৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পুজো আসছে। এখন শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে ছিপছিপে হওয়ার সময়। নাহলে পুজোয় দূরেই রাখতে হবে ফ্যাশন। এই কাজে আপনাকে সাহায্য করতে পারে ঘি।

ঘি খেলে ওজন বাড়ে? উলটো ভাবছেন। ঘি যে ওজন বাড়ায়, এমন একটা এই চিরাচরিত ধারণা আমাদের মধ্যে আজীবনকাল রয়ে গিয়েছে। তাই অনেকেই ওজন কমাতে হলে ঘি খাওয়া বন্ধ করে দেয়। অনেক সময় ওজন কমানোর দরকার হলে ডায়েটিশিয়ানরাও ঘি খাওয়া বন্ধ করতে বলেন। ডাক্তাররাও বলেন, ফিট থাকতে গেলে ঘি বন্ধ করা উচিত। কিন্তু ঘি আদতে ওজন কমাতে সাহায্য করে। সম্প্রতি এমনই একটি তথ্য প্রকাশ পেয়েছে। বলা হয়েছে, ঘিয়ে এমন কিছু উপাদান থাকে যা অতিরিক্ত ফ্যাট দেহ থেকে ঝরিয়ে দেয়। আর তার ফলে দেহ সুস্থ থাকে।

প্রাকৃতিক উপাদানে রূপচর্চা, পুজোর আগে জেনে নিন টিপস ]

  • ঘিয়ে উপযুক্ত পরিমাণে অ্যামিনো অ্যাসিড থাকে। এটি দেহের অতিরিক্ত ফ্যাট হালকা করতে সাহায্য করে। ঘি খেলে ফ্যাট সেলগুলি সাইজে কমে যায়।
  • এতে থাকে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড। এটি স্মরণশক্তি বাড়তে সাহায্য করে। এছাড়া ওমেগা-৬ ফ্যাট অ্যাসিডও থাকে। এই দুই অ্যাসিড দেহের ফ্যাট কমাতে সাহায্য করে। ফলে দেহে ওজনে সমতা ফেরে।
  • এছাড়া ঘি পাচন ক্ষমতা বাড়াতেও সাহায্য করে। এটি ওজন বৃদ্ধি রুখে দেয়।
  • দেহ থেকে টক্সিন বের করতে সাহায্য করে ঘি। এতে ভিটামিন ডি, এ, ই ও কে থাকে। এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। ফলে শরীর ভাল থাকে। দাঁত ও হাড়ের ক্ষয়ও রোধ করে ঘি। দেশে শক্তিবৃদ্ধি ঘটায়।
  • ঘিয়ে ট্রাইগ্লিসারাইড থাকে। এটি পেটের চর্বি কমায়।

তবে সাবধান! অতিরিক্ত যে কোনও কিছুই কিন্তু ক্ষতিকর। তাই ওজন কমানোর চক্করে বেশি ঘি খেলেই কিন্তু বিপদে পড়তে হতে পারে। রোজ ঘি খেতেই পারেন। কিন্তু সামান্য পরিমাণে। ঘি দিয়ে যদি দেহের ওজন কমাতে হয়, তাহলে ডায়েটিশিয়ানের পরামর্শ নিন। সঠিক ডায়েট আপনাকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করবে।

মুক্তোর মতো সাদা দাঁত পেতে ব্যবহার করুন এই ঘরোয়া টোটকা ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং