BREAKING NEWS

১৯ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ৫ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

হরমোনের তারতম্যেই লকডাউনে অনিয়মিত ঋতুস্রাবের শিকার মহিলারা, জেনে নিন মুক্তির উপায়

Published by: Bishakha Pal |    Posted: May 19, 2020 6:19 pm|    Updated: May 19, 2020 6:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: লকডাউনের সময় ঋতুস্রাব নিয়ে ভুগছেন অনেক মহিলাই। যাদের প্রতি মাসে নিয়মিত পিরিয়ড হত, তাদেরও মাস দুয়েক ধরে দিন এগিয়ে পিছিয়ে যাচ্ছে। কারও কারও তো আবার ঋতুস্রাব হয়নি, এমন সমস্যাও তৈরি হয়েছে। ফলে চিন্তায় রয়েছেন মহিলারা। লকডাউনের মধ্যে অধিকাংশ ক্লিনিক বন্ধ। করোনা পরিস্থিতিতে হাতের কাছে ডাক্তার পাওয়াও মুশকিল। ফলে হরমোনের ডিসব্যালেন্স ও চিন্তায় মেজাজ সর্বক্ষণ চড়ে থাকছে সপ্তমে। পান থেকে চুন খসলেই ঝগড়া হচ্ছে দাম্পত্য জীবনে। কিন্তু এ নিয়ে উদ্বিগ্ন হওয়ার কোনও কারণ নেই।

চিকিৎসকের মতে, এটি খুব স্বাভাবিক ব্যাপার। কারণ যে সব মহিলারা প্রতিদিন অফিস যাতায়াত করেন, তারা এখন সম্পূর্ণভাবেই বাড়িতে বসে। কাজকর্ম সবকিছুই হচ্ছে বাড়ি থেকে। ফলে আগে শরীর যেমন পরিশ্রম করত, এখন তা অনেকটাই কমে গিয়েছে। ফলে জীবনযাত্রায় এসেছে ব্যাপক এক পরিবর্তন এনেছে। ডায়েট, ঘুমের অভ্যাস এবং ওয়ার্ক আউট রুটিনে একটি বড়সড় পরিবর্তন হয়েছে। এবং এরই প্রভাব পড়েছে ঋতুস্রাবের উপর।

[ আরও পড়ুন: রেমডিসিভির বানাবে ভারত, ৩ সংস্থার সঙ্গে চুক্তি সাক্ষর মার্কিন কোম্পানির ]

এছাড়া লকডাউনের আগের তুলনায় মহিলারা এখন অনেক বেশি চাপের মধ্যে রয়েছেন। কর্টিসল হরমোন (স্ট্রেস হরমোন) মাসিক চক্র নিয়ন্ত্রণ করে। সেটি দেহের মধ্যস্থ রাসায়নিকের স্তরকে হ্রাস করতে শুরু করেছে। করোনা ভাইরাস ও লকডাউন মানুষের মনে আতঙ্ক এবং ভয় তৈরি করেছে। জীবন সম্পর্কে অনিশ্চয়তার ফলে বৃদ্ধি পাচ্ছে স্ট্রেস লেভেল। এর ফলে হরমোনগুলির নিঃসরণে অনিয়ম দেখা দিয়েছে। যার প্রভাব পড়েছে ঋতুচক্রে। সাধারণত মানসিক চাপ বাড়লে ইনসুলিনের নিঃসরণে ভারসাম্যহীনতা সৃষ্টি করতে পারে। এর ফলে লেপটিন হরমোনের উৎপাদন আরও বেড়ে যায়। ঋতুস্রাব অনিয়মিত হওয়ার এটিও অন্যতম কারণ।

শুধু অনিয়মিত ঋতুস্রাব নয়, হরমোনের এই ভারসাম্যহীনতার ফলে পেট ব্যথা বা অন্য সমস্যাও হতে পারে মহিলাদের। স্ট্রেস ও ঠিকমতো পিরিয়ড না হওয়ায় চুল পড়া, ব্রণ এবং ওজন হ্রাস হওয়াও অসম্ভব নয়। স্ট্রেস হ’ল বিভিন্ন হরমোনের শত্রু। লকডাউনের ফলে সবারই কমবেশি স্ট্রেট বৃদ্ধি পেয়েছে। যার প্রভাব পড়েছে পিরিয়ডে। এর থেকে মুক্তির উপায় যে নেই, তা নয়। চিকিৎসকদের মতে, নিজের মতো রুটিন সেট করুন। স্বাস্থ্যকর খাবার খান, সময় মতো ঘুমান এবং যথাসম্ভব খুশি থাকার চেষ্টা করুন। অহেতুক চাপ নেবেন না। তবে অনেকটাই সমস্যার নিরসন হবে।

[ আরও পড়ুন: করোনা মোকাবিলায় দিশা দেখাবে আর্সেনিকাম অ্যালবাম, দাবি আয়ুষ মন্ত্রকের ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement