BREAKING NEWS

১০ ফাল্গুন  ১৪২৭  বুধবার ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

নাপিতের কাছে ঘাড়ে ম্যাসাজ করান? জানেন, কী ক্ষতি করছেন নিজের?

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 19, 2017 5:06 am|    Updated: September 28, 2019 3:02 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অনেকেরই অভ্যাস রয়েছে, সেলুনে চুল কাটার পর নাপিতকে দিয়ে একটু হলেও ঘাড় ম্যাসাজ করিয়ে নেওয়ার। নাপিতরাও এই দাবিতে বিশেষ আপত্তি জানান না, কারণ তাঁরা জানেন, এটুকু করে দিলেই বাড়তি বখশিশ মিলতে পারে। কিন্তু এই প্রবণতা যে কী মারাত্মক ক্ষতিকারক হতে পারে, জানেন?

আর পাঁচটা আম আদমির মতোই ৫৪ বছরের অজয় কুমারও সেলুনে গিয়েছিলেন চুল কাটাতে। চুল কাটানোর পর ঘাড় ম্যাসাজ করে দিতে বলেন নাপিতকে। নাপিত সেইমতো ঘাড়ে ম্যাসাজ করেও দেন। কিন্তু তারপরই দেখা দেয় বিপত্তি। বাড়ি ফেরার পথে তিনি শ্বাসকষ্টে ভুগতে শুরু করেন। পরে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হয়। সেখানে ডাক্তাররা তাঁকে পরীক্ষা করে জানান, অজয়বাবুর ঘাড়ের রেনিক নার্ভ ছিঁড়ে গিয়েছে।

[চুলে রং করছেন? জানেন, এতে ক্যানসার হতে পারে!]

সরকারি চাকুরীজীবি অজয়বাবুকে বর্তমানে একটি নার্সিংহোমের মেকানিক্যাল ভেন্টিলেটশনে রাখা হয়েছে। তাঁর দেহে কৃত্রিম শ্বাসপ্রশ্বাস চালানো হচ্ছে। চিকিৎসক আনন্দ জইশওয়াল জানাচ্ছে, যে নার্ভটি ছিঁড়েছে সেটি ভবিষ্যতেও মেরামত হওয়া কঠিন। হতে পারে আক্রান্তকে বাকি জীবনটুকু কৃত্রিম শ্বাসপ্রশ্বাস নিয়েই কাটাতে হবে। সেটা হলে বড় ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হবে, আশঙ্কা ডাক্তারদের।

এর জন্য সেলুনে নাপিতদের ঘাড় ম্যাসাজকেই দায়ী করছেন চিকিৎসকরা। তাঁরা বলছেন, নাপিতরা কোনও প্রশিক্ষণ ছাড়াই যেভাবে ঘাড়ের ম্যাসাজ করার নামে ওই অংশের হাড়টি নিয়ে নাড়াচাড়া করেন, সেটি অত্যন্ত বিপজ্জনক। তবে ম্যাসাজের চেয়েও বেশি বিপজ্জনক ‘নেক ক্র্যাক’। নাপিতরা সাধারণত ম্যাসাজের পর দু’দিকেই ঘাড়টি খানিকটা হেলিয়ে নির্দিষ্ট ভঙ্গিতে আচমকা বেঁকিয়ে ধরেন। এতে ‘খট’ করে একধরনের শব্দ হয়। চিকিৎসকরা বলছেন, এই বিপজ্জনক ভঙ্গিতে ঘাড় হেলিয়ে ধরার ফলে সাধারণ মানুষের প্যারালিসিস পর্যন্ত হতে পারে। হৃদপিন্ড ও ফুসফুস কাজ করা বন্ধ করে দিতে পারে।

Neck massage by barber 2

[পুজোয় চাই মোহময়ী চোখ ও ঠোঁট? কী করতে হবে জেনে নিন]

[চিত্র প্রতীকী]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement