব হয়েছে।

Advertisement

[আরও পড়ুন: নিয়মিত ধ্যান করলে ম্যাজিকের মতো বদলাবে জীবন, মুক্তি পাবেন একাধিক সমস্যা থেকে]

এমনকী সাধারণ বাইপাস সার্জারি করতে যেটুকু সময়লাগে, এই ডেক্সট্রোকার্ডিয়া রোগীর অপারেশন করা হয়েছে সেই সময়ের মধ্যেই। রোগী এখন ভালো আছেন। কারও কারও আবার শুধুমাত্র হার্ট থাকে উলটোদিকে (আইসোলেটেট ডেক্সট্রোকার্ডিয়া)। এতে অন্যঅঙ্গের অবস্থান স্বাভাবিকই হয়। এদের জন্মের পর থেকেই নানারকম শারীরিক জটিলতা যেমন শ্বাসকষ্ট, বুকে ব্যথা, ক্লান্তি বা অনিয়ন্ত্রিত হৃদ্‌স্পন্দনের সমস্যা দেখা যায়। তবে কী কারণে এই সমস্যা হয়? সেটা এখনও জানা যায়নি। এই বিরল রোগ আগে থেকে প্রতিরোধ করাও সম্ভব নয়। তাই একটা বয়সের পর সকলেই পুরো হেলথ চেকআপ করে দেখে নেওয়া উচিত সব অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে অবস্থা ও অবস্থান ঠিক আছে কিনা। জানা থাকলে হার্ট অ্যাটাক বা অন্য জটিল সমস্যার প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদানে অনেক সুবিধা হয়।

Advertisement

[আরও পড়ুন: বেশি বয়সে মা হওয়া কতটা ঝুঁকির? গুরুত্বপূর্ণ তথ্য জানালেন বিশেষজ্ঞ]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ