BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এই শহরেই তৈরি হচ্ছে দেশের প্রথম সমুদ্রে ভাসমান রেস্তরাঁ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 14, 2017 1:32 pm|    Updated: June 14, 2017 1:32 pm

India’s first restaurant on the sea

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আপনার কি পছন্দের ডেস্টিনেশন সমুদ্র? সমুদ্র স্নান থেকে শুরু করে বিচ পার্টি আপনার পছন্দের তালিকায়? তাহলে এবার আপনার জন্য রয়েছে জাহাজে লাঞ্চ বা ডিনার সেরে ফেলার এক অভিনব সুযোগ। এখন আর মাঝ সমুদ্রে আপনার ভালবাসার মানুষের সঙ্গে রোমান্টিক ডিনারের জন্য আপনাকে পর্তুগাল বা মন্টে কার্লো পাড়ি দিতে হবে না। প্রথমবার ভারতে তৈরি হতে চলেছে সমুদ্রে ভাসমান রেস্তরাঁ।

[ক্যানসার ছত্রাক তাই সারবে বেকিং সোডাতেই, দাবি চিকিৎসকের]

বেশ কিছুদিন আগেই মুম্বইয়ের বিশ্ববিখ্যাত চৌপাটি বিচের কাছে সমুদ্রে ভাসমান রেস্তরাঁ গড়ে তোলার জন্য এক নিলামের আয়োজন করা হয়েছিল। সেই নিলামেই এই রেস্তরাঁ তৈরির বরাত পান জন্মসূত্রে কলকাতার ছেলে দিল্লির হোটেল ব্যবসায়ী মৃদুল থিরানি। তবে এই রেস্তরাঁর দায়িত্বে থাকবেন তাঁর স্ত্রী শ্রীপ্রিয়া ডালমিয়া থিরানি। চৌপাঠি থেকে কিছু মাইল দুরত্বে সমুদ্রে একটি সুন্দর জাহাজে তৈরি হবে এই ফাইন ডাইনিং রেস্তরাঁ। মুম্বইয়ের উপকূলবর্তী অঞ্চলের কয়েকটি নির্দিষ্ট পয়েন্ট থেকে জাহাজে উঠতে পারবেন যাত্রীরা। সেই জাহাজেই থাকছে এই অভিনব রেস্তরাঁ। খাওয়াদাওয়ার পাশাপাশি বাড়তি থাকছে মাঝ সমুদ্র থেকে মুম্বই শহরের সুন্দর ভিউ। সমুদ্র আর খাবার এই দুটোই বেশ পছন্দ হোটেলের কর্ণধার মৃদুল ও শ্রীপ্রিয়ার। তাই মুম্বইয়ের মতো ভারতের অন্যতম সুন্দর লোকেশনে সবচেয়ে ভাল ইন্টারন্যাশনাল ফুড সবাইকে উপহার দিতে চান তাঁরা। তবে শুধুই চৌপাটি নয়, বরাতের চুক্তি অনুযায়ী এই জাহাজ ঘুরবে চৌপাঠি থেকে নরিমান পয়েন্ট পর্যন্ত। শুধু একটি নয়, চাইলে বেশ কয়েকটি রেস্তরাঁ তৈরি করতে পারবেন তাঁরা। ভারতের অন্যতম ট্যুরিজম হাব মুম্বই। সারাবছরে প্রায় সাড়ে ৫ কোটি ভারতীয় এবং ৫০ লাখ থেকে ১ কোটি আন্তর্জাতিক পর্যটক আসেন মুম্বইতে। শহরের জনসংখ্যা প্রায় দেড় কোটি আর সবমিলিয়ে এই শহরে রেস্তরাঁর সংখ্যা ৫০০-রও বেশি। কিন্তু শহরে এতবড় উপকূল থাকা সত্ত্বেও সেখানে একটিও ফাইন ডাইনিং রেস্তরাঁ নেই। এবার সেই পথেই একধাপ এগোতে চলেছে মুম্বই।

[নস্টালজিয়া উসকে ভারতে Nokia-র তিনটি অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনের আত্মপ্রকাশ]

কর্ণধার শ্রীপ্রিয়া জানান, “এবার আর এই দুর্লভ মুহূর্ত উপলব্ধি করতে আর বিদেশে যেতে হবে না ভারতীয়দের। ফ্রেঞ্চ রিভেরার মতো এবার মুম্বইতে বসেই এনজয় করতে পারবেন সবাই। ২০১৭ শেষের দিকে কিংবা ২০১৮ শুরুতেই আরব সাগরে ভাসবে এই নয়া রেস্তরাঁ”। কন্টিনেন্টাল খাবারের পাশাপাশি মুম্বইয়ের লোকাল খাবারও পাওয়া যাবে এই জাহাজে, পাশাপাশি রয়েছে নানাধরনের ওয়ার্ল্ড ক্লাস ড্রিঙ্কস। নিরাপত্তার ব্যাপারে বেশ জোর দিচ্ছেন তাঁরা। প্রত্যেকটি রেস্তরাঁয় ৩০টি টেবিলের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান কর্ণধার। বেশ কয়েকদিন ধরেই মুম্বইয়ের পূর্ব উপকূলটি সাজানোর পরিকল্পনা করছে রাজ্য সরকার। এই রেস্তরাঁ তারই একটি পদক্ষেপ। খরচের দিক থেকে যা থাকবে মধ্যবিত্তের নাগালের মধ্যে, এমনটাই জানান শ্রীপ্রিয়া। যেহেতু বর্ষাকালে  ফেরি চলাচল বন্ধ থাকে তাই খাদ্যরসিকরা এই অনবদ্য অভিজ্ঞতার সুযোগ পাবেন বছরে মাত্র আটমাস।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে