২২ চৈত্র  ১৪২৬  রবিবার ৫ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

পুজোর আগে হয়ে উঠুন পারফেক্ট পুরুষ, কীভাবে?

Published by: Tanujit Das |    Posted: October 6, 2018 8:17 pm|    Updated: October 6, 2018 8:17 pm

An Images

কুড়ির কোঠার টগবগে যুবক। পুজোর শপিংয়ে গিয়ে এ বছরও হতাশ। জেন্টস সেকশনে নিজের কোমরের মাপের জিনস নেই। বেল্ট দিয়ে টেনেটুনে বাঁধলেও ক্রমশ নিম্নগামী হয়ে যাচ্ছে প্যান্ট। মনে শত ইচ্ছা থাকলেও গায়ে ফিট করল না নামী ব্র‌্যান্ডের জামা-প্যান্ট। হাড় গিলগিলে চেহারা ঢাকতে অগত্যা ভরসা দোকানের ঢলঢলে পাঞ্জাবির কাউন্টার। মণ্ডপে ঘোরার সময় মেয়েদের মন জেতার এটাই আইডিয়াল সময়। কিন্তু তার আগে শীর্ণকায় শরীরে মাঞ্জা দেওয়া ভীষণ প্রয়োজন। কাঠির মতো চেহারাকে কীভাবে পুরুষালি করে তোলা যায় এ চিন্তা এখন ২৪ ঘণ্টা ঘুরপাক খাচ্ছে পাতলুদের মনে। তাই রইল চটজলদি চেহারায় হালকা মেদ ও লাবণ্য ফেরানোর টিপস।

[সাবধান! ঘুমের মধ্যে চিন্তা ডেকে আনতে পারে মারাত্মক সমস্যা]

খাওয়াদাওয়া:

ওজন ও মাসল বাড়াতে খান বাড়িতে বানানো প্রোটিন শেক। লো-ফ্যাট দই, ১০০ মিলিলিটার সেমি-স্কিমড মিল্ক, কুচানো আমন্ড বাদাম, পিনাট বাটার, কলা, স্ট্রবেরি, মধু ও প্রোটিন পাউডার অল্প জলে মিশিয়ে রোজ খান। দুধ, ভাত, বাদাম, খাসির মাংস, আলু, স্যালমন ও তেলযুক্ত মাছ, প্রোটিন সাপ্লিমেন্ট। হাই ক্যালোরিযুক্ত খাবার খাওয়া জরুরি। তবে রাস্তার ফাস্ট ফুড, জাঙ্ক ফুড খাওয়া উচিত নয়। ডায়েট সফট ড্রিঙ্কস, ফ্রুট জুস, লো-ফ্যাট দই। যাঁরা একবারে অনেকটা খেতে পারেন না তাঁরা ঘন ঘন অল্প করে খাবার খেতে হবে। প্রতিদিন খাবার পরিমাণ বাড়ান। কার্বহাইড্রেট যুক্ত খাবার খান। মধ্যাহ্নভোজের ৩০ মিনিট আগে জল পান করবেন না।

[জানেন কি, আপনার এই অভ্যাসগুলি হতে পারে অন্ধত্বের কারণ!]

এক্সারসাইজ:

প্রথম দিনে: শরীরের উপরের অংশের পেশি সঞ্চালনে জোর দিতে হবে। তাই প্রথমে দু’সেট করে পুশ আপ করতে হবে। তারপর চেয়ারে বসে দু’সেট ট্রাইসেপ ডিপস করতে হবে। ৬ সেট পুল আপস, ৩ সেট অ্যাব সার্কিটস। প্রতিটি সেটে ২০ বার করে করতে হবে।

দ্বিতীয় দিনে: কার্ডিও এবং শরীরের নিচের অংশের অঙ্গ সঞ্চালনের জন্য দু’সেট স্কোয়াট, দু’সেট স্কোয়াট জাম্প, দু’সেট লাঞ্জ, তিন সেট বারপি।

প্রথম দিন যে ব্যায়ামগুলি করা হয়েছে সেইগুলিই করতে হবে তৃতীয় দিনে। দ্বিতীয় দিনেরগুলি করতে হবে চতুর্থ দিনে। এভাবে নিয়মিত ব্যায়ামগুলি করলে ১০-১৫ দিনের মধ্যে ওজন বৃদ্ধি পাবে। তবে একবার বিশেষজ্ঞর পরামর্শ নিয়ে নেওয়া উচিত। এছাড়া সাঁতার কাটা, জগিং, বেঞ্চ প্রেস, স্কোয়াটস, পুল আপস, পুশ আপস, আপ রাইট বারবেল রো’স, ডাম্বেল সোলডার প্রেস। তবে সাবধান, অ্যারোবিক এক্সারসাইজ করবেন না।

Advertisement

Advertisement

Advertisement